প্রেমের অধ্যায় শেষ করে আমরা বিয়েও করে ফেলেছি, বৌভাতের দাওয়াত রইল: পূজা চেরী

বাংলা চলচ্চিত্র জগতে কনিষ্ঠ অভিনেত্রী পূজা চেরী। শুরুটা বিজ্ঞাপন দিয়ে হলেও তিনি এখন বড় পর্দার পরিচিত মুখ। সিয়ামের বিপরীতে ‘পোড়ামন-টু’ ও ‘দহন’ চলচ্চিত্র দুটিতে অনবদ্য অভিনয় করে পেয়েছেন আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা। এবার সজলের সঙ্গে প্রথমবারের মত জুটি বাঁধছেন ‘জিন’ ছবিতে।

এর আগে সিয়ামের বিপরীতে অভিনয় করতে গিয়ে প্রেমে পড়েছেন বলেও গুজন শোনা গিয়েছিল। তবে এই গুঞ্জনের অবসানও করেছেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে এই নায়িকা বলেন, সিয়াম আমার ভালো বন্ধু। রঙিন পর্দায় সে আমার হিরো, বাস্তবে নয়। সবসময় খেয়াল রাখি, সিয়াম-পূজা জুটির রসায়ন দর্শক পর্দায় দেখতে চায়। সেভাবেই আমরা অভিনয় করে যাব।

তবে কার প্রেমে পড়েছেন বা প্রেম কি আসেইনি সে ব্যাপারে গণমাধ্যমে বলেন, প্রেম করছি তো! জিনের র‌্যাফের (সজল) সঙ্গে। চুটিয়ে প্রেম করছি এ হ্যান্ডসাম ফ্যাশন ফটোগ্রাফারের সঙ্গে …হা হা হা। মজার বিষয় হচ্ছে, প্রেমের অধ্যায় শেষ করে আমরা বিয়েও করে ফেলেছি। আর সিনেমা রিলিজের সময় বরযাত্রী হিসেবে দর্শক হলে যাবেন। আমার বৌভাত খাওয়ারও দাওয়াত রইল সবার; আসবেন কিন্তু।

উল্লেখ্য, ‘জিন’র মাধ্যমে ছোটপর্দার তারকা অভিনেতা আবদুন নূর সজল প্রায় তিন বছর পর নতুন ছবিতে কাজ করতে যাচ্ছেন। ছবিতে তার বিপরীতে দেখা যাবে চিত্রনায়িকা পূজা চেরীকে। ‘জিন’ ছবিটি পরিচালনা করবেন নাদের চৌধুরী। জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত এ ছবির মাধ্যমে রুপালী পর্দার দর্শকরা দেখতে পাবেন নতুন জুটির কেমিস্ট্রি!

পূজা চেরি
ছবিতে পূজার সঙ্গে সিয়াম থাকছেন, এমনটা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত ছবিতে দেখা যাবে সজলকে। এছাড়া ইয়াশ রোহানের নাম শোনা গেলেও সেখানে আসছেন রোশান, তার বিপরীতে পিয়া বিপাশা।

সালমান শাহ জন্মোৎসবে প্রধান অতিথি পলক, উদ্বোধক শাকিব !

সালমান শাহ নামটি নব্বই দশকের বাংলা চলচ্চিত্রের এক উজ্জ্বল ইতিহাসের নাম। ১৯ সেপ্টেম্বর এই নায়কের ৪৮তম জন্মদিন। এ উপলক্ষে ঢুলি কমিউনিকেশনস আয়োজন করতে যাচ্ছে সপ্তাহব্যাপী ‘সালমান শাহ জন্মোৎসব-২০১৯’।

ঐহিত্যবাহী মধুমিতা প্রেক্ষাগৃহে ২০ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর সাত দিনব্যাপী চলবে এ উৎসব। টিএম ফিল্মস নিবেদিত এই জমকালো আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। উৎসবের উদ্বোধন করবেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। ঢুলি কমিউনিকেশনসের পক্ষ থেকে আজ মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, উৎসবে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ফালগুনী হামিদ, গানবাংলা টিভি ও টিএম ফিল্মসের চেয়ারম্যান এবং সৌন্দর্যবিদ ফারজানা মুন্নী প্রমুখ।শাকিব মধুমিতা প্রেক্ষাগৃহে নন্দিত নায়ক সালমান শাহ অভিনীত ছয়টি ছবি প্রদর্শিত হবে। দৈনিক তিনটি করে শো চালানো হবে বলে জানিয়েছেন হল মালিক ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ।

উৎসবে বাছাই করা ছবিগুলো হলো- কেয়ামত থেকে কেয়ামত, তোমাকে চাই, মায়ের অধিকার, চাওয়া থেকে পাওয়া, স্বপ্নের পৃথিবী, অন্তরে অন্তরে ও সত্যের মৃ’*ত্যু’ নেই।

জোড়া লাগছে তাহসান-মিথিলার সংসার !

শোবিজের আদর্শ দম্পতি বলা হতো সংগীতশিল্পী তাহসান খান ও মডেল-অভিনেত্রী মিথিলাকে। ২০০৬ সালের ৬ আগস্ট বিয়ে করেন তারা। তারপর থেকে সুখে শান্তিতেই বসবাস করে আসছিলেন। তাদের সেই সংসারে এক কন্যা সন্তানও রয়েছে। নাম আইরা তাহরিম খান।সব দেখে বলা হতো তারকাদের ঠুনকো দাম্পত্য জীবনের বিপরীতে তাহসান-মিথিলা দারুণ উদাহরণ।

কিন্তু ভক্তদের মন খারাপ করিয়ে ২০১৭ সালের ২০ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন দুই তারকা।এর আগে তাহসান-মিথিলার মধ্যে দুরত্বের নানা গল্প শোনা গেলেও বিষয়টি নিশ্চিত হয় দুজনের ঘোষণার পর। সেদিন জানা যায়, ২০১৫ সাল থেকেই আলাদা বসবাস করছেন তারা। তবে দুজনে মধ্যে সম্পর্কটা বন্ধুত্বের বাঁধনে রয়ে গেছে।সেই সম্পর্কের জেরেই এবার দুজনে মেয়েকে নিয়ে একসঙ্গে ঘুরতে গেলেন দেশের বাইরে। আর এই খবরটি চাউর হতেই সেটি ভাইরাল।তাহসান-মিথিলার ভক্তরা যেন নতুন আশার দিশা খুঁজে পেলেন। অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখছেন, আবারও হয়তো দুই তারকার সংসার জোড়া লাগবে।

অনেকে অভিনন্দনও জানাচ্ছেন তাহসান-মিথিলাকে।আদতে তেমন কিছু হবে কি না সেটা বলা মুশকিল। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, শোবিজের এই প্রাক্তন দম্পতি একমাত্র মেয়ে আয়রাকে সময় দিতেই এক হয়েছেন। মেয়ে একসঙ্গে বাবা-মাকে পায় না অনেকদিন।এ নিয়ে তার মনে অনেক প্রশ্ন ও চাপা যাতনা। মেয়ের মনকে শান্ত করতে, বাবা মায়ের বিচ্ছেদ যেন মেয়েকে প্রভাবিত না করে সেজন্যই এক হলেন তাহসান-মিথিলা। পাড়ি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে। ঘুরে বেড়াচ্ছেন সুন্দর স্থানগুলোতে।

দুই তারকার ইনস্টাগ্রামে মিলেছে তারই প্রমাণ। তাহসান ও মিথিলা দুজন পৃথকভাবে মেয়ের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করেছেন।যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের মাধ্যমে মেয়ে আয়রার সূত্র ধরে আবারও সম্পর্কটাকে এক সূতোয় বেঁধে নেবেন তাহসান-মিথিলা এমন প্রত্যাশা করছেন তার ভক্তরা।

অবশেষে সালমানের দেওয়া সেই ৫৫ লাখের বাড়ি উপহার নিয়ে মুখ খুললেন রানু

কলকাতার রানাঘাট রেলস্টেশনের ভবঘুরে গায়িকা থেকে রাতারাতি অন্তর্জাল তারকা রানু মণ্ডল। মুম্বাইয়ে জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান রেকর্ডিং করে প্রচারের সব আলো তাঁর ওপর। প্রথাগত শিক্ষা ছাড়াই গান গেয়ে সেলিব্রেটি রানু। তাঁকে নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই জনমানসে।

কিংবদন্তি শিল্পী লতা মঙ্গেশকরের ‘এক পেয়ার কা নাগমা’ গেয়ে অন্তর্জালবাসীকে চমকে দেন রানু মণ্ডল।তাঁর গান শুনে মুগ্ধ হয়ে গায়ক, সংগীত পরিচালক, অভিনেতা হিমেশ রেশমিয়া তাঁকে নিজের সিনেমা ‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হীর’ ছবিতে গাওয়ার সুযোগ করে দেন। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো খবর, রানুর গানে মুগ্ধ হয়ে তাঁকে ৫৫ লাখ রুপি দামের একটি বাড়ি উপহার দিয়েছেন সালমান।তবে সেই খবর উড়িয়ে দিয়ে নবভারত টাইমসকে রানু বললেন, ‘না! যদি বাড়ি উপহার দেন, তবে সালমান খান এ নিয়ে প্রকাশ্যে ঘোষণা দিক।

আর সেটা না হলে, তিনি যেন বলেন, এটা তাঁর কোনো বন্ধু বা অন্য কাউকে দিচ্ছেন। কিন্তু আজতক এ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো ঘোষণা দেননি তিনি।’রানু আরো বলেন, ‘আমি কাউকে বলিনি সাহায্য করতে। আমি সালমান খানের কাছেও কোনো সাহায্য চাইব না। প্রথম যখন এই গুঞ্জন শুনি, তখন ভেবেছিলাম, এটা সত্য হতে পারে আবার নাও হতে পারে।এ-ও শুনেছিলাম, তিনি আমাকে লাল গাড়ি উপহার দিয়েছেন, আরো অনেক কিছুই শুনেছি। কিন্তু আমি সেদিনই ওই খবর বিশ্বাস করব, যেদিন সালমান আমার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করবেন।’

এ আগে অবশ্য সালমানের একটি বিশ্বস্ত দ্য সূত্র টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেছিল, ‘এই ধরনের সংবাদের কোনো সত্যতা নেই। সালমান ওই নারীর জন্য কোনো বাড়ি কেনেননি, এমনকি তাঁর গানের ব্যাপারেও কোনো আলাপ হয়নি।’রানাঘাটের রেলস্টেশনে গান গাওয়া রানু রীতিমতো অন্তর্জাল তারকা হয়ে উঠেছেন। ৫৮ বছর বয়সী এ গায়িকা এর আগে বলেছেন, আজীবন গান গেয়ে যাবেন। সূত্র : ডিএনএ

কখনো আশা ছাড়িনি, মানুষের ভালোবাসায় কৃতজ্ঞ : রানু !

কলকাতার রানাঘাট রেলস্টেশনের ভবঘুরে গায়িকা থেকে রাতারাতি অন্তর্জাল তারকা রানু মণ্ডল। মুম্বাইয়ে জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান রেকর্ডিং করে প্রচারের সব আলো তাঁর ওপর। প্রথাগত শিক্ষা ছাড়াই গান গেয়ে সেলিব্রেটি রানু। তাঁকে নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই জনমানসে।

কিংবদন্তি শিল্পী লতা মঙ্গেশকরের ‘এক পেয়ার কা নাগমা’ গেয়ে অন্তর্জালবাসীকে চমকে দেন রানু মণ্ডল। তাঁর গান শুনে মুগ্ধ হয়ে গায়ক, সংগীত পরিচালক, অভিনেতা হিমেশ রেশমিয়া তাঁকে নিজের সিনেমা ‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হীর’ ছবিতে গাওয়ার সুযোগ করে দেন। অবশেষে গতকাল মুক্তি পায় ‘তেরি মেরি কাহানি’ গানটি। মুক্তি পরই অন্তর্জালে ঝড় তুলেছে বহুল প্রতীক্ষিত এ গান।

হিন্দুস্তান টাইমস প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গতকাল গানটির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে রানু মণ্ডল বলেছেন, এই সুযোগ পেয়ে নিজেকে ধন্য মনে করছেন। গণমাধ্যমকর্মীদের রানু বলেন, ‘মানুষের ভালোবাসা পেয়ে আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ। তাঁদের ভালোবাসার জন্যই আমি গান গাওয়ার সুযোগ পেয়েছি। হিমেশজি আমাকে এই বড় সুযোগ করে দিয়েছেন, আমার কণ্ঠের ওপর আস্থা রেখেছেন,’ আমি খুবই কৃতজ্ঞ।‘ওই ভালোবাসা না পেলে আমি গান গাইতে পারতাম না। সৃষ্টিকর্তার ভালোবাসা পেয়েছি, এ জন্যই গান গাইতে পারছি,’ যোগ করেন রানু।

রানু ৫৮ বছর বয়সী এই গায়িকা বলেন, তিনি কখনো আশাহত হননি। ‘যখন গাইতাম, ভাবতেই পারিনি এমন দিন আসবে। কিন্তু নিজের কণ্ঠের প্রতি আস্থা ছিল। আমি লতাজির কণ্ঠ (লতা মঙ্গেশকর) দ্বারা অনুপ্রাণিত, সেই ছোট থেকে গাইছি। এমনকি ভবিষ্যতেও এভাবে গেয়ে যাব,’ বলেন রানু।রানু আরো বলেন, ‘আমি কখনোই আশা ছাড়িনি। হ্যাঁ, আমাকে এই জায়গায় এনে দিয়েছেন হিমেশজি, যা আমি ভাবতেও পারিনি। এর আগেও স্টেজে গেয়েছি, কিন্তু সেসব অনেক বছর হয়ে গেছে।’ রানু বলেন, সংগীতের সঙ্গে তাঁর বন্ধন কখনো ছুটে যাবে না।

মেয়ের বয়সি তৃতীয় স্ত্রী মান্যতাকে নিয়ে যা বললেন সঞ্জয় দত্ত !

বিতর্ক আর বলিউড তারকা সঞ্জয় দত্ত অনেকটা সমার্থক শব্দেই যেন পরিণত হয়েছিল একসময়। পর্দায় মেজাজি সঞ্জয়কে পর্দার বাইরেও রাগান্বিত অবস্থায় দেখা গেছে অনেকবার।রাখঢাক না রেখেই, মনের কথা বলে ফেলেন এমন তারকা খুঁজতে গেলে সঞ্জয়ের নাম শুরুর দিকেই থাকবে। তবে ইদানীং অনেকটাই শান্ত ‘মুন্না ভাই’খ্যাত সঞ্জয় দত্ত। বয়সও যে কম হলো না।

হিন্দুস্তান টাইমসের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে জানা যায়, তৃতীয় স্ত্রী মান্যতা দত্তের প্রতি বেশ সন্তুষ্ট সঞ্জয় দত্ত। নয় বছর বয়সী যমজ সন্তান শাহরান ও ইকরাকে নিয়ে বেশ ভালোই সময় কাটছে তাঁদের। আগামীতে সঞ্জয়-মান্যতার যৌথ প্রযোজনায় ‘প্রস্থনাম’ ছবিতে দেখা যাবে সঞ্জয়কে।সম্প্রতি মুম্বাই মিররকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কারাবাস পরবর্তী জীবন নিয়ে মুখ খোলেন সঞ্জয় দত্ত। সঞ্জয় বলেন, ‘মান্যতার মতো স্ত্রীকে পেয়ে আমি সৌভাগ্যবান। বাড়ি, স্বামী, সন্তান ও কাজের প্রতিই সব মনোযোগ তার।

ব্যবসা সম্পর্কেও তার গভীর অন্তর্দৃষ্টি রয়েছে, তাই আমি কখনোই তার ব্যবসায়ে হস্তক্ষেপ করি না। আমার বাবার মৃত্যুর পর মান্যতা আমাকে অনেক সাহায্য করেছে। সে কখনোই আমাকে ভেঙে পড়তে দেয়নি। আমাকে ধরে রাখতে সব সময়ই সে ছিল সচেষ্ট।’এ পর্যায়ে সঞ্জয়ের সঙ্গে যোগ দেন মান্যতা দত্ত। তিনি বলেন, ‘যাঁরা বলেন যে আমি সঞ্জয়ের আশ্রয়স্থল, তাঁদের আমি বলি যে সে (সঞ্জয়) আমার জন্য পাল, যার দ্বারা ঝড় থেকে আমি নিজেকে রক্ষা করি।

সে সব সময়ই আমিসহ সন্তানদের জন্য একটি শক্তি। এমনকি সে যখন ভেতরে থাকে, তখনো আমাদের জন্য চিন্তিত থাকে।’
আদালতে মামলার ব্যাপারে সঞ্জয়ের চিন্তিত থাকার ব্যাপার নিয়েও কথা বলেন মান্যতা। ‘সঞ্জয় একসময় বিরক্ত হয়ে পড়েছিল। আদালত যখন ঘোষণা করেন যে সঞ্জয় একজন সন্ত্রাসী নয় এবং তাকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন, তখন ওর বাবা বেঁচে ছিলেন না।এ মামলা ওর পরিবারের সুনামকে কলঙ্কিত করেছে, সঞ্জয়ও এতে কয়েক বছর বেশ বিরক্ত ছিল,’ বলেন মান্যতা।নিজেদের যমজ দুই সন্তান শাহরান ও ইকরার ব্যাপারেও কথা বলেন সঞ্জয়-মান্যতা। মান্যতা জানান, তাঁদের কন্যা ইকরা একজন শিল্পী।

তার আঁকা ছবি প্রতি বছরই বিদ্যালয়ের ম্যাগাজিনের জন্য নির্বাচিত হয়।তিনি ইকরার আঁকা ছবিগুলো নিয়ে শিগগিরই একটি প্রদর্শনী আয়োজনের পরিকল্পনা করছেন। মান্যতা আরো জানান, তাঁদের আরেক সন্তান শাহরান ক্রিকেট, ফুটবল তায়কোয়ান্দো খেলা পছন্দ করে।সঞ্জয় দত্তকে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল ‘কলঙ্ক’ সিনেমাতে। যদিও ছবিটি বক্স অফিসে ঝড় তুলতে ব্যর্থ হয়।

নতুন করে শাকিব খানের বি*রুদ্ধে অ*ভিযোগপত্র প্রেরণ

শুটিংয়ে অবহেলা, সময় না দেওয়া ও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করায় শাকিব খানের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছে চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া।‘একটু প্রেম দরকার’ ছবিকে ঘিরে এই নোটিশটি অভিযুক্ত শাকিব খান ছাড়াও অনুলিপি পাঠানো হয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়, সচিবালয় এবং প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব, বাংলাদেশে চলচ্চিত্র প্রযোজক, পরিবেশক, পরিচালক ও শিল্পী সমিতি বরাবরও এর অনুলিপি পাঠানো হয়েছে।
বাংলা ট্রিবিউনের হাতে আসা এ চিঠিতে শাপলা মিডিয়া উল্লেখ করে,

‘‘একটু প্রেম দরকার’ সিনেমাটিতে আপনাকে আপনার পারিশ্রমিক বাবদ ৬০ লাখ টাকা পরিশোধ সাপেক্ষ ২৬ জুলাই ২০১৮ তারিখে আপনি মহরতে অংশ নেন। এটি মুক্তির দেওয়ার কথা ছিল একই বছরের ১৫ ডিসেম্বর। কিন্তু আপনি নিয়মিত কল টাইমের ৪-৫ ঘণ্টা পরে আসতেন। কোনোদিন আসতেন না। আপনার এসকল কার্যকলাপের পরে ছবিটিতে অতিরিক্ত ১ কোটি টাকা খরচ বাড়ে। কিন্তু এখন পর্যন্ত ছবির ডাবিংয়ে আপনি অংশ নেননি।’’

অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়, এর মধ্যে শাকিব খান সেলিম এন্টারপ্রাইজের ‘শাহেন শাহ’, নিজের প্রযোজিত ‘পাসওয়ার্ড’ নির্মাণ ও মুক্তি, ‘বীর’-এর কাজ, ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’, ‘আগুন’-এর কাজ করলেও ‘একটু প্রেম দরকার’-এর কাজ শেষ করছেন না।
বিষয়টি নিয়ে শাপলা মিডিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে এর কর্ণধার সেলিম খান বলেন, ‘২-৩ দিন শিডিউল দিলেই ডাবিং শেষ হবে।

প্রায় দুইমাস শাকিবের কাছে ডেট চাওয়ার পরেও তিনি ডেট দিচ্ছেন না। বাধ্য হয়েই এই নোটিশ আমরা দিয়েছি।এদিকে এ ব্যাপারে শাকিব খানের নম্বরে ফোন দেওয়া হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। চিঠি প্রাপ্তির বিষয়টি চলচ্চিত্রের একাধিক সংগঠন নিশ্চিত করেছে।

মাত্র চার দিনে আয় ৪২ কোটি !

বক্স অফিসে ভালো আয় করছে ‘দঙ্গল’খ্যাত পরিচালক নীতেশ তিওয়ারির নতুন ছবি ‘ছিছোড়ে’। এই ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে রয়েছেন সুশান্ত সিং রাজপুত ও শ্রদ্ধা কাপুর। মুক্তির চার দিনেই চার অঙ্কে পৌঁছে গেছে ছবিটি।বক্স অফিস ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গতকাল সোমবার ‘ছিছোড়ে’ সংগ্রহ করেছে ৭.৫০ কোটি রুপি, যা প্রথম দিনের আয়ের তুলনায় বেশি।

প্রথম দিন এ ছবি সংগ্রহ করেছিল ৭.৩২ কোটি রুপি। ভারতের বক্স অফিসে গত শনিবার ও রোববার এ ছবি আয় করে যথাক্রমে ১২.২৫ কোটি ও ১৬.৪১ কোটি রুপি। সব মিলিয়ে চার দিনে সংগ্রহ দাঁড়াল ৪২.৫০ কোটি রুপি।সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘এম এস ধোনি : দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ প্রথম সপ্তাহে আয় করেছিল ৬৬ কোটি রুপি, এর চেয়ে অবশ্য কম আয় করল ‘ছিছোড়ে’। তবে সুশান্তর সর্বশেষ ছবি ‘কেদারনাথ’-এর চেয়ে বেশি আয় করেছে ‘ছিছোড়ে’। প্রথম সপ্তাহান্তে ‘কেদারনাথ’ সংগ্রহ করেছিল ২৭.৭৫ কোটি রুপি।

আন্তর্জাতিক বক্স অফিসেও ভালো সংগ্রহ করছে ‘ছিছোড়ে’। বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদর্শ টুইটারে জানিয়েছে, প্রথম সপ্তাহে এ ছবি বিভিন্ন দেশের বক্স অফিসে সংগ্রহ করেছে ১০.৩৯ কোটি রুপি।অনেক বছর পর কলেজ বন্ধুদের পুনর্মিলন ও পুরোনো স্মৃতিচারণের ঘটনা নিয়ে নির্মিত ‘ছিছোড়ে’। এতে সুশান্ত-শ্রদ্ধা ছাড়াও অভিনয় করেছেন বরুণ শর্মা, তাহির রাজ ভাসিন, প্রতীক বাবর, নবীন পলিশেঠি ও তুষার পান্ডে।‘সাহো’ মুক্তির এক সপ্তাহ পর মুক্তি পায় শ্রদ্ধা কাপুরের ‘ছিছোড়ে’, ওই ছবিতে তিনি ‘বাহুবলি’ তারকা প্রভাসের বিপরীতে অভিনয় করেছেন।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, গতকাল সোমবার ‘সাহো’ সংগ্রহ করেছে ২.৫০ কোটি রুপি। শুধু ভারতের বক্স অফিসে প্রথম সপ্তাহে এ ছবি আয় করেছে ১১৬ কোটি রুপি ও দ্বিতীয় সপ্তাহে আয় ১৪.৯৫ কোটি রুপি। সব মিলিয়ে ‘সাহো’র সংগ্রহ ১৩২.৫০ কোটি রুপি।

বলিউড ভাইজান সালমানের সঙ্গে আসলে কীসের সম্পর্ক! খোলসা করলেন ক্যাটরিনা নিজেই

আজব প্রেম কি গজব কাহানি’-র শুটিংয়ের সময় সালমান খানের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ওই সময় রণবীর কাপুরের সঙ্গে সম্পর্কের জেরেই সালমান খান-কে জীবন থেকে ব্রাত্য করে দেন ক্যাটরিনা।যদিও রণবীরের সঙ্গে প্রায় ৬ বছর লিভ ইন করার পর তাঁর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় ক্যাটের। রণবীর কাপুরের জীবন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর ফের সালমান খানের ছত্রছায়ায় ফিরে আসেন ক্যাটরিনা। যা নিয়ে বি টাউনে জোর চর্চা শুরু হয়ে যায়।

সালমানের সঙ্গে কেমন সম্পর্ক তাঁর, এবার বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন ক্যাটরিনা। তিনি বলেন, তাঁর সারা জীবনের বন্ধু হলেন সালমান। তাই তার সঙ্গে রসায়ন একেবারে অন্যরকম বলেও জানান ক্যাটরিনা।

প্রসঙ্গত সালমান খানের মা সালমা খান, বোন আলভিরা খান, অর্পিতা খান শর্মাদের সঙ্গে ক্যাটরিনা কাইফের বেশ ভাল সম্পর্ক। যা একবার নয়, বার বার উঠে এসেছে ক্যামেরার ফ্ল্যাশে। এমনকী, অর্পিতা খান শর্মার বাড়ির গণেশ পূজায় আলভিরা খানের সঙ্গে বাপ্পার আরতি করতেও দেখা যায় ক্যাটরিনাকে।

এন্ড্রু কিশোরকে চিকিৎসার জন্য ১০ লাখ টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোরকে চিকিৎসার জন্য ১০ লাখ টাকা সাহায্য দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।সংবাদ সংস্থা ইউএনবি জানায়, রোববার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এন্ড্রু কিশোরের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।অনুদানের চেক পেয়ে কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর উপ–প্রেসসচিব আশরাফুল আলম খোকন প্রথম আলোকে এ তথ্য জানান। আশরাফুল আলম বলেন, রোববার সন্ধ্যায় শিল্পী এন্ড্রু কিশোর তাঁর স্ত্রীসহ গণভবনে আসেন। প্রধানমন্ত্রী শিল্পীর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন।দেশের চলচ্চিত্রের গানে একটা বড় অধ্যায়জুড়ে এন্ড্রু কিশোরের নাম লেখা। তাঁর সবচেয়ে জনপ্রিয় গানের মধ্যে আছে—‘জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প’, ‘হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস’, ‘ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে’, ‘আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি’, ‘আমার বুকের মধ্যে খানে’, ‘আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন শুনেছিলাম গান’, ‘ভেঙেছে পিঞ্জর মেলেছে ডানা’, ‘সবাই তো ভালোবাসা চায়’ প্রভৃতি।

চলচ্চিত্রের গান গেয়ে আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন এন্ড্রু কিশোর। ১৯৭৭ সালে আলম খানের সুরে মেইল ট্রেন সিনেমার ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তাঁর কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে এন্ড্রু কিশোরের চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক যাত্রা শুরু হয়।