এবার মহাসড়কের পাশে ব্যাগ, ভেতরে নবজাতকের কান্না !

ঢাকার অদূরে গাজীপুরে পরিত্যক্ত অবস্থায় এক নবজাতককে উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, বুধবার (৫ জুন) রাতে মহানগরীর ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের পোড়াবাড়ি এলাকার মহাসড়কের পাশে একটি ব্যাগ থেকে শিশুর কান্না শুনতে পায় শফিকুল নামে একজন।

পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় শিশুটিকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে কোন সন্তানহীন দম্পতির কাছে নবজাতকটিকে হস্তান্তর করার কথা জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এরআগে পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার বাদশা বাড়ি নামক এলাকায় কাপড়ের তৈরি ব্যাগ থেকে একটি জীবিত নবজাতককে উদ্ধার করা হয়েছে।

ওই এলাকার স্থানীয় সোহরাব গাজী ও তার স্ত্রী নূরজাহান বেগম জীবিত নবজাতককে উদ্ধার করেছেন বলে জানা যায়।

ঈদের আগের দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার (৪ জুন) বাদশা বাড়ি এলাকার রশীদ মিরা বাড়ি সংলগ্ন রাস্তার পাশের গাছতলা থেকে নবজাতকটিকে উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে উদ্ধারকারী সোহরাব গাজী জানান, ঘটনার দিন সকাল বেলা খেতে কাজ করতে যাওয়ার সময় তারা গাছের তলায় থাকা একটি লাল রংয়ের ব্যাগের ভেতর বাচ্চার কান্নার শব্দ শুনে পান তিনি। পরে কাছে গিয়ে দেখতে পান ফেলে রাখা বাচ্চাটিকে পিঁপড়ায় জড়িয়ে ধরেছে।

তিনি আরও জানান, পিঁপড়ার কামড়ে নবজাতকটি কান্নাকাটি করছিল। পরে তাকে সেখান থেকে নবজাতকটি উদ্ধার করে বাড়িতে নেওয়া হয়।

দুমকি থানার ওসি মো: মনিরুজ্জামান জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন।