গাজীপুরে আগুনে একই পরিবারের চারজন দগ্ধ !

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সালনার কাথোরা এলাকায় একটি বাসায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ওই বাসার গৃহকর্তাসহ চারজন দগ্ধ হয়েছেন। গুরুতর অবস্থায় তিনজনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ শনিবার ভোরে ওই ঘটনা ঘটে।স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহীদুল ইসলাম জানান, আজ ভোর ৪টার দিকে প্রচণ্ড বিস্ফোরণের শব্দে এলাকাবাসী কাথোরা এলাকার ইয়াকুব আলী মণ্ডলের বাড়িতে ছুটে আসে।

এ সময় ইয়াকুব আলীর একতলা বাড়ির বেডরুম থেকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় স্থানীয়রা গৃহকর্তা ইয়াকুব আলী (৫৬), তাঁর স্ত্রী আকলিমা বিবি (৪৫), ছেলে স্বপন এবং শ্বশুর নূর মোহাম্মদ শেখকে (৭৯) উদ্ধার করে। পরে তাঁদের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ইয়াকুব আলী, আকলিমা ও নূর মোহাম্মদ শেখকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে কী কারণে বিস্ফোরণ হয়েছে বা আগুন লাগার সূত্রপাত কোথায় তা জানা যায়নি।

আগুনে কক্ষের আসবাবপত্র ও মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।কাউন্সিলর শহীদুল আরো বলেন, ‘ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি ইয়াকুব আলীর শরীরের বেশির ভাগ, তাঁর স্ত্রীর দেহের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।এ বিষয়ে গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (অপরাধ) শরীফুর রহমান জানান, বিস্ফোরণের কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ মুহূর্তে আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।

দিল্লির হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন, কাজ করছে ৩৪ ইউনিট !

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির এআইআইএমএস হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নেভাতে কাজ করছে দমকল বাহিনীর ৩৪টি ইউনিট। আ*গুন চারপাশে ছড়িয়ে পড়ছে। তবে এখনও কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে,

হাসপাতালটির জরুরি বিভাগের পাশেই আগুনের সূত্রপাত। দমকল বাহিনীর সদস্যরা ভবনের ভেতর আটকা পড়া মানুষকে উদ্ধারে চেষ্টা চালাচ্ছে।হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি রয়েছেন ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি।প্রতিবেদন অনুযায়ী, হাসপাতালটির যেখানে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে সেখানে রোগীদের সংখ্যা কম। মূলত চিকিৎসকদের চেম্বার এবং গবেষণাগারগুলো ভবনের ওই অংশে অবস্থিত। ভবনের প্রথম তলায় আগুনের সূত্রপাত।

পরে তা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, প্রথম তলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হলেও দ্রুত তা ভবনের দ্বিতীয় তলায় ছড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালের বাইরে থেকে দেখা যাচ্ছে, গোটা ভবনে বিশাল আগুনের কুন্ডলি ছড়িয়ে পড়ছে।দিল্লি দমকল বাহিনীর কর্মকর্তারা বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) বলেন, তারা স্থানীয় সময় বিকেল ৫টার দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে আ*গুন লাগার খবর পান। খবর পাওয়ার পর দ্রুত সেখানে পৌঁছে আগুন নেভানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

ভারতের সাবেক কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি গত ৯ আগস্ট থেকে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে যে ভবনে আগুন লেগেছে তিনি সে ভবনে নেই। তিনি আছেন পাশের আরেকটি ভবনে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এনডিটিভিকে জানিয়েছে, ওই ভবন আগুন থেকে নিরাপদ।

ভারতে যুদ্ধবিমান বিমান বিধ্বস্ত

সর্বশেষ ধারাবাহিক যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে ভারতের অসম রাজ্যের তেজপুরে। চলতি মাসের ৮ তারিখে রাতে আকাশে ওড়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই একটি ধান ক্ষেতে বিধ্বস্ত হয় সুখোই এসইউ এমকেআই।দুই পাইলটই সৌভাগ্যক্রমে বিমান থেকে বের হয়ে আসতে পেরেছিলেন। তবে একজন এ ঘটনায় মা*রা৮ত্মক ভাবে আ*হত হয়েছেন এবং ভবিষ্যতে আর বিমান চালাতে পারবেন না তিনি।

ভারতের জন্য চলতি বছরটি শুরু হয়েছিল জাগুয়ার বিমান বিধ্ব**স্ত হওয়ার মাধ্যমে। ২৮ জানুয়ারি উত্তর প্রদেশের কুশিনগর জেলায় এ ঘটনা ঘটে।এটিও আকাশে ওড়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই বিধ্বস্ত হয়। গোরখাপুর বিমান ঘাঁটি থেকে ছক বাঁধা প্রশিক্ষণের জন্য আকাশে উড়েছিল বিমানটি। অবশ্য, বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার আগে পাইলট নিরাপদে বের হয়ে আসতে সক্ষম হয়েছিলেন।কয়েকটি সূত্র থেকে বলা হয়েছে, কারিগরি ত্রুটি আঁচ করতে পেরেছিলেন চালক। তাই বিমান থেকে জরুরি ভাবে বের হয়ে আসার আগেই একে জনবহুল এলাকা থেকে দূরে সরিয়ে নেন তিনি।

পরবর্তী মাসটি ভারতের বিমান বাহিনীর জন্য বেশ তিক্ত হয়ে থাকবে। পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের বালাকোটে চালানো বিমান হামলাকে ভারত সফল হিসেবে দাবি করা সত্ত্বেও এ মাসটি বেশ তিক্ত হিসেবে গণ্য করা হয়। ফেব্রুয়ারি মাসের পয়লা তারিখে পরীক্ষামূলক উড্ডয়নের সময়ে বিধ্বস্ত হয় ভারতীয় বিমান বাহিনীর মান-উন্নত মিরেজ ২০০০।এ ঘটনায় নি**হত হন দুই পাইলই। এ দিকে ১২ ফেব্রুয়ারি রাজস্থানের জয়সালমারে বিধ্ব*স্ত হয় মিগ-২৭। অবশ্য ভারতীয় বিমান বাহিনীর পাইলট নিরাপদে বের হতে সক্ষম হয়েছিলেন।

এদিকে, ১৯ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বিমান কসরত বা অ্যাক্রোবেটিক দল সূর্য কিরণের দু’টি বিমান বিধ্বস্ত হয়। এয়ার ইন্ডিয়া শোর মাত্র একদিন আগেই ব্যাঙ্গালুরের ইয়েলাহানকা বিমান ঘাঁটির কাছে বিমান দু’টি বিধ্বস্ত হয়। বিমান থেকে দু’জন পাইলটই বের হয়ে আসতে সক্ষম হলেও একজন পাইলট শেষ পর্যন্ত নি**হত হয়েছিলেন। খবর- পার্সটুডের।এদিকে ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান বিমান বাহিনীর সঙ্গে আকাশ যুদ্ধে ভারত অন্তত একটি মিগ-২১ হারায়। পাকিস্তান দাবি করেছে ভারতীয়দু’টি বিমান বি*ধ্ব*স্ত হয়েছে। এর একটি ভারতীয় সীমানার মধ্যে পড়েছে। যাই হোক, মিগ-২১’এর পাইলট অভিনন্দনকে আ**টক করতে সক্ষম হয়েছিল পাকিস্তান।

একই দিনে আরও একটি ম*র্মা*ন্তিক ঘট*না ঘটেছে। পাকিস্তানের সঙ্গে আকাশ যুদ্ধ যে এলাকায় হয়েছে তার থেকে অন্তত ১০০ কিলোমিটার দূরে এ ঘটনা ঘটে। ভারতীয় বিমান বাহিনীর এমআই-১৭ভি৫ হেলিকপ্টার বি**ধ্বস্ত হয়ে ভারতীয় বিমান প্রতিরক্ষা বিভাগের হামলায়। এ ঘটনায় ছয় সেনা সদস্য এবং ভূমিতে এক বেসামরিক নাগরিকসহ মোট সাত জন প্রাণ হারান।
মার্চে ৮ এবং ৩১ তারিখে ভারত হারায় দু’*টি মিগ বিমান। রাজস্থানের বিকানারে বিধ্বস্ত হয় মিগ-২১। এটি পাখির আঘাতে ভূপাতিত হয়েছিল। আর যোধপুরে বিধ্বস্ত হয় মিগ-২৭। দুই পাইলটই নিরাপদে বের হয়ে আসতে পেরেছিলেন।

তিন মাস পরে জুনের ৩ তারিখে ১৩ আরোহীসহ নিখোঁজ হয়ে যায় ভারতীয় বিমান বাহিনীর এএন-৩২ পরিবহন বিমান। কয়েক দিনব্যাপী তল্লাসি অভিযান চালিয়ে বি**ধ্বস্ত বিমানটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছিল। চীন সীমান্তবর্তী অসমের জোরহাটের মেচুকা বিমান ক্ষেত্রে যাওয়ার পথে এটি বি**ধ্বস্ত হয়।

মুসলমানদের দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিক বানানোর পথে মোদী সরকার !

মোদীর আমলে সারা দেশে মুসলমানরা আ**তঙ্কিত। মোদী সরকারের বি*রুদ্ধে ভ*য়ঙ্কর আক্রমণের রাস্তায় নেমেছে।’ ঠিক এমন ভাবেই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিএম)-এর ওয়েবসাইটে।পার্টির ওয়েবসাইটে মোদী সরকারের বি*৮রুদ্ধ্যে সংখ্যালঘু, বিশেষ করে মুসলমানদের উপর অত্যাচারের অ*ভিযোগ আনা হয়েছে। প্রতিবেদনে, সাফ জানানো হয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের স্বপ্ন পূরণ করতেই জম্মু ও কাশ্মীরে আর্টিকেল ৩৭০ বাতিলের পথে হেঁটেছে মোদী সরকার।

বিজেপি, সংঘ পরিবার নির্বিচারে মুসলমানদের ওপর আ*ক্রমণ চালাচ্ছে। বন্দেমাতরম, জয় শ্রী রাম না বললে মা**রধর করা হচ্ছে, গো-মাংস ভক্ষণ করা হচ্ছে বা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, এমন খবর পেলে তারা খুনও করতে পারে।প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, এক সময়কার সংঘ সুপ্রিম এমএস গোলওয়ালকরের ধারণাটি দেশ চলছে। এটি মোদীর ‘নিউ ইন্ডিয়া’ এবং গোলওয়ালকর যা চেয়েছিলেন ভারতে মুসলমানটা দ্বিতীয় শ্রেণীর নাগরিক হয়ে থাকবে, মোদী সরকার সেই পথই নিচ্ছে দাবি করেছে ওই প্রতিবেদন।

প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহ’র জয় মি**থ্যার উত্তর দাঁড়িয়ে। ঝুটা প্রতিশ্রুতি দিয়ে জয় তুলে এনেছেন মোদী-শাহ। ভারতের কর্পোরেট সংস্থাগুলি মোদী সরকারকে ফিরিয়ে আনতে লক্ষ কোটি টাকা খরচ করেছে।মোদী সরকার ফিরে এসেই গণতন্ত্রের কন্ঠরোধ করা শুরু করেছে। বিভিন্ন রাজ্যে টাকা দিয়ে বিধায়ক কিনে তারা সরকার ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করছে। সাম্প্রতিকতম উদাহরণ কর্ণাটক।

মূল উদ্দেশ্য একটাই, ভারতে মুসলমান সংখ্যাধিক্য কোনও রাজ্য রাখতে চায় না এই সরকার। সেই কারণেই জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হয়েছে।মুসলমানদের বিরুদ্ধ্যে সংঘ পরিচালিত বিজেপি সরকার অসমেও ষড়যন্ত্র করেছে। সেখানকার কিছু মানুষকে ‘অনুপ্রবেশকারী’ বলা হচ্ছে। তারা মুসলমান। কমিউনিস্ট আক্রমণ এখানেই থেমে থাকেনি।সূত্রে- সংবাদ প্রতিদিন

আজ ১৭/০৮/২০১৯ আরব আমিরাতসহ বিভিন্ন দেশের স্বর্ণের রেট জেনে নিন !

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশ এ স্বাগতম ! ধনী থেকে গরিব সবাই চায় এটি কাছে রাখতে । কিন্তু অনেক দাম হওয়ার কারনে শুধু ধনী বাক্তিরাই সেটি সংরক্ষন করতে পারে। তবে যারা দেশের বাইরে থাকেন তারাও মাঝে মাঝে ভাল স্বর্ণ কম মূল্যে কিনতে পারে। তার প্রবাসী ভাইদের জন্য এটি বেশ।

ভরি =১১.৬৫৪ গ্রাম

বাংলাদেশ: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট)  =  3675  টাকা ।  দুবাই: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম =  183.20দেরহাম,  (22 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 172.50 দেরহাম । সৌদি আরব: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম =  183.40 সৌদি রিয়্যাল, (22 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 173.36 সৌদি রিয়্যাল ।

কাতার: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 175.28 কাতারি রিয়্যাল ।

সিঙ্গাপুর: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 64.74 ডলার ।

মালয়েশিয়া: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 197.34 রিংগিত ।

ইংল্যান্ড: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 38.95 ব্রিটেন পাউন্ড ।

বাহরাইন: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 17.80 দিনার ।

ওমান: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 18.27 রিয়াল ।

অস্ট্রেলিয়া: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 58.68 অস্ট্রেলিয়ান ডলার ।

কুয়েত: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 14.43 দিনার ।

কানাডা :  প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম =  41.18 কানাডিয়ান ডলার ।

আমেরিকা: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 47.25 আমেরিকান ডলার ।

যেকোনো সময় স্বর্ণের রেট উঠানামা করতে পারে। যে যেখানে আছেন নিরাপদে থাকুন, আনন্দময় হোক আপনার সারাদিন।নতুন নতুন খবর পেতে সবসময় আমার বাংলাদেশের এর সঙ্গে থাকুন। ধন্যবাদ ।

সিলেটে হানিমুনে গিয়ে লা’শ হয়ে ফিরলেন নব দম্পতি !

ঈদের এক সপ্তাহ আগে বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া শিক্ষার্থী সাদিয়া আক্তার সাথীর সঙ্গে বিয়ে হয় ব্যবসায়ী ইমরান হোসেনের। বিয়ের পর ঈদ উৎসব পালন। তারপর হানিমুন।তবে বাড়ি ফে*রা হলো না এই দম্পতির। পথেই বাসের চাপায় পৃষ্ট হয়ে না ফেরার দেশে তারা। মেহেদির রঙ এখনো মুছেনি, যায়নি বিয়ে বাড়ির ধুম। এরই মধ্যে নব দম্পতিসহ চারজনের মৃ’**ত্যু*র খবরে মূর্ছা যাচ্ছেন নিহতদের পরিবারের সদস্যরা।

আজ শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে সিলেট থেকে ফেরার পথে নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের কারারচর এলাকায় শ্যামলী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীসহ চারজন নি**হত হন। আহত হন আরও চারজন। মুমূ**র্ষু অবস্থায় আ*হত চারজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছেন, হানিমুন ও মাজার জিয়ারত শেষে গতকাল রাতে বন্ধুদের সঙ্গে প্রাইভেটকারযোগে সিলেট থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন। প্রাইভেটকারটি শিবপুরের কারারচর এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক ঢাকা থেকে আসা সিলেটগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এ সময় প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি খা**দে পড়ে যায়।এতে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারে থাকা নব দম্পতিসহ তিন যাত্রী মা’**রা যান।

খবর পেয়ে ইটাখোল হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস নরসিংদী ও শিবপুরের চারটি ইউনিট দু**র্ঘ*টনাস্থল থেকে হতা*হতদের উদ্ধার করে। আহত অবস্থায় বাস ও প্রাইভেটকারের আরও পাঁচ যাত্রীকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও একজন মা’রা যান। আহতদের মধ্যে চারজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মূলত বেপরোয়া গতিতে পাশ কাটাতে গিয়ে এ দুর্ঘ**টনা ঘটে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তারা।

কাশ্মীরে কারাগারে জায়গা নেই, গ্রেপ্তারকৃতরা বন্দি হাউজে !

জম্মু-কাশ্মীর থেকে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলকে কেন্দ্র করে প্রায় এক হাজার রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করার পর তাঁদের আটক রাখার জায়গা পেতে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন। উপত্যকার প্রশাসন এখন ব্যক্তিগত সম্পত্তি ভাড়া নিচ্ছে যাতে আটক ব্যক্তিদের সেখানে রাখা যায়।

ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শ্রীনগরের শের-ই-কাশ্মীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন কেন্দ্রসহ বারামুল্লা ও গুরেজের কনভেনশন কেন্দ্রকে অস্থায়ী বন্দিশালা হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এসব বন্দিশালায় অন্তত ৫৬০ জন রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে আটক রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।ভারত সরকার জম্মু-কাশ্মীর বিষয়ে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ করার ঘোষণা দেওয়ার আগে ৪ আগস্ট রোববার গভীর রাতে কাশ্মীরের সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আবদুল্লাহকে গৃহবন্দী করা হয়। এরপর ৫ আগস্ট ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদের পর মেহবুবা মুফতি ও ওমর আবদুল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সূত্রের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে জানায়, অতীতে যেসব রাজনৈতিক কর্মী পাথর নিক্ষেপের ঘটনায় জড়িত ছিল তাদেরও পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। পাশাপাশি উপত্যকার পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণের বাইরে না যায়, সেজন্য আরো অনেক রাজনৈতিক কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মুনির খান জানান, জননিরাপত্তা আইনের (পিএসএ) আওতায় কয়েকজন ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

সন্দেহভাজন কোনো ব্যক্তিকে কয়েক বছর কারাগারে আটকে রাখতে উপত্যকায় এই আইন ব্যবহার করা হয় বলে জানা গেছে।এক সংবাদ সম্মেলনে মুনির খান বলেন, ‘জননিরাপত্তা আইনের আওতায় কয়েকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা তা চাই না কারো প্রাণহানি হোক।’

মাগুরায় ডেঙ্গুতে কলেজছাত্রের মৃত্যু !

মাগুরায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আজ শনিবার ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সুমন মোল্লা (১৭) নামের এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। সদর উপজেলা ধলহরা চাঁদপুর গ্রামের মিজানুর রহমান মোল্লার ছেলে সুমন স্থানীয় শত্রুজিৎপুর কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, নিজ বাড়িতে জ্বরে আক্রান্ত হয় সুমন। এরপর গত ৮ আগস্ট রক্ত পরীক্ষায় সুমনের শরীরে ডেঙ্গুর ভাইরাস ধরা পড়ে। ওই দিনই তাঁকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে চার দিন পর তাঁকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন চিকিৎসকরা। অবশেষে আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. স্বপন কুমার কুণ্ডু জানান, গত ৮ আগস্ট ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মাগুরা হাসপাতালে ভর্তি হয় সুমন মোল্লা। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ১২ আগস্ট ফরিদপুর মেডিকেলে স্থানান্তর করা হয়েছিল।সুমনসহ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মাগুরায় তিনজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। মাগুরা সদরের পুটিয়া গ্রাম থেকে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে জয়া সাহা গত ৪ আগস্ট ঢাকার অ্যাপোলো হাসপাতালে ও ১৫ আগস্ট শরীফ জয়নাল আবেদিন সদরের নরসিংহাটি গ্রামের নিজ বাড়িতে মারা যান।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, এ পর্যন্ত মাগুরা ২৫০ শয্যা ও মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেড় শতাধিক ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে। যার মধ্যে অধিকাংশ চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। বর্তমানে এ দুটি হাসপাতালে ৩০ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিচ্ছে।

সৌদি আরবের শ্রম মন্ত্রণালয় প্রবাসীদের জন্য যে সুখবর দিল !

সৌদি আরবে প্রবাসী শ্রমিকদের পাসপোর্ট জব্দ না করার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়। সম্প্রতি সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়। সৌদি আরবের শ্রম মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তুষার আল মুফারিজের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে,প্রবাসী শ্রমিকদের পাসপোর্ট জব্দ করে রাখা নিয়োগকর্তাদের জন্য কখনও বৈধ নয়।

প্রবাসী কর্মী এবং নিয়োগকর্তাদের মধ্যে চুক্তিভিত্তিক সম্পর্ক থাকে। তাই শ্রম গাইডে কখনওই প্রবসী শ্রমিকদের পাসপোর্ট জব্দের অনুমোদন ছিল না।দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা বাস্তবায়নে ব্যর্থ নিয়োগকারীদের জরিমানা গুণতে হবে।
এতে আরও জানানো হয়, কর্মী নিয়ন্ত্রণ এবং পলায়ন প্রতিরোধে দেশের কয়েকটি প্রাইভেট কোম্পানি তাদের কর্মীদের পাসপোর্ট নিজের কাছে রাখে। নিয়োগকর্তাদের কাছে শ্রমিকের পাসপোর্ট রাখার নিয়ম শ্রম গাইডে নেই।

শ্রম মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চলতি বছর দেশটির অধিকাংশ কোম্পানি এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের প্রবাসী শ্রমিক ৬০ শতাংশ কমে ৯ লাখে নেমে এসেছে। ২০১৪ সালের একটি কাউন্সিলে প্রবাসী কর্মীদের পাসপোর্টে বিষয়ে বেসরকারি কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করেছিল সৌদি আরবের শ্রম মন্ত্রণালয়।প্রসঙ্গত, এর আগে সৌদি আরবে প্রবাসী শ্রমিকদের বিরুদ্ধে পলায়নের মিথ্যা অভিযোগ করলে নিয়োগকারীদের শাস্তির বিধান রেখে শ্রম গাইডে সংশোধনী আনার বিষয়টি নিশ্চিত করে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়।

কোনো প্রতিষ্ঠান প্রবাসী শ্রমিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা পলায়ন প্রতিবেদন দিলেও তাদেরকে পৃষ্ঠপোষক বা চাকরি পরিবর্তনের অনুমতি দেওয়া হবে।

কাশ্মীরে মধ্যরাতে অভি’যানে শিশু অ’পহ’রণ ও নারী নি’র্যাতন করছে সেনারা !

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরে মধ্যরাতে অভিযান চালিয়ে ভারতীয় সেনারা কয়েকশ কাশ্মীরি ছেলেমেয়েকে তুলে নিয়ে গেছে এবং নারী ও তরুণীদের ওপর নির্যা’তন চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কারফিউ চলাকালে কাশ্মীরের বহু জায়গায় সরাসরি ঘুরে এসে একটি প্রতিবেদনে এমনটি দাবি করেছেন ভারতের কয়েকজন অর্থনীতিবিদ ও সমাজকর্মী।

তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল বৃহস্পতিবার প্রভাবশালী গণমাধ্যম বিজনেস ইনসাইডারে এ নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। তাতে ওই প্রতিবেদনকে অসমর্থিত আকারে উল্লখ করা হয়।গত বুধবার প্রকাশিত ‘খাঁচায় বন্দি কাশ্মীর’ শিরোনামের ওই প্রতিবেদনে আঞ্চলিক পুলিশ, সেনাবাহিনী ও আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যরা শতশত বাড়িতে মধ্যরাতে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে। ৫ আগস্ট কারফিউ ধরনের কড়া নিয়ন্ত্রণ আরোপের পর প্রতিদিনই কোনো না কোনে জায়গায় অভিযান চালানো হচ্ছে। ঘুমন্ত বিছানা থেকে স্কুলছাত্র ও কিশোরীদের তাদের পরিবার থেকে ছিনিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

অপরাধের ধরন উল্লেখ না করে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, কর্মকর্তারাও রাতের অভিযান চলাকালে নারী ও তরুণীদের ওপর নি’র্যাতন চালিয়েছেন। তবে ওই কর্মকর্তারা আঞ্চলিক সরকারের বাহিনীর নাকি ভারতীয় কেন্দ্রীয় কর্তৃপক্ষের তাও স্পষ্ট করে বলা হয়নি। তবে জম্মু ও কাশ্মীরে কর্মরত পুলিশ, আধা সামরিক বাহিনী ও সেনাবাহিনীর বেশিরভাগ অংশ ভারতীয় কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণে থেকে কাজ করে থাকে।স্থানীয় সাংবাদিক, শিক্ষার্থী ও দোকানিদের মধ্যে কয়েকশ সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেছেন গবেষকরা। অর্থনীতিবিদরা জানান, ৯ থেকে ১৩ আগস্ট পর্যন্ত নিরাপত্তার কথা ভেবে কেউ দ্রুত ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি। তুলে নিয়ে যাওয়া সন্তানের কথাও গবেষকদের বলতে চাননি ভুক্তভোগীদের পরিবারের সদস্যরা।

গ্রেপ্তার নির্যাতনের কোনো তথ্যপ্রমাণ প্রতিবেদনটিতে নেই। তবে ১১ বছর বয়সী বালক গবেষকদের জানান, ৫ থেকে ১১ আগস্ট পর্যন্ত সামরিক বাহিনীর হাতে আটক অবস্থায় নি’র্যাতন করা হয়। এ সময় আটক অবস্থায় ওই বালক তার সমবয়সী বা তার চেয়েও কম বয়সীদেরকেও দেখতে পেয়েছে। এ সময় বালকটির বাড়ি পশ্চিম কাশ্মীরের পাম্পুর শহরে।গত ৪ আগস্ট থেকে জম্মু ও কাশ্মীরকে কড়া নিরাপত্তায় ঢেকে ফেলা হয়। তার সপ্তাহ খানেক আগে থেকে মোট ৩৫ হাজার আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যকে মোতায়েন করা হয় সেখানে। এই পদক্ষেপে জল্পনা তৈরি হয়, তাহলে কি জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে কড়া সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে কেন্দ্র। প্রকাশ্যে সরকারিভাবে কোনো বিবৃতি না দেওয়া হলেও জঙ্গি আশঙ্কা করে হঠাৎ অমরনাথ যাত্রা বন্ধ করে দেওয়া হয়। পর্যটকদের ফেরত পাঠানো হয়।

এ উপলক্ষে সেখানে ইন্টারনেট ও মোবাইল নেটওয়ার্ক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় ভারত সরকার। দুইজন সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আব্দুল্লাহসহ কয়েকশ কাশ্মীরি নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।গত ৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করে অনুচ্ছেদ ৩৭০ এবং ৩৫-ক বিলোপে রাষ্ট্রপতির সিলমোহর এবং সংসদের উভয় কক্ষে অতি সহজেই তা পাস করিয়ে নেয় কেন্দ্রীয় সরকার।