এখন আবার বেড়ে গেছে আরব আমিরাতের রেট ! দেখে নিন এই মুহূর্তের রেট ?

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশে এ স্বাগতম ,আজ ১৮ জুন ২০১৯ ইং, বাংলাদেশী সময় রাত ১১:১১ প্রবাসী ভাইরা জেনে নিন এই মুহূর্তের আরব আমিরাতের দিরহাম এ বাংলাদেশি টাকায় কত ।

আজ ১৮ জুন রাতের AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.20৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)
গত ১৭ জুন  AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.05৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে )
আজ ১৮  জুন  রাতের 1 US ডলার = 84.50 ৳
গত  ১৭  জুন  1 US ডলার = 84.20 ৳

প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি, যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা পেতে পারেন।আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন।টাকার রেট উঠানামা করে। দেশে টাকা পাঠানোর আগে ভালোভাবে রেট যাচাই করে নিন। হুন্ডি বা অবৈধ পথে টাকা পাঠাবেন না। তাতে আপনি যেমন উপকৃত হবেন, দেশ ও উপকৃত হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। অল বিডি সেভেন.কমএর সাথেই থাকুন!”।

আরব আমিরাতে সর্ব প্রথম যেভাবে ‘গোল্ডেন ভিসা’ পেলেন বাংলাদেশী প্রবাসী মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান

প্রথম বাংলাদেশী প্রবাসী মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান কে আরব আমিরাতের স্থায়ী বাসস্থান ‘গোল্ডেন ভিসা’ প্রদান করেছে ।আল হারামাইন গ্রুপ অব কোম্পানীর চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান এবং দুবাইয়ে বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের সভাপতি মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান।

কোম্পানির জারি করা এক বিবৃতিতে, স্বীকৃতি আসে আল-হারামাইন গ্রুপ সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৩৮ বছর উদযাপন করে ।
মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান, বিশ্বব্যাপী ব্যবসায় এবং বাণিজ্য উদ্যোগের বিস্তৃত পরিসরে জড়িত – সুগন্ধি, ব্যাংকিং, স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষা ,চা, এবং আতিথেয়তা ইত্যাদি বৈচিত্র্যপূর্ণ ব্যবসায়িকের সাথে জড়িত ।তার গ্রুপ আল হারামাইন পারফিউম, মধ্য প্রাচ্যের অঞ্চলের সর্ববৃহত্তম সুগন্ধি বা পারফিউম নির্মাতাদের মধ্যে একজন, আল হারামাইন টি কো লিমিটেড এবং আল হারামাইন হাসপাতাল প্রাঃ লি।

 
তিনি বলেন “আমি ধন্যবাদ জানাই উর্ধ্বতন শেখ খলিফা বিন জয়েদ আল নাহিয়ান, সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রপতি, তাঁর মহিমা শেখ মোহাম্মদ বিন রাশিদ আল মাকতুম, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী এবং দুবাইয়ের শাসক এবং তাঁর মহিমা শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান, ক্রাউন প্রিন্স অফ আবুধাবি এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের সশস্ত্র বাহিনীর ডেপুটি সুপ্রিম কমান্ডার।

 
তিনি আরো বলেন “গোল্ডেন ভিসা আমার এবং আমার দেশ বাংলাদেশের জন্য একটি সম্মান। এটি আমাদেরকে ইউএই অর্থনীতিতে আরো বিনিয়োগের জন্য উত্সাহিত করবে এবং ইউএই অর্থনীতির আরো বিস্তৃত সাহায্য করবে। আমরা গ্রেট অর্থনৈতিক অনুমোদনের জন্য ইউএইয়ের নেতৃত্ব ও জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞ,সুযোগ এবং সম্মান, ।

 
গ্রুপটি জি সি সি, বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং আরো ১০০ টিরও বেশি শাখায় সরাসরি ১০০০ টিরও বেশি পেশাদার এবং কর্মচারী নিয়োগ করে ২০ টিরও বেশি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন।মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের বর্তমান চেয়ারম্যান – অনাবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি) -এর জন্য বরাদ্দকৃত তিনজন ঋণদাতাদের মধ্যে একজন।

 
তিনি ২015 সালের ২013, ২013, ২014, ২015 এবং ২016 সালের সর্বমোট পাঁচ বছরের জন্য শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) ছিলেন।
সৌদি থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত টাইকুন :
সিলেটের একটি ঐতিহ্যবাহী পরিবারে বসবাসকারী, মাহতাবুর রহমান ১৯৫৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন এবং সিলেট শহরে তার শিক্ষা সম্পন্ন করেন। এর পর তিনি সৌদি আরবের পারিবারিক ব্যবসায়ে যোগ দেন, যা 1970 সাল থেকে মক্কাতে ভালভাবে চলছিল।
 
মাহতাবুর রহমান তার বাবার কাছ থেকে তার ব্যবসায়ের কৌশল শিখেছিলেন এবং সুবাসের ক্ষেত্রে নিজেকে আয়ত্ত করেছিলেন। মক্কা থেকে নতুন গন্তব্য পর্যন্ত তাঁর পারিবারিক ব্যবসায় বিকাশ, উদ্ভাবন এবং প্রসারিত করার তার দৃষ্টি ছিল।পারফিউম বা সুগন্ধি পণ্যের ব্যবসাটি হঠাৎ বেড়েই চলেছে, ১৯৮১ সালে মাহতাবুর রহমান দুবাইয়ে তাদের প্রথম শোরুম খুললেন।

 
মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকা অঞ্চলের সম্ভাব্য সুগন্ধি পণ্যের বাজারের পূর্বাভাসের পর, তিনি তার পুরো অপারেশন ও উত্পাদন ইউনিট সংযুক্ত আরব আমিরাতে স্থানান্তরিত করেন এবং 33,000 বর্গক্ষেত্রের একটি এলাকায় ওএআরএলএল-ইআরপি সার্ভারের সাথে আধুনিক এবং সুশৃঙ্খল হেড অফিস নির্মাণ করেন ফুট এবং 180,000 বর্গফুট এলাকা জুড়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটি কারখানা প্রতিষ্ঠা করে, যা একটি অত্যাধুনিক উত্পাদন ইউনিট হিসাবে বৃদ্ধি পায়।

তিনি জানায় “এটি প্রায় ১৯৯২-১৯৯৩ ছিল, আমি একটি সুগন্ধি কারখানা করার জন্য একটি জমি সন্ধান করছিলাম। শেখ হুমাইদ বিন রাশিদ আল নুঈইমি, সুপ্রিম কাউন্সিলের সদস্য এবং আজমানের শাসক, এই জমিটি আমাকে দিয়েছিল । Ajman নতুন শিল্প এলাকা এটি একটি ফাঁকা এলাকা ছিল ।”আমরা আমাদের ব্যবসা বাড়ানোর অব্যাহত রেখেছি এবং এটি প্রতি বছর বাড়ছে। আমরা আজমনে আমাদের কারখানাতে ১০০ মিলিয়ন দিরহাম বিনিয়োগ করেছি।”

 
২০১১ সালে তিনি দুবাইয়ে বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা করেন – বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের দ্বিপাক্ষিক অর্থনৈতিক সম্পর্ককে আরও শক্তিশালী করতে বাংলাদেশি ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের জন্য একমাত্র নিবন্ধিত ব্যবসা গ্রুপ।তিনি বাংলাদেশে শিক্ষা ও দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলিকে সমর্থন করেন।

আরব আমিরাতের আজমান মসজিদের এক এশিয়ান ইমামকে ধর্ষণের দায়ে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

আজমানে ফৌজদারি আদালত ১২ বছর বয়সী এক আরাবিক ছেলেকে এক মসজিদের ৩০ বছর বয়সী এশিয়ান ইমাম তার ঘরে কয়েকবার ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত করে তাকে পাঁচ বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত করেছে ।

পুলিশের রিপোর্ট অনুযায়ী, আল জারফ এলাকায় মসজিদের কাছে অবস্থিত তার ঘরে ঈশার নামায পড়ার পর মসজিদের ইমাম ছেলেটির সাথে যোগাযোগ করে রাজি করতো।ছেলেটির বাবা পুলিশকে বলেছিলেন যে, তার আচরণে পরিবর্তন দেখা দেওয়ার পর ছেলেটির মা অত্যন্ত চিন্তিত ছিলেন এবং লক্ষ্য করলেন যে তিনি নামাজের পর দেরিতে আসে কেন ।

তার মা তাকে জোর দিয়ে জিজ্ঞাসা করলে , ছেলেটি তাকে বলেছিল যে ইমামের রুমে তার সাথে মোট ৯ দিন যেসব হয়েছিল । তিনি তাঁর মাকে বলেছিলেন যে, ইমাম তাকে ঘরে তাকে ৫ দিরহাম দেয় এবং তাকে বলেছিলেন যে, যদি তার অর্থের প্রয়োজন হয় তবে ইশার নামাজের পরে যে কোন সময় তার কাছে আসতে পারে ।

ফরেনসিক পরীক্ষাগার কর্তৃক জারি করা এই প্রতিবেদনটি প্রমাণ করে যে ছেলেটি বেশ কয়েকবার নির্যাতিত হয়েছে। পুলিশ ইমামকে গ্রেপ্তার করে তাকে পাবলিক প্রসিকিউশন তাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় । সূত্র : খালিজ টাইম। বিদ্রুপ : এশিয়ান লোক বলতে কোন দেশি লোক বুঝিয়েছেন তা উল্লেখ করে নাই তবে ইন্ডিয়ান , পাকিস্তান অথবা বাংলাদেশী এর যেকোন এক দেশি ইমাম হতে পারে ।

বাড়লো আরব আমিরাতের দিরহামের রেট !

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশে এ স্বাগতম ,আজ ১৬ জুন ২০১৯ ইং, বাংলাদেশী সময় রাত ৯:৫০ টা প্রবাসী ভাইরা জেনে নিন আরব আমিরাতের দিরহাম এ বাংলাদেশি টাকায় কত জেনে নিন ।

আজ ১৬  জুন AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.23৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)
গত  ১৪ জুন AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 22.99৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)

আজ ১৬ জুন রাতের 1 US ডলার = 84.55 ৳
গত ১৪ জুন 1 US ডলার = 84.00 ৳     প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি, যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা পেতে পারেন।আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন।টাকার রেট উঠানামা করে। দেশে টাকা পাঠানোর আগে ভালোভাবে রেট যাচাই করে নিন। হুন্ডি বা অবৈধ পথে টাকা পাঠাবেন না। তাতে আপনি যেমন উপকৃত হবেন, দেশ ও উপকৃত হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। অল বিডি সেভেন.কমএর সাথেই থাকুন!”।

আরব আমিরাতের সকল গাড়ি চালকদের জন্য জরুরি বিজ্ঞপ্তি ! না মানলে জরিমানা ১০০০ দিরহাম !

সংযুক্ত আরব আমিরাত আবারো ইমার্জেন্সি গাড়ি চলাচলের প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে একটি সতর্কবার্তা বার্তা জারি করেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সোশ্যাল মিডিয়ায় এ বিষয়ে একটি বিবৃতি পোস্ট করেছে যা ড্রাইভারদেরকে জরুরি যানবাহন এবং জরুরি কাজে সরকারী যানবাহন যাওয়ার সুযোগ দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

এইসব জুরুরি গাড়ি চলাচলের বাধা সৃষ্টিকারী গাড়ির ড্রাইভারকে ১০০০ দিরহাম জরিমানা এবং ৬ টি কালো পয়েন্ট দিয়ে জরিমানা হতে পারে। অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে পোস্টে কর্তৃপক্ষ এই ট্র্যাফিক আইন লঙ্ঘন বন্ধ করার জন্য একটি নতুন প্রচারণা ঘোষণা করেছে – ‘সিভিল প্যাট্রোলস’ জরুরী বা সরকারী যানবাহন চলাচলে বাধা দিলে তা ধরতে বিভিন্ন স্থানে আলাদা সার্ভিস প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রচারাভিযানের উদ্দেশ্য ট্রাফিক নিয়মগুলির প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা এবং দর্শকদের জন্য একটি সভ্য চিত্র প্রতিফলিত করা।মন্ত্রণালয় আরো বলেছে যে অ্যাম্বুলেন্সে জরুরি পরিষেবাগুলির দেরী হওয়া বা বাধা হওয়ার প্রধান কারণ গুলোর মধ্যে একটি হল চলার পথে বাধা দেওয়া ।
আবুধাবি ট্রাফিক ও প্যাট্রোলস ডিরেক্টরেটে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ বিভাগের প্রধান মেজর আব্দুল্লাহ আল কুব্বিসী ফেডারেল ট্রাফিকে সংশোধনের অংশ

হিসাবে ড্রাইভারগুলিকে অ্যাম্বুলেন্স এবং অন্যান্য জরুরি যানবাহন অবরোধকারীর জন্য ১০০০ দিরহাম জরিমানা বাস্তবায়নের ঘোষণা দেন আইন, 1 জুলাই 2017 থেকে কার্যকর হয়েছে ।আলকুবিসি বলেন “কখনও কখনও গাড়িগুলি জরুরি যানবাহন এবং অ্যাম্বুলেন্সের রাস্তার দিকে যাত্রা যাত্রা করে পরে দুর্ঘটনা এড়াতে এসব জুরুরি যানবাহনগুলো জামের মধ্যে আটকে থাকে ।”জরুরী যানবাহনগুলি চলার পথ দিতে ব্যর্থ ড্রাইভারেরা মানুষের জীবনকে বিপদে ফেলে।

মোটর গাড়ি চালককে প্যারামেডিক এবং রেসকিউ টিমকে জরুরী যানবাহনগুলির পথ অবরোধ না করার ঘোষণা দেন। অ্যাম্বুলেন্সের অর্থ হ’ল কারো জীবন বিপদজনক এবং একটি দ্রুত গাড়িতে চলে জীবন বাঁচাতে সাহায্য করতে পারেন যাতে চিকিত্সা নিতে কোন বিলম্ব না হয় ।আবুধাবি পুলিশ এ ব্যাপারেও জোর দিয়ে জরুরী যানবাহন চলাচলে ইমপ্রেসিং একটি নেতিবাচক আচরণ যা সঠিক সময়ে আহতদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবাকে ডেলিভারি দিতে বিলম্ব বা জটিলতা সৃষ্টি না হয় ।

দুবাই এক সুপার মার্কেটে ১১ বছররের ইন্ডিয়ান মেয়ে যৌন হয়রানির শিকার

দুবাই একটি সুপারমার্কেটের ভিতরে ১১ বছর বয়সের এক ভারতীয় মেয়েকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগে অভিযুক্ত একজন ব্যক্তি দুবাই আদালতের ছয় মাসের কারাদন্ড দিয়েছে।

পাবলিক প্রসিকিউশন রেকর্ড দেখায় যে এই ঘটনা এই বছর 4 এপ্রিল হয়।কোর্টের নথি অনুযায়ী, মরোক্কোর এক লোক মেয়েটিকে একা মার্কেটের মধ্যে পেয়ে এক আড়ালে জড়িয়ে ধরে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় স্পর্শ করে ছিল। তিনি ইচ্ছাকৃতভাবে তার পিছু নিয়েছিল যাতে তিনি তাকে স্পর্শ করতে পারে। ঘটনাটি নাইফের একটি দোকান ফ্রিজ আল মুরার মধ্যে ঘটেছিল ।

দুবাই কোর্ট অফ ফার্স্ট ইনস্ট্যান্সের অভিযোগে তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয় এবং তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়। প্রথমে আদালতে অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।২৯ বছর বয়সী লোকটি বর্তমানে আটক রয়েছেন।১১ বছর বয়সী ভারতীয় মেয়েটি পুলিশ তদন্তের সময় জানায় যে সে সন্ধ্যা ৭:৩০ সময় সুপার মার্কেটে ছিল যখন ওই লোকটি তার কাছে স্পর্শ করেছিল। তিনি দ্রুত এসে তাকে জড়িয়ে ধরে এবং তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে খুব মারাত্মক ভাবে স্পর্শ করে ।

মেয়েটি বাড়ি ফিরে গিয়ে তার মাসিকে এই সম্পর্কে বলে কান্নাকাটি করে । তার মাসিমা তখন ঘটনাটিকে পুলিশকে জানায়।মেয়েটির বাবা দেশের বাইরে ছিলেন। তিনি জানতে চাইলেন যে, তার কন্যা চিৎকার করে বলেছিল যে সে তার চাচীর কথা বলছে।অভিযোগপত্র দাখিলের পর 6 এপ্রিল রাত 8 টায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পুলিশি তদন্তে নজরদারি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও ফুটেজে জড়িয়ে ধরার প্রমান পাওয়া গেছে।” প্রসিকিউটর বলেন, লোকটি অভিযোগে অভিযুক্ত । তিনি বলেন, একটি ভুল করেছেন আর ভুল হবে না ।ওই ব্যক্তিকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে। সূত্র : খালিজ টাইম

আরব আমিরাতে কর্মচারীদের ১৫ জুন থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দুপুরে কাজ করা নিষিদ্ধ ঘোষণা !

আজ বৃহস্পতিবার আরব আমিরাত সকল কর্মকর্তাদের গ্রীষ্মের মধ্যাহ্ন বিরতির সময় ঘোষণা করেছে, যার মধ্যে রয়েছে শ্রমিক, নির্মাণ শ্রমিক এবং অন্যান্য অফিসের কর্মীদের সূর্যের রোদের কাজ থেকে নিষিদ্ধ করা হবে।

হিউম্যান রিসোর্সেস অ্যান্ড এমআইরিটিজেশন মন্ত্রণালয় জানায়, খোলা জায়গাগুলিতে মধ্যাহ্নভোজ 15 জুন থেকে 15 সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১২:৩০ টা থেকে ৩ টা পর্যন্ত সরাসরি সূর্যালোতে কাজ চালানো নিষিদ্ধ।মন্ত্রণালয় টুইট করেছে, ” খোলা জায়গাগুলিতে মধ্যাহ্নভোজের সময় এবং সরাসরি সূর্যালোকের অধীনে 15 জুন থেকে 15 সেপ্টেম্বর পর্যন্ত 12.30 টা থেকে বিকাল 3 টা পর্যন্ত কাজ চালানো নিষিদ্ধ।”

যদি শ্রমিকরা তার থেকে বেশি সময় কাজ করে তবে তাদের অনেক বেশি মজুরি ধার্য্য করা উচিত।শ্রম সম্পর্ক নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে ফেডারেল আইন অনুসারে, “যদি কাজের পরিবেশের জন্য কর্মীদের নিয়মিত কাজের সময়গুলির চেয়ে বেশি সময় কাজ করানো প্রয়োজন হয়, তাহলে কর্মীকে সাধারণত ২৫ শতাংশেরও কম সময়ে বা ৪ ভাগের এক ভাগ সময় কম কাজ করিয়ে পুরো কাজের ঘন্টার সমান মজুরি দিতে হবে।

যদি শ্রমিকদের বিরতির সময় কাজ করা হয় তাহলে প্রতি ব্যক্তির জন্য জরিমানা দিতে হবে 5000 দিরহাম , কাজের ভিত্তির উপর বিচার করে ডিক্রি লঙ্ঘনের জন্য Dh50,000 পর্যন্ত জরিমানা করতে পারে ।

আমিরাতের দুবাই কর্মকর্তাদের জন্য নতুন কর্মসংস্থান আইন ! ২০১৯ -এর আইন নং ২ প্রণয়ন।

দুবাইয়ের শাসক ইউএই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মাদ বিন রাশিদ আল মকতুম বুধবার দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্সিয়াল সেন্টার সকল কর্মকর্তাদের জন্য নতুন কর্মসংস্থান আইন যা ২০১৯ -এর আইন নং ২ প্রণয়ন করেন।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্সিয়াল সেন্টার (ডিআইএফসি) একটি বিবৃতি জারি করে বলেছে যে নতুন আইন প্রণয়ন আইনটি আন্তর্জাতিক সর্বোত্তম অনুশীলনের প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধ, এই আইনের আওতায় কাজের ছুটি, অসুস্থ বেতন এবং কাজের চুক্তি শেষ সেবা-বিনিময়গুলির মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির সমাধান করে।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্সিয়াল সেন্টার গভর্নর এ্যাসা কাজিম বলেন, ডিআইএফসি এই নতুন আইন বর্ধনশীলতা ডিআইএইচসি ভিত্তিক প্রায় ২৪০০০ শক্তিশালী পদের কর্মকর্তাদের জন্য আকর্ষণীয় পরিবেশ গড়ে তোলার জন্য অবিচ্ছেদ্য, যেখানে নিয়োগকর্তা ও কর্মচারীদের স্বার্থ রক্ষা ও ভারসাম্য বজায় রাখা হবে । ”

নিয়োগকর্তা-কর্মচারী ভারসাম্য প্রয়োজন :

২৮ আগস্ট, ২০১৯ -এ কার্যকর হবে এই নতুন আইন কাজের ঘন্টা , পার্ট টাইম এবং স্বল্পমেয়াদী কর্মচারী সহ নিয়োগকর্তা এবং কর্মচারীদের (ডিআইএফসি) এ কর্মসংস্থান গুলো প্রয়োগের আবেদনটি স্পষ্ট করবে ।

ডিআইএফসি-র নিয়োগকর্তা ও কর্মীদের চাহিদাগুলি বজায় রাখার জন্য আইনটি কেন্দ্রীয় সাফল্যের ক্ষেত্রে অবদান রেখেছে এমন কর্মসংস্থান মানগুলির জোরালো কাঠামো বজায় রাখা হবে ।নিয়োগকর্তা-কেন্দ্রীয় সংস্থানগুলির মধ্যে কর্মচারীদের কর্তব্যের সম্প্রসারণ, সংবিধিবদ্ধ অসুস্থ বেতন হ্রাস, পরিষেবা বন্ধ করার জন্য বাধ্যতামূলক লেট পেনাল্টি পেমেন্টের আবেদন সীমিত করা এবং নিয়োগকর্তা এবং কর্মচারীদের মধ্যে নিষ্পত্তির চুক্তির স্বীকৃতি ইত্যাদি স্পষ্ট করবে ।

ছুটি এবং জরিমানা
কর্মচারী-ফোকাস করা বিধান সবার জন্য পাঁচ দিন ছুটি এবং এর বৈষম্যের জন্য জরিমানা প্রবর্তনের অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে । কর্মসংস্থান, ভিসা এবং বাসস্থানের স্পনসরশিপের মৌলিক শর্তগুলির আনুগত্য নিশ্চিত করার জন্য জরিমানাও আছে ।

নতুন আইনটি যথেষ্ট গবেষণার এবং বিশ্বব্যাপী বেঞ্চমার্কিংয়ের পাশাপাশি পুঙ্খানুপুঙ্খ জনসাধারণের পরামর্শের ভিত্তিতে , যা আইনটিকে ডিআইএফসি অঞ্চলে সবচেয়ে পরিশীলিত এবং ব্যবসা-বান্ধব সাধারণ আইন বিভাগের আওতায় আনার জন্য আইনটি সহায়তা করবে ।

আবার বেড়ে গেলো আরব আমিরাতের দিরহামের রেট !

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশে এ স্বাগতম ,আজ ১১ জুন ২০১৯ ইং, বাংলাদেশী সময় রাত ৯:৫০ টা প্রবাসী ভাইরা জেনে নিন আরব আমিরাতের দিরহাম এ বাংলাদেশি টাকায় কত জেনে নিন ।

আজ ১১ জুন AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 23.25৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)
গত  ১০ জুন AED (আরব আমিরাতের দিরহাম) 1 দিরহাম = 22.89৳ (তথ্যটি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)

আজ ১১ জুন রাতের 1 US ডলার = 84.45 ৳
গত ১০ জুন 1 US ডলার = 84.00 ৳     প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি, যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা পেতে পারেন।আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন।টাকার রেট উঠানামা করে। দেশে টাকা পাঠানোর আগে ভালোভাবে রেট যাচাই করে নিন। হুন্ডি বা অবৈধ পথে টাকা পাঠাবেন না। তাতে আপনি যেমন উপকৃত হবেন, দেশ ও উপকৃত হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। অল বিডি সেভেন.কমএর সাথেই থাকুন!”।

আমিরাতের উত্তরাঞ্চলের রাস আল খাইমাহ (রাক) শহরে একটি লেবার ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড !

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের উত্তরাঞ্চলের রাস আল খাইমাহ (রাক) শহরে একটি লেবার ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ওই লেবার ক্যাম্প থেকে অন্তত ২২ শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

রাস আল খাইমাহর একটি সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির ইংরেজি দৈনিক খালিজ টাইমস বলছে, আল উরাইবি এলাকার ওই লেবার ক্যাম্পে থাকা এয়ার কন্ডিশনার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।আগুন লাগার খবর পাওয়ার পর রাস আল খাইমাহ পুলিশ উদ্ধারকারী দলের পাশাপাশি অগ্নিনির্বাপন কর্মীদের ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে দেয়।

পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে অগ্নিনির্বাপন কর্মীরা ওই এলাকা ঘিরে ফেলেন এবং যানবাহন ও মানুষের চলাচল বন্ধ করে দেন। একই সঙ্গে অন্যান্য লেবার ক্যাম্পে যাতে আগুন ছড়িয়ে না পড়ে সে ব্যবস্থা নেন তারা।রাস আল খাইমাহ পুলিশ বলছে, অগ্নিকাণ্ডের শিকার ওই লেবার ক্যাম্প থেকে তাৎক্ষণিকভাবে ২২ শ্রমিককে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

লেবার ক্যাম্পের এসি থেকে ছড়িয়ে পড়া আগুন নেভাবে ফোম ও পানি ব্যবহার করা হয়। তবে ধোঁয়া কমিয়ে আনতে বিশেষ একটি মেশিন ব্যবহার করেন দেশটির ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।