অদিতি আইনগতভাবে স্ত্রী না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা: অপূর্ব

লকডাউনের মধ্যে শোবিজ পাড়ায় ভাঙনের সুর। জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও তার স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতি তাদের ৯ বছরের সংসারের ইতি টেনেছেন সম্প্রতি। অপূর্বের স্ত্রী অদিতি বিচ্ছেদের বিষয়টি প্রকাশ্যে আনেন।

ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘অপূর্ব একজন আদর্শ বাবা, প্রেমময় ভাই, দায়িত্বশীল পুত্র এবং একজন ভালো মানুষ। তিনি মিলিয়ন ফ্যানদের কাছে একজন সুপার ট্যালেন্টেড ব্যক্তি, এটা তিনি নিজেই অর্জন করেছেন। আমার মনে হয়, তিনি সেখানেই সবচেয়ে যোগ্য। ফলে তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নয়, দয়া করে তার অসাধারণ কাজগুলো নিয়ে তাকে বিচার করুন।’ নিজেদের একসঙ্গে না থাকতে পারা প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, ‘তিনি আমাকে জীবনের সেরা উপহার দিয়েছেন, তা হলো আমার ছেলে আয়াশ। দুর্ভাগ্যক্রমে অসংখ্য কারণে একসঙ্গে থাকছি না আমরা। তবে আমি সবসময় তার সুখী ও সমৃদ্ধ জীবন কামনা করছি।’

অদিতি আরও বলেন, ‘দয়া করে বিয়ে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তের ওপর আমাদের কাউকে বিচার করবেন না। আপনারা সবাই আমাদের সুখে-দুঃখে সবসময় ভালোবেসেছেন, সমর্থন দিয়েছেন। আমরা আশা করি, তা অব্যাহত থাকবে।’

বিচ্ছেদের খবর নিয়ে এরইমধ্যে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গণমাধ্যমে। যা নিয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে বলেছেন অপূর্ব।

তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গসিপ করা এবং তীর্যক, মিথ্যা বানোয়াট মন্তব্য করে কষ্ট বাড়িয়ে দেওয়ার মতো খারাপ কাজ থেকে সবাই বিরত থাকবেন। এর মধ্যে রসালো কোনো গল্প তৈরি করে সংবাদ করার চেষ্টা করবেন না, প্লিজ।’

আরও পড়ুন: সমতার ভিত্তিতে সুলভ মূল্যে করোনার ওষুধ দিতে হবে: হু’কে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অপূর্ব আরও বলেন, ‘অত্যন্ত সম্মানের সঙ্গে জানাচ্ছি, আমি এবং আমার স্ত্রী অদিতি অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ সমাধানের মধ্য দিয়ে আমাদের সম্পর্কের আইনগতভাবে ইতি টেনেছি। কোনো সংবাদমাধ্যম এই ব্যাপারটাতে তৃতীয় কাউকে জড়িয়ে কোনো ধরনের ভুল সংবাদ প্রকাশ করলে আমি তাদের বিরুদ্ধে আইসিটি অ্যাক্টে আইনগত ব্যবস্থা নেবো। অলরেডি প্রকাশিত কিছু সংবাদের লিঙ্ক আমি সংগ্রহ করেছি। এখানে আরও উল্লেখ্য, আমি অদিতিকে সম্মান করি এবং আজীবন করবো। সুতরাং কোনোভাবেই অদিতিকে অসম্মান করে তার পাশে অন্য কারও নাম আমি সহ্য করবো না। ভুলে যাবেন না অদিতি আইনগতভাবে স্ত্রী না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা।’

ইত্তেফাক/আরআই

যে কারণে ভেঙে গেল অপূর্বর দ্বিতীয় সংসার |ডিভোর্সের কারন জানালনে অদিতি |

২০১০ সালের ১৯ আগস্ট অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারিতেই ডিভোর্স হয়ে যায় তাদের। ওই বছরের ১৪ জুলাই অপূর্ব পারিবারিক ভাবে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন। এরপর দীর্ঘ ৯ বছর সংসারের পরভেঙে গেছে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও নাজিয়া হাসান অদিতির সংসার। রোববার (১৭ মে) ফেসবুকের মাধ্যমে বিষয়টি সবাইকে জানিয়েছেন অদিতি।বিচ্ছেদ নিয়ে বেশ কয়েকবার অদিতির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে এই নিয়ে তেমন কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। তবে ফেসবুকে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে অপূর্বের সুখী জীবন কামনা করেছেন তিনি।

নাজিয়া হাসান অদিতির স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:-
মোহাম্মদ জিয়াউল ফারুক অপূর্ব একজন অসাধারণ বাবা, স্নেহশীল ভাই, দায়িত্বশীল পুত্র এবং একজন ভালো মানুষ। নিজের অসাধারণ মেধা দিয়ে তিনি লক্ষ লক্ষ ভক্ত তৈরি করেছেন। তিনি যেখানে থাকার যোগ্য, ঠিক সেখানেই রয়েছেন। ব্যক্তিগত জীবন দিয়ে নয়, দয়া করে তার অসাধারণ কাজগুলো দিয়ে তাকে বিচার করুন।দুর্ভাগ্যবশত আমরা এখন আর একসঙ্গে থাকছি না, এর অসংখ্য কারণ রয়েছে। তবে আমি তার জন্য সুখী ও সমৃদ্ধ জীবন

কামনা করছি। তিনি আমাকে আমার ছেলে আয়াশ এবং পরিবারের সদস্যদের অনেক ভালোবাসা দিয়েছেন। এটা আমার কাছে তার থেকে পাওয়া সেরা উপহার।দয়া করে এই সিদ্ধান্ত দিয়ে আমাদের বিচার করবেন না। আপনারা আমাদের সবসময় ভালোবেসেছেন এবং সমর্থন দিয়েছেন। আশা করছি আপনারা এই ধারা অব্যাহত রাখবেন।এছাড়া তাদের নিয়ে ভুয়া সংবাদ প্রকাশ না করার জন্যও অনুরোধ করেছেন অদিতি।

ব্রেকিং নিউজ:মা’রা গেলেন সালমান খানের ভাইপো

চলে গেলেন সালমানের ভাইপো আবদুল্লা খান। মাত্র ৩৮ বছর বয়সেই জীবন যু’দ্ধে পরাজিত হলেন মুম্বাইয়ের একজন জনপ্রিয় বডি বিল্ডার। ভাইপোর মৃ’ত্যুতে শো’ক প্রকাশ করেন সালমান। আবদুল্লার ছবি প্রকাশ করে তিনি জানান, ‘আমরা তোমাকে সব সময় ভালোবাসব’।

শ্বাসনালীতে সং’ক্রমণ নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতাল ভর্তি ছিলেন আবদুল্লাহ। সোমবার রাতে ওই হাসপাতালেই মৃ’ত্যু হয় তাঁর। এদিকে করোনা সং’ক্রমণ রুখতে প্রধানমন্ত্রী মোদির ডাকা ২১ দিনের লকডাউনে বর্তমানে পানভেলের বাগান বাড়িতে রয়েছেন সালমান খান। বাবা, মা, ভাই, বোনদের নিয়ে সেখানেই আপাতত রয়েছেন বলিউড ভাইজান। ফলে আবদুল্লার শেষকৃ’ত্যে সালমান হাজির হবেন কি না, সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানান যায়নি।

৩৮ বছরের আবদুল্লা খানের মৃ’ত্যুতে শো’ক প্রকাশ করেন সালমানের রোমানিয়ান বান্ধবী ইউলিয়া ভন্তুর। আবদুল্লার পুরনো স্মৃতি উসকে ইউলিয়া লেখেন, তাঁর কথা সব সময় মনে রাখবেন তিনি। জীবনের চলার পথে বাধা বিপত্তি টপকে কীভাবে এগিয়ে চলতে হয়, আবদুল্লাহর কাছ থেকে শিখেছিলেন তিনি। সালমানের ভাইপোর মৃ’ত্যুর খবরে শোক প্রকাশ করেন বলিউড অভিনেত্রী ডেইজি শাহও।

বলিউড ভাইজান খ্যাত সালমান খান ২৫ হাজার দিনমজুরের দায়িত্ব নিলেন

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। এ ভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। এর মধ্যে ভারতে করোনা মোকাবিলায় চলছে লকডাউন। এ অসময়ে রাষ্ট্রকে ভালোবেসে সরকারকে সহায়তা দিতে এগিয়ে আসছেন দেশটির অনেক তারকা। কেউ দিচ্ছন নগদ টাকা। কেউ আবার অন্য কোনো উপায়ে বড় কোনো ভূমিকা পালন করছেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

এমন দুঃসময়ে বলিউড ভাইজান খ্যাত সালমান খান নিলেন ২৫ হাজার দিনমজুরের দায়িত্ব। এ নায়ক সেচ্ছা গৃহবন্দী থেকেও নিজের পানভেলের ফার্ম হাউসে ‘রাধে’ ছবির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজে ব্যস্ত ছিলেন। পাশাপাশি গোটা পরিবারকেই নিয়ে গেছেন সেই নিরাপদ আস্তানায়। তবে এ কঠিন অবস্থাতেও সালমানকে ভাবিয়ে তুলেছে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির দিনমজুরদের পরিস্থিতি। তাই এ লকডাউনে প্রায় ২৫ হাজার দিনমজুরের দায়িত্ব একাই নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন বলিউডের ভাইজান।

২১ দিনের লকডাউনের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন সিনেমার জুনিয়র টেকনিশিয়ানরা। যারা কিনা সিনেমার সেটে দিনরাত খেটে পরিচালকের ভাবনাকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে সাহায্য করেন। আর তাই সে সব স্পটবয়, সেটের দিনমজুরদের সমস্যার কথা চিন্তা করে এগিয়ে এসেছেন সালমান খান। এ সুপারস্টারের মানবিক সংস্থা ‘বিইং হিউম্যান’ থেকে বিষয়টি দেখাশোনা করা হবে। দেশ স্বাভাবিক হওয়ার আগ পর্যন্ত ওইসব দিন এনে দিন খাওয়া লোকদের খাবার, স্বাস্থ্যসেবা দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

এতদিন পর মুখ খুললেন অভিনেত্রী চাঁদনী বিবাহ বি’চ্ছেদ নিয়ে

অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী মেহবুবা মাহনূর চাঁদনী। মূলত নাচের মানুষ তিনি। নাটক সিনেমায়
অভিনয় করেও নিজের জাত চিনিয়েছেন। ২০০৮ সালে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী বাপ্পা মজুমদারের সঙ্গে সংসার পাতেন চাঁদনী।২০১৮ সালের ৯ জানুয়ারি তাদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে। তারপর থেকে শোবিজে অনিয়মিত চাঁদনী।অন্যদিকে অভিনেত্রী-উপস্থাপিকা তানিয়া হোসাইনের সঙ্গে নতুন করে ঘর বেঁধেছেন বাপ্পা মজুমদার।গত বছরের শেষের দিকে এ দম্পতির ঘর আলো

করে জন্ম নিয়েছে এক কন্যা সন্তান। তবে চাঁদনী এখনো একা রয়েছেন।চাঁদনী বলেন, ‘প্রত্যেক মানুষের জীবনে কঠিন সময় আসে। সেগুলো অতিক্রম করে এগিয়ে যেতে হয়। সবাই জানেন, আমার জীবনেও তেমন কিছু সময় এসেছে। তবে আমি এখন স্বাধীন। নিজের মতো নিজেকে সময় দিচ্ছি।’বর্তমানে নাচ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাঁদনী। এ নৃত্যশিল্পী বলেন, ‘আগেও বলেছি নাচ আমার প্রথম ভালোবাসা, আমার ধ্যানজ্ঞান। তাই সবকিছুর আগে নাচ নিয়েই বেশি ভাবি।এখন বেশ কিছু নাচের অনুষ্ঠানে সময় দিচ্ছি। কিছুদিন আগে গাজীপুরে একটি শোতে পারফর্ম করেছি। পাশাপাশি আরো কিছু শোতে অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

এ ধরনের অ’পরা’ধীদের ওপেন প্লেসে মৃ’ত্যু’দ’ণ্ড দেয়া উচিৎ: অপু বিশ্বাস

গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে ধ’র্ষ’ণে’র শি’কার হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী।এ ঘটনায় অ’প’রাধীদের বিচার ও শাস্তির দাবিতে আ’ন্দো’লনে নেমেছে ঢাবি শিক্ষার্থীরা।পাশাপাশি ‍বিভিন্ন সংগঠনও ওই ঘটনার প্রতিবাদে আন্দোলনে সামি’ল হয়েছে। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানি’ছে নাগরিক সমাজ। এবার ঘটনার বিচার চেয়ে সো’চ্চার হলেন চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তিন নায়িকা।চিত্রনায়িকা আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী বলেন, ‘একটি

মেয়ে বাইরে বের হতে পারবে না, কাজে যেতে পারবে না, স্বা’ভাবিক অ’ধিকা’র থেকে বঞ্চি’ত হবে- এটা মেনে নেয়া যায় না। বাংলাদেশ বলে কথা নয়, কোনো দেশেই এমন হওয়া উচিৎ নয়। এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’মৌসুমী ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, ‘ধ’র্ষ’ক’দের অবশ্যই চি’ত’ করতে হবে। কারা এই নোংড়া কা’জগুলো করছে তাদের মু’খো’শ খুলে দিতে হবে। আমি মনে করি, এগুলো নিয়ে গবে’ষণা করা উচিৎ। কারণ ছেলে’গুলো কেন এমন কাজ করছে! এটা খু’নে’র চে’য়েও ভ’য়া’বহ অ’প’রাধ!’চিত্রনায়িকা পপি বলেন, ‘ধ’র্ষ’ক’দের কী করা উচিৎ সবা’ই জানে। আইন জানে, স’রকার জানে,

জ’নগ’ণও জানে।কিন্তু কেউ কিছু করছে না! কিছুই হচ্ছে না! কঠো’র না হলে আমরা কেউ সেইভ না। যে কোনো মেয়ে যে কোনো সময় হ্যা’রা’সমেন্টের শিকার হতে পারে। আমরা হা’ই রি’স্‌কে আছি।’পপি আরো বলেন, ‘আই’ন যত’ক্ষণ পর্যন্ত কঠোর না হবে, যতক্ষণ আইনের স’ঠিক প্রয়োগ না হবে ততক্ষ’ণ এই কাজ হতেই থাকবে। এক সময় এটাই নি’য়ম হয়ে যাবে!অ’প’রা’ধীর সাহস বেড়ে যাবে। এখনও তাই হচ্ছে। যখন কোনো অ’প’রাধী দেখে তার ‘স্তি হচ্ছে না, তখন সে একই অ’পরা’ধ বারবার করবে। সুতরাং কঠোর শা’স্তি’র বিকল্প নেই।’চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস বলেন, ‘এ
ধরনে’র অ’পরাধী’দের ওপেন প্লেসে মৃ’ত্যু’দ’ণ্ড দে’য়া উচিৎ। এত প্র’তিবাদ স’ত্ত্বেও কোনো প্রতিকার হচ্ছে না!’বিস্মিত কণ্ঠে অপু প্রশ্ন ছু’ড়ে দিয়ে

জানতে চান- কোনো মা, কোনো বোন, কোনো কন্যা ধ’র্ষি’তা হয়েছে- মানুষ হিসে’বে এর চেয়ে ল”র আর কী হ’তে পারে?অপু আরো বলেন, ‘এটা খুব দুঃখ’জনক। কিন্তু এর প্রতি’কার হতে হবে। ধ’র্ষ’ক’দের এমন কোনো ম’র্মান্তি’ক শা’স্তি দেয়া উ’চিৎ যা দেখে অন্যরা এই ধরনের জ’ঘ’ন্য কাজ
করতে সাহস পাবে না। ধ’র্ষ’ক’দের মনে ভ’য় জ’ন্মা’বে।’

জীবনে সুস্থ থাকতে চাইলে বিয়ে করুন অল্প বয়সে!

বিয়ে হল একটি সামাজিক বন্ধন বা বৈধ চুক্তি যার মাধ্যমে দু’জন মানুষের মধ্যে দাম্পত্য স’ম্পর্ক স্থাপিত হয়।বিবাহ এমন একটি প্রতিষ্ঠান যার মাধ্যমে দু’জন মানুষের মধ্যে ঘনিষ্ঠ ও যৌ’ন স’ম্পর্ক সামাজিক স্বীকৃতি লাভ করে।বিয়ে শুধু একটি সামাজিক বন্ধনই না। বিয়ে দুটি মানুষকে একত্রে বেধে ফেলে।

বিয়ের ফলে দুটি মানুষের মনের আদান প্রদান হয়। যার ফলে দুটি মানুষ তাদের চিন্তা চেতনাকে নিজেদের মধ্যে ভাগ করতে পারে।যার ফলে একাকিত্ব মনোভাব, হতাশা, ক্লান্তি সবই দূর করা সম্ভব। তাই সুস্থ থাকতে বিয়ে করা জরুরি।সম্প্রতি স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে এমন তথ্য। বিয়ে এবং সুস্থ্ এই দুই নিয়ে কি বলা হয়েছে তা জেনে নিন-রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা: বিয়ের ফলে স্বামী-স্ত্রী’’র মধ্যে নিয়মিত শারীরিক স’ম্পর্ক স্থাপিত হয়। যার ফলে দম্পতির শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।নারীর মূত্রাশয় নিয়ন্ত্রণ: স্বাভাবিক যৌ’নজীবন নারীর মূত্রাশয়ের মাংসপেশীকে

সক্রিয় রাখে।বিশেষ করে ‘অর্গাজমের’ সময় ‘পেলভিক ফ্লোরের’ মাংসপেশী সংকুচিত হয়, যা একটি ভালো ব্যায়ামও বটে। কারণ প্রায় ৩০ শতাংশ নারীর কোনো না কোনো সময় মূত্রাশয়ের ওপর নিয়ন্ত্রণ রাখা কঠিন হয়ে পড়ে।র’ক্তচাপ কমায়: নিয়মিত শা’রী’রিক স’ম্পর্ক স্থাপিত হলে র’ক্তচাপ কমে বলে মনে করেন গবেষক জোসেফ জে. পিনসন। গবেষণা বলছে, শারীরিক স’ম্পর্ক র’ক্তচাপ কমায়।ব্যায়াম: নিয়মিত শারীরিক স’ম্পর্কে প্রতি মিনিটে পাঁচ

ক্যালোরি খরচ হয়। গবেষকরা জানান,শারীরিক মিলনে দু’ধরনের উপকার পাওয়া যায়। এক. হৃদকম্পনে গতি আনে, দুই. একই সঙ্গে অনেক মাংসপেশীকে সক্রিয় করে।হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁ’কি: শা’রীরিক স’ম্পর্ক হৃৎপিণ্ডের জন্য উপকারি। হার্ট রেট ভালো রাখারপাশাপাশি ‘এস্ট্রোজেন’ এবং ‘টেস্টোস্টেরনের’ মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। গবেষকরা জানান, যারা সপ্তাহে অন্তত দু’দিন শারীরিক স’ম্পর্কে লিপ্ত হন তাদের হার্ট অ্যাটাকে মৃ’ত্যুর আশ’ঙ্কা কম।ব্যথা কমায়: ব্যথা কমাতে ‘অর্গাজম’ বেশি কার্যকর। অধ্যাপক বেরি আর. কমিসারুক জানান, অর্গাজম ব্যথা বন্ধ করতে পারে। কারণ এতে যে

হরমোন নিঃসৃত হয়, তা শরীরের ব্যথা প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।ঘুম: শা’রীরিক স’ম্পর্কের পর দ্রুত ঘুমাতে পারবেন। কারণ অর্গাজমের সময় যে হরমোন নিঃসৃত হয়, তা দেহকে শিথিল করে ঘুম ঘুম ভাব নিয়ে আসে।মানসিক চাপ: সঙ্গীর ঘনিষ্ঠতা মা’নসিক চাপ এবং উদ্বেগ কমাতে পারে। গবেষকরা জানান, সুস্থ জীবনের জন্য শারীরিক ঘনিষ্ঠতা অ’ত্যন্ত জরুরি।

আমিও চাই, আমার কোনো আপত্তি নেই : অপু বিশ্বাস

ঢাকাই ছবির সুপার হিট হিরোইন অপু বিশ্বাসের ক্যারিয়ারটা শুরু হয়েছিল ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবির মধ্য দিয়ে। পরের বছর এফআই মানিকের ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে প্রথমবার প্রধান নায়িকা হিসেবে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করে রাতারাতি ঢালিউড কুইন বনে যান

অপু।এরপর গত এক যুগেরও বেশি সময়ে অসংখ্য ব্যবসাসফল ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। হয়েছেন ভক্তদের হৃদয়ের রানি।তবে ঢালিউডের শীর্ষ এই নায়িকার জীবনের বাঁক বদল হয়েছে গেল ৪ বছরে। গোপনে বিয়ে, সন্তান, সংসার, বিতর্ক সব মিলিয়ে ক্যারিয়ার থেকে ছিটকে পড়েছিলেন তিনি। তাই বলে একেবারে যে ছিটকে যাননি প্রত্যাবর্তনের ইঙ্গিতে সেটিই বোঝা গেল।এমন জনপ্রিয় একজন নায়িকার এখন সময় কাটে কীভাবে, তিনি কি নতুন কোনো ছবিতে ফিরবেন? নাকি আর ফেরাই হবে না?এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘সংখ্যা নয়, এখন মানের দিকে মনোযোগ দিতে চাই।

সিনেমা থেকে সাময়িক দূরে আছি। তার মানে এই নয়- আর ছবি করবো না। আজকে দেশের মানুষ সিনেমার জন্যই অপু বিশ্বাসকে চেনে। আমি এখনও সিনেমার বাইরে এক মুহূর্ত নিজেকে ভাবতে পারি না।’পরিকল্পনার কথা জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি নিজেকে নতুন করে তৈরি করছি।নিজেকে গড়ছি। আর সেটি শুধুমাত্র সিনেমার জন্যই। ওজন কমাচ্ছি, নিয়মিত জিমে যাচ্ছি। নতুন করে সিনেমায় আসবো বলেই এসব করছি। অপেক্ষা করুন,

বিশেষ কিছু নিয়েই ফিরবো।’শাকিব খানের সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর নতুন করে সংসার শুরুর বিষয়ে অপু বিশ্বাস বলেন,ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সবার মতো ভাবনা আমারও আছে। তবে সময় সব বলে দেবে। আমি শুধু এটুকু বলতে পারি- নতুন করে সংসার শুরু করতে আমার দিক থেকে কোনো না নেই।
আমিও চাই, আমার কোনো আপত্তি নেই। সময় হলেই সব জানতে পারবেন।’

নায়িকা স্ত্রী মাহির সঙ্গে ডির্ভোস নিয়ে মুখ খুললেন অপু!

মিডিয়া পাড়ায় অনেকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে, ভালো নেই চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। সংসার জীবনের ইতি টানার পথেই হাঁটছেন অগ্নি’খ্যাত এই নায়িকা।
নতুন বছর মাহি উদযাপন করেছেন তার বন্ধুদের সঙ্গে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে সেই ছবিই প্রকাশ করেছেন তিনি। সেখানেও দেখা যায়নি

অপুকে।এদিকে, বছরের প্রথমদিন মাহির ফেসবুক পোস্ট ‘গুঞ্জনের আগুনে’ নতুন করে হাওয়া দিয়েছে। মাহি তার ফেসবুকে পোস্টে লিখেছেন- ‘১৯৯৩-২০১৯ পর্যন্ত আমার প্রথমrealisation। আমার জীবনে এখনো কোনো প্রথম ভালোবাসা/ সত্যিকারের ভালোবাসা আসেনি।’জানা গেছে, বেশ কয়েক মাস ধরে স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে তার বনিবনা হচ্ছে না। থাকছেন আলাদাও। এমনকি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতেও মাহির

পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায় না অপুকে। যদিও এ বিষয়ে মাস কয়েক আগে মুখ খুলেছিলেন মাহিয়া মাহি।ঘনিষ্টসূত্র থেকে আরও জানা যায়, মাহি এখন তার ফ্যাশন হাউজ ‘ভারা’ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আর অপু ব্যস্ত আছেন তার সিলেটের ব্যবসা নিয়ে।তবে এ বিষয়ে কথা বলেছেন অপু। তিনি বলেন, ‘আসলে এমন কিছুই না। গত পরশুদিন আমি ঢাকা থেকে সিলেটে এসেছি। আর এসব যা হচ্ছে, তা শুধুই গুঞ্জন। এর বাইরে আর কিছুই না।’

তবে সকল গুঞ্জনকে আড়ালে রেখে মাহিও মুখ খুললেন এবং বললেন ভালো আছেন দুজনে, এক সঙ্গেই রয়েছেন। আপনাদের উল্টা পাল্টা নিউজে সত্যিই মানুষ বিভ্রান্ত হয়, প্লিজ স্টপ ইট।

এবার বাংলাদেশের ‘জামাই’ হচ্ছেন কলকাতার নায়ক হিরণ, চিনে নিন পাত্রীকে

বাংলাদেশের ‘জামাই’ হচ্ছেন কলকাতার নায়ক ‎হিরণ চট্টোপাধ্যায়! শুনে অবাক হচ্ছেন তো। তেমনটাই খবর কিন্তু সিনেমা পাড়ায়। পাত্রী বাংলাদেশের অভিনেত্রী ঈশানি ঘোষ।ব্যাপারটা এবার খুলে বলা যাক। নেহাল দত্তর পরিচালনায় ‘জিও জামাই’ ছবির হাত ধরেই বাংলাদেশের অভিনেত্রী ঈশানির সঙ্গে

জুটি বাঁধতে চলেছেন হিরণ। সম্প্রতি ছবির ট্রেলার লঞ্চ হয়েছে শহরে। যেখানে অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন হিরণ, ঈশানি সহ ছবির সমস্ত কলা-কুশলীরা।তবে জামাই হওয়া হিরণের কাছে নতুন নয়। এর আগে ‘জামাই ৪২০’, ‘জামাই বদল’ছবিতেও জামাই হয়েছেন তিনি। ফের একবার জামাইয়ের ভূমিকাতে দেখা যাবে টলিউডের চকলেট বয়কে। তবে এবার সিনেমার নাম ‘জিও জামাই’। সেখানে জামাইয়ের ভূমিকাতেই অভিনয় করবেন হিরণ।ছবিতে রজতাভ দত্ত ও

তুলিকা বসুর জামাই হিসাবে দেখা যাবে হিরণকে। ছবিতে হিরণের নাম আদিত্য। তাঁর বিপরীতে দিয়ার ভূমিকায় অভিনয় করছেন ঈশানি ঘোষ। এছাড়াও ছবিতে অন্যান্য ভূমিকায় দেখা যাবে তুলিকা বসু, রজতাভ দত্ত সহ আরও অনেকে। পরিচালকের দাবি, একেবারে পারিবারিক সুন্দর ছবি হবে এটি। দেখে নিন পাত্রি ঈশানির কয়েকটি ছবি।