বেড়ে গেলো আজকের আরব আমিরাতের রেট ! দেখে নিন এই মুহূর্তের রেট ?

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশে এ স্বাগতম ,আজ ১৭ মে ২০১৯ ইং, বাংলাদেশী সময় রাত ১১:২৫ প্রবাসী ভাইরা জেনে নিন এই মুহূর্তের আরব আমিরাতের দিরহাম এ বাংলাদেশি টাকায় কত ।

আজ ১৭ মে রাতের AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.20৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)
গত ১৫ মে AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.05৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে )
আজ ১৭ মে  রাতের 1 US ডলার = 84.40 ৳
গত  ১৫ মে  1 US ডলার = 83.90 ৳

প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি, যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা পেতে পারেন।আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন।টাকার রেট উঠানামা করে। দেশে টাকা পাঠানোর আগে ভালোভাবে রেট যাচাই করে নিন। হুন্ডি বা অবৈধ পথে টাকা পাঠাবেন না। তাতে আপনি যেমন উপকৃত হবেন, দেশ ও উপকৃত হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। অল বিডি সেভেন.কমএর সাথেই থাকুন!”।

ব্রেকিং নিউজ : আরব আমিরাতে দুবাইয়ে বিমান বিধ্বস্ত ,নিহত পাইলটসহ সকল যাত্রী !

দুবাইয়ে ডিএ৪২ মডেলের একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে তিন ব্রিটিশ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিকসহ পাইলট নিহত হয়েছেন। আরব আমিরাতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এমিরেটস নিউজ এজেন্সি এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিমানটি আন্তর্জাতিক হাব থেকে পাঁচ কিলোমিটার দক্ষিণে বিধ্বস্ত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৬ মে) যুক্তরাজ্যের নিবন্ধিত ডায়মন্ড এয়ারক্রাফটের একটি ছোট বিমান দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে বিধ্বস্ত হয়।
এমিরেটস নিউজ এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটি মিশনে অংশ নেয়া চার সিটের বিমানটির সব আরোহী নিহত হয়েছে। বিমানটিতে তিন ব্রিটিশ নাগরিক এবং দক্ষিণ আফ্রিকার এক নাগরিক ছিলেন।

বিধ্বস্ত বিমানটি ইংল্যান্ডের ওয়েস্ট সাসেক্সের শোরহাম বিমাবন্দরের ফ্লাইট ক্যালিব্রেশন পরিষেবাগুলির অন্তরর্ভুক্ত ছিল।
স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, বিমানটি প্রায় স্থানীয় সময় ১৯: ৩০ এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে পাইলট, সহ-পাইলট এবং দুই যাত্রী নিহত হয়েছে।
জেনারেল সিভিল এভিয়েশন অথরিটি (জিসিএএ) জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, কারিগরি ত্রুটির কারণে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে। এই দুর্ঘটনার পর পরই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়।

এছাড়া দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ৪৫মিনিট বদ্ধ ছিল। প্রসঙ্গত, দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত বিমান চলাচল কেন্দ্র।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুবাইয়ে একটি ছোট বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবর শুনে আমরা এমিরাত কর্তৃপক্ষের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি।

আরব আমিরাতে ঈদুলফিতর এর সরকারি ও বেসরকারি ছুটির দিন ঘোষণা করেছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারী মানব সম্পদ সংস্থার ফেডারেল অথরিটি সাদৃশ্য লক্ষ্যে সরকারি ও বেসরকারি উভয় খাতের জন্য ছুটি একত্রে সরকারের সিদ্ধান্তের পর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকারি ও বেসরকারি খাতের জন্য ছুটির তালিকা জারি করেছিল।

নতুন তালিকা অনুসারে, বাসিন্দারা ঈদ আল ফিতরের জন্য ছুটি পাঁচ দিন পর্যন্ত উপভোগ করতে পারে, কারণ তালিকাটি রমজান ২৯ থেকে শাওয়াল 3 পর্যন্ত ছুটির দিনগুলি নির্দিষ্ট করে, যার মানে রমজান ৩০ দিন থাকলে ছুটির সংখ্যা পাঁচ দিন হবে। আইএসিএডি ক্যালেন্ডারের মতে, ৪ জুন রমজান ৩০ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে (চাঁদ দেখার বিষয়ের উপর )।

আরব আমিরাতে পাবলিক ও প্রাইভেট সেক্টরের কর্মচারীরা ঈদ আল ফিতর ও ঈদ আল আজহা এর জন্য আরো সরকারী দিন উপভোগ করবেন। ইসরা অল মীরজ (রাজাব ২৭ ) এবং নবী মুহাম্মদ (সাঃ) এর জন্মদিন ( ১২ রবি আল আওয়াল ) এর জন্য প্রদত্ত ছুটি পাবেন না।

সরকারি ছুটির মোট সংখ্যা এই বছর 14 দিন ।

আরব আমিরাতে ধর্ষিত হয়ে আদালতে ১৩ বছরের পাকিস্তানি মেয়ে !

১৩ বছর বয়সী একজন পাকিস্তানী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে 17 বছর বয়সী এমিরাতী ছাত্রকে প্রথম ইনস্ট্যান্সের দুবাই কোর্টে তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

অপর একজন ১৮ বছর বয়সী এমিরতী ছাত্র ও জড়িত ছিল যৌন নির্যাতনের অভিযোগেও অভিযুক্ত করা হয় ।মেয়েটি তদন্তকারীকে জানান যে উভয় যুবকই তার সাথে যৌন সম্পর্ক করেছে।এই বছরের 10 জানুয়ারি মাসে আল বারশা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করা হয়।

পুলিশ সংস্থা বলেছে যে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য 17 বছর বয়সী অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আনা হলে তিনি “স্বীকার করেছিলেন যে মেয়েটির সাথে তার সহানুভূতিশীল যৌনতা ছিল এবং তিনি দাবি করেছিলেন যে এটি শুধুমাত্র একবার এমনটা ঘটেছে”।

ফোরেন্সিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ১৩ বছরের মেয়েটির কাছ থেকে নেওয়া ডিএনএ টেস্ট ওই দুই যুবকের কারো সাথে মেলেনি। একজন অজানা পুরুষের ছিল। বিচার কায্য স্থগিত করা হয় যা আগামী ২১মে ওই দুই ছাত্রের বিরুদ্ধে করা অভিযোগের শুনানি দেওয়া হবে। সূত্র : খালিজ টাইমস

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে সৌদি আরবের দুটি তেলবাহী জাহাজে ভয়াবহ হামলা

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে সৌদি আরবের দুটি তেলবাহী জাহাজে ‘ধ্বংসাত্মক হামলা’ হয়েছে বলে স্বীকার করা হয়েছে। রোববার ভোরের দিকে ওই হামলার পর আমিরাতের কিছু গণমাধ্যমে খবর আসার পর তাৎক্ষণিকভাবে হামলার খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেয় আমিরাত।

একদিন পর সোমবার সৌদি আরবের জ্বালানিবিষয়ক মন্ত্রী বলেছেন, আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরে সৌদি আরবের দু’টি তেলবাহী জাহাজ শত্রুর হামলার শিকার হয়েছে।

দেশটির জ্বালানিবিষয়ক মন্ত্রী খালিদ আল ফালিহ’র বরাত দিয়ে সৌদির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি (এসপিএ) বলছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরা বন্দরের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সৌদি আরবের দু’টি তেলবাহী জাহাজে শত্রুরা হামলা করেছে। আরব উপসাগরের পথে যাওয়ার সময় ওই হামলা হয়।

রোববার এক বিবৃতিতে আরব আমিরাত ওই হামলার খবরকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করলেও পরে জানায়, ফুজাইরাহ বন্দরের কাছে চারটি বাণিজ্যিক জাহাজে শত্রুর হামলা হয়েছে। বিশ্বে জ্বালানি তেল পরিবহনে অন্যতম বৃহৎ একটি অঞ্চল হলো হরমুজ প্রণালীর কাছে অবস্থিত আমিরাতের এই বন্দর।

বিশ্বের তেল ও গ্যাসবাহী জাহাজ চলাচলের ব্যস্ততম এই প্রণালী উপসাগরীয় দেশগুলো এবং ইরানকে পৃথক করেছে। অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ও এই অঞ্চলে মার্কিন সেনাবাহিনীর উপস্থিতি নিয়ে ওয়াশিংটনের সঙ্গে তেহরানের বাকযুদ্ধ যখন চরমে চলছে, ঠিক সেই সময় হরমুজ প্রণালীর কাছে সৌদির তেলবাহী জাহাজে হামলার ঘটনা ঘটলো।

তবে হামলার ধরন এবং এর পেছনে কারা জড়িত থাকতে পারে সে ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি আমিরাত। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, হামলায় কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি এবং ফুজাইরা বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে।

মন্ত্রী খালিদ আল ফালিহ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ফুজাইরা বন্দরে অপরিশোধিত তেল নেয়ার সময় সৌদির দু’টি তেলবাহী জাহাজে হামলা হয়েছে। জাহাজ দু’টি যুক্তরাষ্ট্রে সৌদির রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি সৌদি আরামকোর গ্রাহকদের তেল সরবরাহ করার জন্য যাত্রা শুরু করেছিল।’

সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি বলছে, হামলায় কোনো ধরনের প্রাণহানি কিংবা সাগরে তেল ছড়িয়ে পড়েনি। তবে জাহাজ দু’টির কাঠামোতে উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে, আমিরাতের বন্দরে সৌদির তেলবাহী জাহাজে হামলার ঘটনাকে উদ্বেগজনক এবং ভীতিকর বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র। এ ঘটনায় তদন্ত শুরুর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আরব আমিরাতের সমুদ্রবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, তেলবাহী ৭ জাহাজে আগুন !

আরব আমিরাতের আল-ফুজায়রা সমুদ্রবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। বলা হচ্ছে- বিস্ফোরণের পর সাতটি তেল ট্যাংকারে আগুন ধরে গেছে।

লেবাননের আল-মায়াদিন টেলিভিশনের বরাতে জানা যায়, আজ (রোববার) দিনের প্রথম ভাগে এ বিস্ফোরণ ঘটে। টেলিভিশন চ্যানেলটি কয়েক ঘণ্টা পর এ ঘটনার ওপর প্রতিবেদন করেছে।

আল-মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেল তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রোববার সংযুক্ত আরব আমিরাতের আল-ফুজায়রা
সমুদ্রবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে সাতটি তেলবাহী ট্যাংকার সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।ফায়ার সার্ভিসের লোকজন আগুন নেভানোর চেষ্টা করছিল। তবে কী কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা জানা যায়নি।

এদিকে এ ঘটনাকে আমেরিকা ইরানের ওপর সামরিক হামলার অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে পারে বলে ধারণ বিশ্লেষকদের।

আবুধাবিতে গৃহকর্মী অবৈধ সম্পর্কের পর গর্ভবতী অতঃপর নিজের হাতে জন্ম দিয়ে হত্যা করলো নবজাতক।

আবুধাবি আদালতের একজন গৃহকর্মী তার নবজাতককে বাবার পরিচয় বলতে না পেরে খুন করেছে।ইথিওপিয়ান ঐনারী গৃহ কর্মীর ছেলে সন্তান জন্মের পর পর হত্যার অভিযোগে আবুধাবি ফৌজদারি আদালতের প্রথম সূত্রের বিচার কায্য শুরু করে।

কোর্টের নথিতে বলা হয়েছে যে আবুধাবিতে এক আরব পরিবারে কাজ করতো ওই মহিলা এক অবৈধ সম্পর্কের মাধ্যমে গর্ভবতী হয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে তিনি যার মাধ্যমে গর্ভবতী হয়েছে তাকে চেনা না তার সম্পর্কে কিছু জানেন না।

প্রসিকিউটররা বলেন, তার নিয়োগকর্তার বাড়ির কেউই গর্ভধারণ সম্পর্কে জানত না কারণ সে গোপন রেখেছিলো । গর্ভাবস্থা গোপন রেখে জন্মের পর পর শিশুটিকে হত্যা করার পরিকল্পনা করেছিল”।তিনি আরো বলেন যখন তিনি ব্যথা অনুভব করেন, তিনি একটি নিকটবর্তী পরিত্যক্ত বাড়িতে গিয়েছিলেন যেখানে তিনি নিজের নবজাককে নিজের হাতে জন্ম দিয়েছিলেন। তারপর তিনি একটি রান্নার ছুরি দিয়ে শিশুটিকে হত্যা করে।”

স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে আটক করে পুলিশকে জানালেন যে তার বাচ্চাকে হত্যা করেছে।
প্রসিকিউটররা তাকে একটি অবৈধ সম্পর্কের মাধ্যমে গর্ভবতী হওয়ার এবং শিশুকে হত্যা করার অভিযোগে অভিযুক্ত করেছে। আদালতে হাজির হলে স্ত্রী ইচ্ছাকৃতভাবে তার বাচ্চাকে হত্যা করে বলে স্বীকার করে ।

তার আইনজীবী যুক্তি দেন যে, মহিলাটি মানসিক সমস্যা থেকে ভুগছেন এবং জন্ম দেওয়ার পরে তার কর্ম সম্পর্কে সচেতন ছিলেন না। “গর্ভাবস্থায়, চিকিৎসার অভাব এবং তার স্পনসর দ্বারা ধরা পড়ার ভয়ের কারণে ব্যথা থেকে তাকে মানসিক সমস্যা হয়েছিল,” আইনজীবী আদালতকে এই অভিযোগ করেন ।

“সে যে খারাপ অবস্থার মধ্য দিয়ে গেছে তার মানুসিক সমস্যা প্রভাবিত করেছে এবং বিশেষ করে জন্ম দেওয়ার পরে তার কর্ম নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি তাই শিশুটিকে হত্যা করে ।”আইনজীবী আদালতকে তার ক্লায়েন্টের প্রতি বিনীত হতে বলেন।

যাইহোক, গৃহবধূর পরীক্ষা করার পর সর্বশেষ শুনানির সময় আদালতে উপস্থাপিত মানসিক প্রতিবেদনে দেখা গেছে যে মহিলা স্বাভাবিক এবং তার কর্ম সম্পর্কে সম্পূর্ণ সচেতন ছিল বলে বিবেচনা করা হয় । আদালত আরো প্রমান সংগ্রহের অপেক্ষায় আগামী
২9 মে পর্যন্ত বিচার স্থগিত করে ।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে দিনে ৮০০ জন মুসলিমকে ইফতারি করান খ্রিস্টান ব্যবসায়ী

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে মুসলিমদের জন্য একটি মসজিদ তৈরি করেছেন ভারতীয় এক খ্রিস্টান ব্যবসায়ী। শুধু তাই নয়, এই মসজিদের চলতি রমজান মাসের প্রত্যেকদিন প্রায় ৮০০ রোজাদারের ইফতারির ব্যবস্থা করেন তিনি।

৪৯ বছর বয়সী সাজি চেরিয়ান নামের ওই ব্যবসায়ী ভারতের কেরালার কায়ামকুলামের বাসিন্দা। গত বছর মুসলিম শ্রমিকদের জন্য ফুজাইরাহ শহরে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন তিনি।

শ্রমিকরা তাদের কষ্টার্জিত অর্থ খরচ করে ট্যাক্সিতে করে নিকটবর্তী মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করতেন। এটি দেখে যাতে দূরে গিয়ে শ্রমিকদের নামাজ আদায় করতে না হয়, সেজন্য তিনি মসজিদ তৈরির পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী, ফুজাইরাহ শহরে মরিয়ম উম ঈশা (আ.) নামে একটি মসজিদ তৈরি করেন তিনি।

গত ৭ মে থেকে পবিত্র রমজান শুরু হয়েছে। মাত্র কয়েকশ দিরহাম নিয়ে ২০০৩ সালে আরব আমিরাতে পাড়ি জমান চেরিয়ান। গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে এই ব্যবসায়ী তার ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ৮ শতাধিক কর্মী ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার ইফতার আয়োজন করেন। মসজিদের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে প্রত্যেকদিন তিনি মুসলিমদের ফ্রি ইফতারি করান।

তিনি বলেন, গত বছরের ১৭ রমজানে মসজিদটি মুসল্লিদের জন্য খুলে দেয়া হয়। আমি অবশিষ্ট রোজাগুলোতে মুসলিমদের ইফতারি সরবরাহ করতে সক্ষম হয়েছিলাম। তবে চলতি বছর থেকে আমি প্রত্যেকদিন ইফতারি সরবরাহ করছি।

ইফতারির খাবার তালিকায় থাকে, খেজুর, বিশুদ্ধ ফলমূল, স্ন্যাকস, জুস, পানি ও বিরিয়ানি। আমি বিভিন্ন ধরনের বিড়িয়ানি তৈরি করি; কারণ যাতে তারা প্রত্যেকদিন একই ধরনের খাবার খেয়ে বিরক্ত না হন।

৬৩ বছর বয়সী পাকিস্তানি প্রবাসী বাসচালক আব্দুল কাইয়ুম বুধবার চেরিয়ানের সেই মসজিদে ইফতারি করেছেন। তিনি ভারতীয় এই খ্রিস্টান ব্যবসায়ীর উদ্যোগের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, বিশ্বে তার মতো মানুষের দরকার।

যদি তার মতো কোনো মানুষ না থাকে, তাহলে বিশ্ব ধ্বংস হয়ে যাবে। আমরা তার জন্য প্রার্থনা করেছি। আল্লাহ তাকে আশীর্বাদ করবেন।

 

আরব আমিরাতের সকল কর্মকর্তাদের ইমিগ্র্যাশন বিশেষ সতর্ক বার্তা দিয়েছে।

বুধবার আরব আমিরাতের দূতাবাস তাদের নিয়োগকর্তাদের পেছনের বেতন পরিশোধের কোনো বিলম্ব থাকলে রিপোর্ট করতে নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

টুইটারে শেয়ার করা একটি পাবলিক নোটিশে, ভারতীয়রা দূতাবাস অফ ইন্ডিয়া, আবুধাবি অথবা দুবাইয়ে কনস্যুলেট জেনারেলকে এই ধরনের কোনও প্রতিবেদনের জন্য অনুরোধ করেছিল। ডুব্লিকেট ভিসা ও ভিসা জালিয়াতির ক্রমবর্ধমান ক্ষেত্রে, ইন্ডিয়ান দূতাবাস আরব আমিরাতে চাকরির খোঁজীদের ভিসা না দেওয়ার বিষয়ে সতর্ক করে।

তারা আরব আমিরাতে পৌঁছানোর আগে তাদের কর্মসংস্থান অফার এবং পারমিট অনুমোদন করতে হবে, এটা নির্দিষ্ট।অনেকেই ভারতীয় প্রতারণামূলক নিয়োগ এজেন্টদের শিকার হয়েছে।দূতাবাসের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তথ্য অনুযায়ী, রাজস্থানের পালি থেকে বিক্রম কুমারকে মুম্বাইয়ের একটি অবৈধ এজেন্ট দ্বারা প্রতারিত করা হয়েছিল।

তিনি বলেন, তিনি এজেন্টকে 55,000 রুপি (প্রায় ২৮০০ দিরহাম ) প্রদান করেছিলেন এবং ভিসায় মুম্বাই থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভ্রমণ করেছিলেন। পরে তাকে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়েছিল। অন্য একটি ঘটনায়, অন্ধ্রপ্রদেশের কৃষ্ণ জেলার আঞ্জালি কারু একটি অবৈধ এজেন্ট আটকা পড়ে । তিনি একটি ইসিআর পাসপোর্ট ধারণ করে বলেন, অবৈধ এজেন্ট ইমিগ্রেশন অফিসারকে বিভ্রান্ত করেছিল ।

একইভাবে, রিজওয়ান আহমদ ও পারভেজ হাশিমী লখনৌতে অবৈধ এজেন্টের দ্বারা আটকা পড়ে অবৈধ ভিসায় সংযুক্ত আরব আমিরাতে এসেছিলেন। উভয়ই ইসিআর পাসপোর্ট ধারক। তারা দিল্লী বিমানবন্দর থেকে শারজাহ পর্যন্ত ভ্রমণ করেছিল।তাদের নিরাপদে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহ আওয়ামী লীগের দ্বি- বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি আধুনিক রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখেছিলেন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে দেশ বিদেশের আওয়ামী কমৃীদের শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করতে হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহ আওয়ামী লীগের দ্বি বার্ষিক সম্মেলনে একথা বলেছেন সুনামগঞ্জ ৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক। প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে দূর্বার গতিতে। এই এগিয়ে যাবার গল্পে প্রবাসিদের ভূমিকা সবচে’ বেশি।

বুধবার দুপুরে শারজাহের একটি হোটেলে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন শারজাহ আওয়ামী লীগের আহবাহক বচন মিয়া তালুকদার। মইনুল হোসাইনের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন দুবাই আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী শফিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠান বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব ফরিদ মাহমুদ। বক্তারা বলেন, মরুর বুকে লাল সবুজের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে বাংলাদেশ আওয়ামী রীগের নেতাকর্মীরা অতীতের মতো ভূমিকা রাখবেন।

এ সময় প্রধান অতিথি মুহিবুর রহমান মানকি এমপি আব্দুল আওয়ালকে সভাপতি, আনোয়ার হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬১ বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেন।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন সেলিম চৌধুরী, সাবেক সি আ্ইপি আশিক মিয়া, আজাদ লালন, আব্দুল লতিফ, আবুল কাশেম সহ অনেকে।

এ সময় এমপির সাথে আসা বাংলাদেশের নানা অঞ্চলের ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদেরকে সংগঠনের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করা হয়।