বেড়ে গেলো আজকের আরব আমিরাতের রেট ! দেখে নিন এই মুহূর্তের রেট ?

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশে এ স্বাগতম ,আজ ১৭ মে ২০১৯ ইং, বাংলাদেশী সময় রাত ১১:২৫ প্রবাসী ভাইরা জেনে নিন এই মুহূর্তের আরব আমিরাতের দিরহাম এ বাংলাদেশি টাকায় কত ।

আজ ১৭ মে রাতের AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.20৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)
গত ১৫ মে AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.05৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে )
আজ ১৭ মে  রাতের 1 US ডলার = 84.40 ৳
গত  ১৫ মে  1 US ডলার = 83.90 ৳

প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি, যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা পেতে পারেন।আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন।টাকার রেট উঠানামা করে। দেশে টাকা পাঠানোর আগে ভালোভাবে রেট যাচাই করে নিন। হুন্ডি বা অবৈধ পথে টাকা পাঠাবেন না। তাতে আপনি যেমন উপকৃত হবেন, দেশ ও উপকৃত হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। অল বিডি সেভেন.কমএর সাথেই থাকুন!”।

আজ সন্ধ্যার পর পরই বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে ঝড়ে নিহত ৯ আহত বহু সংখ্যক !

হঠাৎ ঝড়-বৃষ্টিতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ৯ জনের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রাজধানীতে সন্ধ্যার তীব্র কালবৈশাখী ঝড়ে বায়তুল মোকারম মসজিদ প্রাঙ্গণের দক্ষিণ অংশে স্থাপিত অস্থায়ী তাঁবু ভেঙে পড়ে একজন নিহত এবং অন্তত ২০ থেকে ২২ জন আহত হয়েছেন।

পাশাপাশি রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় পার্কিংয়ের দেয়াল ধসে তিনজন নিহতের সংবাদ পাওয়া গেছে। এছাড়া রাজধানীর মোহাম্মদপুরে গাছচাপায় ২ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে।অপরদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ জেলায় ঝড়-বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের শ্রীরামপুর এলাকায় বজ্রপাতে দুইজন হলেন, সদর উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের মৃত হজরত আলীর ছেলে রেজাউল হোসেন (৪০) ও মোতালেব হোসেনের ছেলে মো. মুসা (৩৫)।
অপরদিকে নওগাঁর পোরশা উপজেলায় বজ্রপাতে নিহত দুইজন হলেন, উপজেলার নিতপুর ইউনিয়নের গানুইর গ্রামের আজাদ হোসেনের ছেলে শফিনুর রহমান বিষু (৩২) এবং জেলার শিবগঞ্জ থানার পিঠাইল গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে হাসান আলী (৩০)।

এসময় এ সময় আহত হয়েছেন হজরত আলী (৬০) নামের আরেকজন। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।এছাড়া রাজশাহীর বানেশ্বরে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুস সোবহান সরকার ঝড়ের কবলে পড়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝড়ের সময় তিনি বানেশ্বর বাজারের একটি মুড়ির মিলে ছিলেন। পরে ঝড় শুরু হলে একটি ইট এসে তার মাথার ওপর পড়ে।
এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে পুঠিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

ব্রেকিং নিউজ : আরব আমিরাতে দুবাইয়ে বিমান বিধ্বস্ত ,নিহত পাইলটসহ সকল যাত্রী !

দুবাইয়ে ডিএ৪২ মডেলের একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে তিন ব্রিটিশ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিকসহ পাইলট নিহত হয়েছেন। আরব আমিরাতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এমিরেটস নিউজ এজেন্সি এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিমানটি আন্তর্জাতিক হাব থেকে পাঁচ কিলোমিটার দক্ষিণে বিধ্বস্ত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৬ মে) যুক্তরাজ্যের নিবন্ধিত ডায়মন্ড এয়ারক্রাফটের একটি ছোট বিমান দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে বিধ্বস্ত হয়।
এমিরেটস নিউজ এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটি মিশনে অংশ নেয়া চার সিটের বিমানটির সব আরোহী নিহত হয়েছে। বিমানটিতে তিন ব্রিটিশ নাগরিক এবং দক্ষিণ আফ্রিকার এক নাগরিক ছিলেন।

বিধ্বস্ত বিমানটি ইংল্যান্ডের ওয়েস্ট সাসেক্সের শোরহাম বিমাবন্দরের ফ্লাইট ক্যালিব্রেশন পরিষেবাগুলির অন্তরর্ভুক্ত ছিল।
স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, বিমানটি প্রায় স্থানীয় সময় ১৯: ৩০ এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে পাইলট, সহ-পাইলট এবং দুই যাত্রী নিহত হয়েছে।
জেনারেল সিভিল এভিয়েশন অথরিটি (জিসিএএ) জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, কারিগরি ত্রুটির কারণে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে। এই দুর্ঘটনার পর পরই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়।

এছাড়া দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ৪৫মিনিট বদ্ধ ছিল। প্রসঙ্গত, দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত বিমান চলাচল কেন্দ্র।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুবাইয়ে একটি ছোট বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবর শুনে আমরা এমিরাত কর্তৃপক্ষের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি।

আরব আমিরাতে ঈদুলফিতর এর সরকারি ও বেসরকারি ছুটির দিন ঘোষণা করেছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারী মানব সম্পদ সংস্থার ফেডারেল অথরিটি সাদৃশ্য লক্ষ্যে সরকারি ও বেসরকারি উভয় খাতের জন্য ছুটি একত্রে সরকারের সিদ্ধান্তের পর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকারি ও বেসরকারি খাতের জন্য ছুটির তালিকা জারি করেছিল।

নতুন তালিকা অনুসারে, বাসিন্দারা ঈদ আল ফিতরের জন্য ছুটি পাঁচ দিন পর্যন্ত উপভোগ করতে পারে, কারণ তালিকাটি রমজান ২৯ থেকে শাওয়াল 3 পর্যন্ত ছুটির দিনগুলি নির্দিষ্ট করে, যার মানে রমজান ৩০ দিন থাকলে ছুটির সংখ্যা পাঁচ দিন হবে। আইএসিএডি ক্যালেন্ডারের মতে, ৪ জুন রমজান ৩০ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে (চাঁদ দেখার বিষয়ের উপর )।

আরব আমিরাতে পাবলিক ও প্রাইভেট সেক্টরের কর্মচারীরা ঈদ আল ফিতর ও ঈদ আল আজহা এর জন্য আরো সরকারী দিন উপভোগ করবেন। ইসরা অল মীরজ (রাজাব ২৭ ) এবং নবী মুহাম্মদ (সাঃ) এর জন্মদিন ( ১২ রবি আল আওয়াল ) এর জন্য প্রদত্ত ছুটি পাবেন না।

সরকারি ছুটির মোট সংখ্যা এই বছর 14 দিন ।

ইতালি যাওয়ার পথে নৌকা ডুবিতে শিবচরের জাকিরসহ মাদারীপুরের নিহত ৬, নিখোঁজদের বাড়িতে শোকের মাতম

লিবিয়া হয়ে ইতালি যাওয়ার পথে তিউনিসিয়ায় সাগরে নৌকাডুবির ঘটনায় নিহত সজিবের গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরে চলছে মাতম। এছাড়া নিখোঁজ মাদারীপুর, শিবচর ও রাজৈরের আরো ৫ যুবকের পরিবারেও চলছে কান্নার রোল।

স্বজনরা জানায়, বছর খানেক আগে অবৈধপথে লিবিয়া যায় মাদারীপুরের কয়েক যুবক। এরপর অবৈধভাবে সমুদ্র পথে লিবিয়া হয়ে ইতালি যাওয়ার সময় সোমবার রাতে তিউনিসিয়ায় সাগরে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এতে অনেক বাংলাদেশি নিহত ও নিখোঁজ হয়। এর মধ্যে মাদারীপুর সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউনিয়নের উত্তর শিরখাড়া এলাকায় আজিজ শিকদারের ছেলে সজিব হোসেন (২০) মারা যান।

নিখোঁজ থাকেন সদরের বল্লভদী এলাকার আদেল উদ্দিন মাতুব্বরের ছেলে মনির হোসেন মাতুব্বর (২১) ও শ্রীনদী এলাকার জোবায়ের মাতুব্বরের ছেলে নাদিম মাতুব্বর (১৬)। ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে তারা নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়াও একই ঘটনায় সদর উপজেলার মঠেরবাজার এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে সাইফুর ইসলাম (২৩) নিখোঁজ রয়েছেনে। নিখোজ রয়েছে মাদারীপুরের শিবচওে দত্তপাড়া ইউনিয়নের ৮নং চর গ্রামের সেকান্দার হাওলাদারের ছেলে জাকির হোসেন (২৮) । অপরজন আলম দস্তার গ্রামের জাফর সিকদারের ছেলে নাইম সিকদার(১৯)।

তাদের পরিবারে চলছে কান্নার রোল। দ্রুত নিহতের লাশ দেশে আনার পাশাপাশি নিখোঁজদের ফিরে পেতে সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন স্বজনরা। এছাড়া দালালদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
সজিবের বোন মিম আক্তার বলেন, ‘আমারে আফা কইয়া আর কে বোলাবো। আমার ভাইরে এক বছর রাইখা কেন বৃহস্পতিবার পাঠাইলি। আমি এহন কেমনে ভাইরে ভুইলা থাকমুরে। কোথায় গেলি সজিবরে।

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি মাদারীপুর শাখার যুব প্রধান শিশির হোসেন জানান, ‘‘তিউনিসিয়ার উপকূলের কাছে নৌকা ডুবির ঘটনায় এই পর্যন্ত মাদারীপুরের কয়েকজনের নাম জানা গেছে। সজিব নামে একজনের নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। আমরা নিহত ও নিখোঁজদের বাড়িতে গিয়ে তথ্য নিয়েছি।

ইসলাম হচ্ছে শ্রেষ্ঠ ধর্ম এবং সর্ব নিকৃষ্ট অনুসারী হচ্ছে মুসলমানরা !

ইসলাম হচ্ছে শ্রেষ্ঠ ধর্ম এবং মুসলমানরা হচ্ছে সর্ব নিকৃষ্ট অনুসারী।” ইসলামিক দেশগুলি কতখানি ইসলামিক এই নিয়ে গবেষণা করেন জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক হুসেন আসকারী।

ইসলাম ধর্মে রাষ্ট্র ও সমাজ চলার যে বিধান দেয়া হয়েছে তা যে দেশগুলি প্রতিদিনের জীবনে মেনে চলে তা খুঁজতে যেয়ে দেখা গেলো,– যারা সত্যিকার ভাবে ইসলামিক বিধানে চলে তারা কেউ বিশ্বাসী মুসলিম দেশ নয়।স্টাডিতে দেখা গেছে সবচেয়ে ইসলামিক বিধান মেনে চলা দেশ হচ্ছে নিউজিল্যান্ড এবং দ্বিতীয় অবস্থানে লুক্সেমবার্গ।

তারপর এসেছে পর্য্যায়ক্রমে আয়ারল্যান্ড, আইসল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, ডেনমার্ক ষষ্ঠ ও কানাডা সপ্তম অবস্থানে। মালয়েশিয়া ৩৮তম, কুয়েত ৪৮তম, বাহরাইন ৬৪তম, এবং অবাক করা কান্ড সৌদি আরব ১৩১তম অবস্থানে।গ্লোবাল ইকোনমি জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণায় বাংলাদেশের অবস্থান সৌদীদেরও নীচে। গবেষণায় দেখা গেছে, মুসলমানরা নামাজ, রোজা, সুন্নাহ, কোরআন, হাদিস,

হিজাব, দাড়ি, লেবাস নিয়ে অতি সতর্ক কিন্তু রাষ্ট্রীয়, সামাজিক ও পেশাগত জীবনে ইসলামের আইন মেনে চলেনা। মুসলমানরা পৃথিবীর সবার চেয়ে বেশি ধর্মীয় বয়ান,ওয়াজ নসিহত শোনে কিন্তু কোন মুসলিম দেশ পৃথিবীর সেরা রাষ্ট্র হতে পারেনি।অথচ গত ষাট বছরে মুসলমানরা অন্ততঃ ৩০০০ বার জুমার খুতবা শুনেছে। একজন চাইনিজ ব্যবসায়ী বলেছেন, মুসলমান ব্যবসায়ীরা আমাদের কাছে এসে দুই নম্বর নকল জিনিষ বানানোর অর্ডার দিয়ে বলে, অমুক বিখ্যাত কোম্পানির লেভেল লাগাবেন।

পরে যখন তাদেরকে বলি আমাদের সাথে খানা খান, তখন তাঁরা বলেন, হালাল না, তাই খবোনা। তাহলে নকল মাল বিক্রি করা কি হালাল?ইসলামের দুটি অংশ, একটি হচ্ছে বিশ্বাসের প্রকাশ্য ঘোষণা যাকে ‘ঈমান’ বলা হয়, আর একটি হচ্ছে বিশ্বাসের অন্তর্গত বিষয় যাকে ‘এহসান’ বলা হয়,– যা ন্যায়গতভাবে সঠিক সামাজিক নিয়ম কানুন মেনে চলার মাধ্যমে বাস্তবায়ন হয়। দুটোকে একত্রে প্র্যাকটিস না করলে ইসলাম অসম্পূর্ন থেকে যায় যা প্রতিটি নামের মুসলমান দেশে হচ্ছে।

ধর্মীয় বিধি নিষেধ মানা যার যার ব্যক্তিগত দায়িত্বের মধ্যে পড়ে এবং এটি আল্লাহ ও বান্দার মধ্যকার বিষয়।
কিন্তু সামাজিক বিধি নিষেধ মেনে চলা একজন বান্দার সাথে অন্য বান্দার মধ্যকার বিষয়। অন্য কথায় ইসলামিক নীতিমালা যদি মুসলমানরা নিজেদের জীবনে ব্যবহারিক প্রয়োগ না করে, মুসলিম সমাজ দুর্নীতিতে ছেয়ে যাবে এবং আমাদের ভবিষ্যৎ হবে অসম্মানজনক। বার্নার্ড’ শ একবার বলেছিলেন, “ইসলাম হচ্ছে শ্রেষ্ঠ ধর্ম এবং মুসলমানরা হচ্ছে সর্ব নিকৃষ্ট অনুসারী।”

একজন জাপানি নব্য মুসলিম বলেছেন, আমি পশ্চিমা দেশগুলিতে অমুসলিমদের ইসলামের বিধান পালন করতে দেখি, আর পূর্বের দেশগুলিতে ইসলাম দেখি কিন্তু কোন মুসলিম দেখিনা।আলহামদুলিল্লাহ, আমি আগেই ইসলাম এবং মুসলমানদের পার্থক্য বুঝেই আল্লাহর ধর্ম গ্রহন করেছি। ইসলাম ধর্ম শুধু নামাজ রোজা নয়, এটি একটি জীবন বিধান এবং অন্যের সাথে মোয়ামালাত আর মোয়াশারাতের বিষয়। একজন নামাজ রোজা পড়া আর কপালে দাগওয়ালা মানুষও আল্লাহর চোখে একজন মোনাফেক হতে পারে।

নবী(স) বলেছেন, “আসল সর্বহারা আর রিক্ত মানুষ হচ্ছে তারা,

যারা কেয়ামতের দিন রোজা, নামাজ, অনেক হজ্জ্ব, দান খয়রাত নিয়ে হাজির হবে কিন্তু দুর্নীতি করে সম্পদ দখল, অন্যদের হক না দেয়া, মানুষের উপর অত্যাচারের কারণে রিক্ত হস্তে জাহান্নামে যাবে।”

বরিশালে রোজা রাখা অবস্থায় ৭ বছরের শিশু ধর্ষণ করেছে মাদরাসা শিক্ষক !

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়নের খাটিয়ালপাড়া নুরানী মাদরাসার প্রথম শ্রেণির এক শিশু শিক্ষার্থীকে (৭) রোজা রাখা অবস্থায় ধর্ষণ করেছে এক শিক্ষক। এ ঘটনায় মাদরাসার শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম মুসাকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার ( ১৩ মে) দুপুরে ওই মাদরাসা শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
এর আগে সোমবার সকালে মাদরাসা শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম মুসার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে উজিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন ধর্ষণের শিকার শিশুর বাবা।
গ্রেফতারকৃত মাদরাসা শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম মুসা উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের মাদার্শী গ্রামের মৃত এসকান্দার সরদারের ছেলে।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, উজিরপুর উপজেলার বড়াকোঠা ইউনিয়নের খাটিয়ালপাড়া নুরানী মাদরাসার শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম প্রায়ই মাদরাসার প্রথম শ্রেণির ওই শিক্ষার্থীসহ অন্যান্য ছাত্রীদের শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে যৌন হয়রানি করতো। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ওই শিক্ষার্থী মাদরাসায় গেলে একটি খালি কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করে শিক্ষক জাহাঙ্গীর।

পরবর্তীতে ওই শিক্ষার্থী আহত অবস্থায় বাড়িতে গিয়ে মা-বাবার কাছে বিষয়টি জানায়। পরে ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। মামলার পরই অভিযুক্ত শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম মুসাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।তবে অভিযুক্ত শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম তার বিরুদ্ধে ওঠা ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে জানায়, আমার বিরুদ্ধে ওঠা এসব অভিযোগ মিথ্যা। আমাকে ফাঁসানো হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উজিরপুর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল বলেন, মামলা দায়েরের পরই অভিযুক্ত শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আরব আমিরাতে ধর্ষিত হয়ে আদালতে ১৩ বছরের পাকিস্তানি মেয়ে !

১৩ বছর বয়সী একজন পাকিস্তানী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে 17 বছর বয়সী এমিরাতী ছাত্রকে প্রথম ইনস্ট্যান্সের দুবাই কোর্টে তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

অপর একজন ১৮ বছর বয়সী এমিরতী ছাত্র ও জড়িত ছিল যৌন নির্যাতনের অভিযোগেও অভিযুক্ত করা হয় ।মেয়েটি তদন্তকারীকে জানান যে উভয় যুবকই তার সাথে যৌন সম্পর্ক করেছে।এই বছরের 10 জানুয়ারি মাসে আল বারশা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করা হয়।

পুলিশ সংস্থা বলেছে যে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য 17 বছর বয়সী অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আনা হলে তিনি “স্বীকার করেছিলেন যে মেয়েটির সাথে তার সহানুভূতিশীল যৌনতা ছিল এবং তিনি দাবি করেছিলেন যে এটি শুধুমাত্র একবার এমনটা ঘটেছে”।

ফোরেন্সিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ১৩ বছরের মেয়েটির কাছ থেকে নেওয়া ডিএনএ টেস্ট ওই দুই যুবকের কারো সাথে মেলেনি। একজন অজানা পুরুষের ছিল। বিচার কায্য স্থগিত করা হয় যা আগামী ২১মে ওই দুই ছাত্রের বিরুদ্ধে করা অভিযোগের শুনানি দেওয়া হবে। সূত্র : খালিজ টাইমস

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে সৌদি আরবের দুটি তেলবাহী জাহাজে ভয়াবহ হামলা

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে সৌদি আরবের দুটি তেলবাহী জাহাজে ‘ধ্বংসাত্মক হামলা’ হয়েছে বলে স্বীকার করা হয়েছে। রোববার ভোরের দিকে ওই হামলার পর আমিরাতের কিছু গণমাধ্যমে খবর আসার পর তাৎক্ষণিকভাবে হামলার খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেয় আমিরাত।

একদিন পর সোমবার সৌদি আরবের জ্বালানিবিষয়ক মন্ত্রী বলেছেন, আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে সৌদি আরবের দু’টি তেলবাহী জাহাজ শত্রুর হামলার শিকার হয়েছে।

দেশটির জ্বালানিবিষয়ক মন্ত্রী খালিদ আল ফালিহ’র বরাত দিয়ে সৌদির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি (এসপিএ) বলছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সৌদি আরবের দু’টি তেলবাহী জাহাজে শত্রুরা হামলা করেছে। আরব উপসাগরের পথে যাওয়ার সময় ওই হামলা হয়।

রোববার এক বিবৃতিতে আরব আমিরাত ওই হামলার খবরকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করলেও পরে জানায়, ফুজাইরাহ বন্দরের কাছে চারটি বাণিজ্যিক জাহাজে শত্রুর হামলা হয়েছে। বিশ্বে জ্বালানি তেল পরিবহনে অন্যতম বৃহৎ একটি অঞ্চল হলো হরমুজ প্রণালীর কাছে অবস্থিত আমিরাতের এই বন্দর।

বিশ্বের তেল ও গ্যাসবাহী জাহাজ চলাচলের ব্যস্ততম এই প্রণালী উপসাগরীয় দেশগুলো এবং ইরানকে পৃথক করেছে। অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ও এই অঞ্চলে মার্কিন সেনাবাহিনীর উপস্থিতি নিয়ে ওয়াশিংটনের সঙ্গে তেহরানের বাকযুদ্ধ যখন চরমে চলছে, ঠিক সেই সময় হরমুজ প্রণালীর কাছে সৌদির তেলবাহী জাহাজে হামলার ঘটনা ঘটলো।

তবে হামলার ধরন এবং এর পেছনে কারা জড়িত থাকতে পারে সে ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি আমিরাত। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, হামলায় কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি এবং ফুজাইরা বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে।

মন্ত্রী খালিদ আল ফালিহ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ফুজাইরা বন্দরে অপরিশোধিত তেল নেয়ার সময় সৌদির দু’টি তেলবাহী জাহাজে হামলা হয়েছে। জাহাজ দু’টি যুক্তরাষ্ট্রে সৌদির রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি সৌদি আরামকোর গ্রাহকদের তেল সরবরাহ করার জন্য যাত্রা শুরু করেছিল।’

সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি বলছে, হামলায় কোনো ধরনের প্রাণহানি কিংবা সাগরে তেল ছড়িয়ে পড়েনি। তবে জাহাজ দু’টির কাঠামোতে উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে, আমিরাতের বন্দরে সৌদির তেলবাহী জাহাজে হামলার ঘটনাকে উদ্বেগজনক এবং ভীতিকর বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র। এ ঘটনায় তদন্ত শুরুর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আরব আমিরাতের সমুদ্রবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, তেলবাহী ৭ জাহাজে আগুন !

আরব আমিরাতের আল-ফুজায়রা সমুদ্রবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। বলা হচ্ছে- বিস্ফোরণের পর সাতটি তেল ট্যাংকারে আগুন ধরে গেছে।

লেবাননের আল-মায়াদিন টেলিভিশনের বরাতে জানা যায়, আজ (রোববার) দিনের প্রথম ভাগে এ বিস্ফোরণ ঘটে। টেলিভিশন চ্যানেলটি কয়েক ঘণ্টা পর এ ঘটনার ওপর প্রতিবেদন করেছে।

আল-মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেল তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রোববার সংযুক্ত আরব আমিরাতের আল-ফুজায়রা
সমুদ্রবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে সাতটি তেলবাহী ট্যাংকার সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।ফায়ার সার্ভিসের লোকজন আগুন নেভানোর চেষ্টা করছিল। তবে কী কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা জানা যায়নি।

এদিকে এ ঘটনাকে আমেরিকা ইরানের ওপর সামরিক হামলার অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে পারে বলে ধারণ বিশ্লেষকদের।