নিউজিল্যান্ডের মতো, নরওয়ের মসজিদে হা’মলা, জা’পটে ধ’রে প্রশংসায় ভা’সছেন ৭৫ বছর বয়সী রফিক !

নিউজিল্যান্ডের ক্রা’ইস্টচার্চের মতো নরওয়ের রাজধানী অসলোর উপকণ্ঠে আল নূর মসজিদে ২১ বছর বয়সী শ্বে’তাঙ্গ স’ন্ত্রা’সী ফিলিপ ম্যানশুয়াজ দুই হাতে অ’ত্যাধু’নিক অ’স্ত্র নিয়ে মুসল্লিদের উ’পর নি’র্বিচা’রে গু’লিব’র্ষণ শুরু করে।
এতে নামাজ পড়তে আসা ৭৫ বছর বয়সী এক মুসল্লি গু’লিবি’দ্ধ হয়ে গু’রুতর আ’হত হয়েছেন।

কিন্তু ঘটনা আরও ভ’য়াব’হ হওয়ার আগেই জী’বন বা’জি রেখে আরেক মুসল্লি তাকে জা’পটে ধ’রেন। খবর বিবিসির।
এ সময় ওই শ্বে’তাঙ্গ স’ন্ত্রা’সী তাকে জা’পটে ধ’রা মুসল্লি পাকিস্তান বিমান বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকের (৬৫) ডান চো’খে আ’ঙ্গুল ঢু’কিয়ে দেয়।কিন্তু তারপরও তিনি ওই স’ন্ত্রা’সীকে ছা’ড়েননি। আর এ কারণেই সেদিন ক্রা’ইস্টচার্চের মতো ব’ড় ধরণের হ’ত্যায’জ্ঞ থেকে র’ক্ষা পান মুসল্লিরা।

মুসল্লিদের জী’বন বাঁ’চিয়ে প্রশংসায় ভা’সছেন পাক বিমান বাহিনীর ওই কর্মকর্তা। তাকে বীর হিসেবে উল্লেখ করে দেশটির গণমাধ্যমগুলো। স্থানীয় কমিউনিটির লোকজনও তাকে বেশ সম্মানের চোখে দেখছেন।এ দিকে, ওই শ্বে’তাঙ্গ স’ন্ত্রা’সীর বি’রুদ্ধে স’ন্ত্রাসবাদের অ’ভিযোগ এনেছে দেশটির পুলিশ। একই সঙ্গে তার বি’রুদ্ধে সৎবোনকে হ’ত্যা ও মসজিদের মুসল্লিদের হ’ত্যাচে’ষ্টারও অ’ভিযোগ আনা হয় আদালতে।

গত সোমবার আদালতে আনা হলে আসামি ফিলিপ ম্যানশুয়াজের চোখ-মুখ আর গলায় আ’ঘা’তের চি’হ্ন দেখা যায়। ত’দন্তের স্বা’র্থে তাকে আরও জি’জ্ঞা’সাবাদ প্রয়োজন বলে পুলিশ আবেদন করলে তার আরও চার সপ্তাহ রি’মান্ড ম’ঞ্জুর করেন আদালত।উল্লেখ্য, গত শনিবার অসলোর বায়িরাম এলাকার আল নূর ইসলামিক সেন্টারে নিউজিল্যান্ডের ক্রা’ইস্টচার্চ মসজিদে হা’মলাকা’রীর মতো দুই হাতে অ’ত্যাধু’নিক অ’স্ত্র নিয়ে নরওয়ের নাগরিক শ্বে’তাঙ্গ স’ন্ত্রা’সী ফিলিপ ম্যানশুয়াজ এ’লোপা’তাড়ি গু’লিব’র্ষণ শুরু করে।

পরে পুলিশ এসে হাম’লাকা’রীকে আ’টক করেছে তার বাড়িতে অ’ভিযা’ন চালালে সেখানে তার ১৭ বছরের সৎবোনের প’ড়ে থাকা র’ক্তা’ক্ত লা’শ দেখতে পায়। পুলিশের ধারণা বোনকে হ’ত্যা করেই মসজিদে হা’মলা চালাতে যায় ওই হা’ম’লাকা’রী।মসজিদ কমিটির পরিচালক ইরফান মুসতাক স্থানীয় পত্রিকাকে বলেন, হে’লমেট ও ইউ’নিফর্মধারী শ্বে’তাঙ্গ স’ন্ত্রাসীর গু’লিতে এক মুসল্লি গু’লিবি’দ্ধ হয়ে গু’রু’তর আ’হ’ত হয়েছেন।