সন্তানের বিয়ের উছিলায় হজ বিলম্ব করা যাবে না

হজ যে বছর ফরজ হয়, ওই বছরই আদায় করে নেয়া উচিত। অহেতুক কারণে বিলম্ব করা গুনাহ। একবার হজ ফরজ হলে তা আর কখনো মাফ হয় না। (আহসানুল ফাতাওয়া, খণ্ড: ৪, পৃষ্ঠা: ৫২৮)নিজের হজ আগে করতে হবে, পরে অন্যের হজ। মনে রাখতে হবে, আগে নিজের হজ আদায় করে পরে

মাতা-পিতার হজের চিন্তা।তবে সামর্থ থাকলে তাদের নিয়ে একসঙ্গে হজ করা যাবে। অন্যথায় আগে নিজের ফরজ আদায় করা উচিত। (রহিমিয়া, খণ্ড: ৮,
পৃষ্ঠা: ২৮২)অনেকে মনে করেন, আগে সন্তানের বিয়ে দিতে হয়। তারপর হজ আদায়। অথচ এ কথাশরিয়ত সমর্থিত নয়। ইসলামের দৃষ্টিতে সন্তানের বিয়েও খুবই জরুরি। তাই বলে সন্তানের বিয়ের জন্য হজে বিলম্ব করা যাবে না। (রহিমিয়া, খণ্ড: ৮, পৃষ্ঠা: ২৭৬)
সম্পাদনা : রাশিদ, ইমরুল