জেএসসি-জেডিসিতে ৩৩ প্রতিষ্ঠানের পাস করেনি কেউ !

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এ বছর জেএসসিতে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৫৮ শতাংশ। জেডিসির পাসের হার ৮৯ দশমিক ৭৭ শতাংশ। এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৮ হাজার ৪২৯। এছাড়া ৩৩ প্রতিষ্ঠানের পাস করেনি কেউ। গতবছর এ সংখ্যা ছিল ৪৩টি। অর্থাৎ এবার ১০টি শূন্যভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কমেছে।

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ফলাফল তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এসময় পাশে ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। ডা. দীপু মনি জানান, এবার শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৫ হাজার ২৪৩টি। তিনি বলেন, গতবার শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৪ হাজার ৭৬৯টি। এবার বেড়েছে ৪৭৪টি।

প্রচণ্ড শীতে ২২৬ এতিম নিয়ে বেকায়দায় বাঘার শমেস ডাক্তার !

ওরা আশ্রয়হীন এতিম, এদের মধ্যে কারো বাবা নেই, কারো বা নেই মা, আবার অকালে অনেকেই হারিয়েছে বাবা-মা দুইজনকেই।একেক জনের জীবনের গল্প একেক রকম। এদের পরিবারের কোনো খোঁজ নেই, এদের মধ্যে কেউ পরিত্যক্ত আবার কেউ দুর্ভাগ্যক্রমে পরিবার বিচ্ছিন্ন মানুষ।

তাদের পরিবারও নেই, আনন্দও নেই। এতিমখানায় তাদের আসল ঠিকানা। তারা আনন্দ করতে চায়, স্নেহ ভালোবাসার মধ্যে বেড়ে উঠতে চায়। বাড়ি যেতে চাইলেও বাড়িই তাদের এতিমখানা। রাজশাহী শহর থেকে ৫০ কিলোমিটার পূর্বে পদ্মা নদীর তীর ঘেঁষে বাঘা উপজেলার গড়গড়ি ইউনিয়নের সরেরহাট গ্রাম। এ গ্রামে গড়ে উঠেছে ছোট্ট একটি এতিমখানা। নাম দেয়া হয়েছে সরেরহাট কল্যাণী শিশু সদন। বর্তমানে বৃদ্ধ ও এতিমের সংখ্যা ২২৬ জন।

উপজেলা সদর থেকে সাড়ে তিন কিলোমিটার পূর্বে সরেরহাট গ্রামে অবস্থিত ৫২ শতাংশ জমির ওপর এতিমখানাটি পরিচালনা করেন মুক্তিযোদ্ধা শামসুদ্দিন সরকার শমেস ডাক্তার। ৩১ বছরে পৈতৃক ১৭ বিঘা জমি বিক্রয় করে এতিমদের তিনি রক্ষা করে চলেছেন। এতে
দেশের মানুষের ভালোবাসা ছাড়া কি-ই-বা পেয়েছেন। পেয়েছে কেবল একটি খেতাব ‘সাদা মনের মানুষ’ তাতে তো আর এতিমদের পেট ভরে না।
কিন্তু চলমান শীত নিয়ে বেকায়দার রয়েছে এতিমদের নিয়ে। তিনি দেশবাসীর কাছে আবেদন করেন এতিমদের বাঁচানোর জন্য।

জানা গেছে, মুক্তিযোদ্ধা শামসুদ্দিন সরকার শমেস ডাক্তার প্রথমে স্ত্রী মেহেরুন্নেসার মোহরানা বাবদ অর্থে ১২ শতাংশ জমি ক্রয় করে চালু করেন এতিমখানা। আয় বলতে মেহেরুন্নেসার সেলাইয়ের কাজ ও শমেস ডাক্তারের চিকিৎসা থেকে আসা কিছু অর্থ। এতিমদের রক্ষার্থে আশ্রয়হীনদের ব্যবস্থা করতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত তিনি বাড়ির ভিটা বিক্রি করে নিজেই পরিবার নিয়ে হয়ে পড়েন গৃহহীন। তিনি পল্লী চিকিৎসক পরিবার নিয়ে পড়েন বিপাকে। শেষ পর্যন্ত স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে উঠে আসেন এতিমখানায়। স্ত্রী মেহেরুন্নেসা শিশুদের দেখাশুনা ও তাদের জন্য রান্না করেন তিন বেলা। এখন মেহেরুন্নেসা সেখানকার একজন সেবিকা। বিনিময়ে দুটো খেতে পান মাত্র।

বর্তমানে ২২৬ জন বৃদ্ধ ও এতিমসহ তারা স্বামী-স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে সবাই এক সঙ্গে দিন-রাত কাটান। এ বিষয়ে এতিমখানার এতিম মজিবর রহমান বলেন, আমার বয়স যখন ৪ বছর, এ সময় এখানে রেখে যাওয়া হয়েছে। এখন আমি ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের বাণিজ্যিক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। আমার এটাই ঠিকানা। এখানকার পরিচালক আমার বাবা-মা। তিনিই
আমার সব খরচ বহন করেন। তবে কোনো কোনো সময়ে বাড়িতে এসে লেবারের কাজ করি। এগুলো দিয়ে ও পরিচালক বাবার দেয়া টাকা দিয়ে কোনোমতে লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছি। আরেকজন রকি ইসলাম। তাকে ৩ বছর বয়সে এখানে রেখে যাওয়া হয়েছে। সে এখন স্থানীয় স্কুলে দশম শ্রেণির ছাত্র।

সেও কোনো কোনো সময় লেবারের কাজ করে ও পরিচালকের সহযোগিতায় লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছে। পরিচালক মুক্তিযোদ্ধা শামসুদ্দিন সরকার শমেস ডাক্তার বলেন, নিজের স্ত্রীর, ছেলে-মেয়ের, সরকারি, বেসরকারি ও ব্যক্তিগতভাবে যে সহযোগিতা পাই, তা দিয়ে ছয় মাস চলে। আর ছয়
মাস বিভিন্ন দোকানে বাকি রাখতে হয়। বছর শেষে ১০ থেকে ১২ লাখ টাকা ঋণের মধ্যে থাকতে হয়। তিনি বলেন, সরকার ও হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছ থেকে সহযোগিতা পেলে অন্তত এই ঋণ থেকে মুক্তি পেতাম।

শনিবার থেকে তিন দিনের শৈত্যপ্রবাহ, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি !

ঢাকাসহ দক্ষিণাঞ্চলে বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেল থেকেই হচ্ছে হালকা অথবা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। পাশাপাশি উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অব্যাহত রয়েছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে আবারও শুরু হয়েছে শৈত্যপ্রবাহ। এই দুই বিভাগের বেশির ভাগ জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এখন ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গেছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, শুক্রবার পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থানে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি হতে পারে। এরপর শনিবার থেকে শুরু হবে আরেক দফা শৈত্যপ্রবাহ। পাশাপাশি, দেশের বেশ কিছু অঞ্চলে মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং মাঝরাত থেকে সকাল এবং রাতের তাপমাত্রা হ্রাস পেতে পারে। যা চলবে কমপক্ষে তিন থেকে পাঁচদিন। তারপর দেশজুড়ে শুরু হতে পারে শীতের স্বাভাবিক আবহাওয়া।

বিজয় দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা !

মহান বিজয় দিবসে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল ৬টা ৩৩ মিনিটে প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এর কিছুক্ষণ পরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনের পর প্রধান বিচারপতি, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ও সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তারা স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানান। পরে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সর্বস্তরের মানুষের জন্য জাতীয় স্মৃতিসৌধ উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

প্রথমবারের মতো জাতীয় পতাকার আদলে সেজেছে জাতীয় সংসদ ভবন !

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় সংসদে বর্ণিল আলোকসজ্জা করা হয়েছে। জাতীয় পতাকার আদলে সেজেছে সংসদের দক্ষিণ প্লাজা।
গণপূর্ত অধিদপ্তরের উদ্যোগে প্রতিবছরের মতো এবারও আলোক সজ্জার উদ্যোগ নেয়া হলেও এবারই প্রথমে থিমেটিক আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাহী প্রকৌশলী সমীরণ মিস্ত্রী।

এ ব্যাপারে তিনি জানান, সংসদ ভবনে জাতীয় পতাকার রঙে লাল ও সবুজ রঙের লাইট দিয়ে সাজানো হয়েছে। দুদিন ধরে থাকবে এ আলোকসজ্জা।এদিকে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ফরহাদ হোসেন আজাদ জানান, পুরো সংসদ ভবন এলাকায় এ আলোকসজ্জা করা হয়েছে।

এছাড়া সংসদ ভবন মাঠের দু’পাশে দু’টি ভাস্কর্যের প্রতিচ্ছবি স্থাপন করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে তুলে ধরাই ছিল আলোকসজ্জার মূল থিম।
তাছাড়া দক্ষিণ প্লাজা জাতীয় পতাকার আদলে সাজানো ছাড়াও সাতজন বীর শ্রেষ্ঠের স্মরণে সাতটি সার্ফপি লাইট স্থাপন করা হয়েছে।

এদিকে জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার এই আলোকসজ্জা দেখতে আজ রবিবার সন্ধ্যা থেকেই সংসদ এলাকায় দর্শণার্থীদের ভীর লক্ষ্য করা গেছে। নানা বয়সের মানুষ এসেছে এই লাইটিং দেখতে। সঙ্গে ছবি তোলা, সেলফি তো রয়েছেই।

কড়া নিরাপত্তার মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের তিন গেটে ৩ মটরসাইকেলে আগুন !

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন শুনানির আগের দিন কড়া নিরাপত্তার মধ্যেই সুপ্রিম কোর্টের তিনটি গেটের সামনে তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বিভিন্ন স্থানে এসব মটরসাইকেল জ্বলতে
থাকলেও ঘটনাস্থলে কাউকে দেখা যায়নি বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে গেছে।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে পৌনে ৫টার মধ্যে হাইকোর্টের মাজার গেট, ঈদগাহ মাঠের গেট ও বার কাউন্সিলের গেটের সামনে তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন দেয়া হয়েছে।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, একইসময়ে তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া নাশকতা বলেই মনে হচ্ছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। আমরা পুরো বিষয়টি তদন্ত করছি, তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

এদিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত রেজাউল নামে পুলিশের একজন উপ-পরিদর্শক (এসআই) রেজাউল জানান, আগুন দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে। তার বিস্তারিত পরিচয় যাচাই-বাছাই শেষে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তাকে শাহবাগ থানায় হস্তান্তর করা হবে।

নারীদের বাসে একা চলাচলে বিপদ এড়ানোর পথ দেখাল পুলিশ !

অনেক সময় গণপরিবহনে মেয়েদের একা একা ভ্রমণ করতে হয়। এতে মনের ভেতর ভয় কাজ করে। একা চলাচলের ক্ষেত্রে পরিবহন সংশ্লিষ্ট লোকজন কিংবা পুরুষ যাত্রীদের দ্বারা শারীরিক কিংবা মানসিক নির্যাতনের শিকার হন তারা।গাড়িতে একা হলে কী করবেন- এ বিষয়ে বাংলাদেশ পুলিশ সদরদফতরের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ কিছু পরামর্শ দিয়েছে।

আপনার নিরাপত্তার স্থার্থে নিম্নে প্রদত্ত পরামর্শগুলো অনুসরণ করার চেষ্টা করুন।
১. কোনো গাড়িতে যাত্রীসংখ্যা ৫-৭ জনের কম হলে সেই গাড়ি ভ্রমণের বিষয়ে সতর্ক থাকুন অথবা অধিক যাত্রীসম্বলিত গাড়ির জন্য অপেক্ষা করুন।
২. আপনি যত ক্রান্তই থাকুন না কেন একা ভ্রমণের সময় গাড়িতে কিছুতেই ঘুমাবেন না।
৩. গাড়িতে ওঠার সময় গাড়ি যাত্রীতে পূর্ণ থাকলেও বিভিন্ন স্টপেজে যাত্রী নামতে নামতে যদি যাত্রীসংখ্যা ১০ এর কাছাকাছি পৌঁছে যায় তাহলে গাড়ি থেকে নামার আগ পর্যন্ত অত্যন্ত সতর্ক থাকুন।

৪. এমন পরিস্থিতিতে গাড়ির এমন কোনো সুবিধাজনক সিটে বসুন যেখান থেকে আপনি গাড়ির হেলপার, কন্ডাক্টর ও ড্রাইভারসহ অন্যান্য যাত্রীর ওপর সজাগ দৃষ্টি রাখতে পারবেন।
৫. প্রয়োজনে আপনার পরিবারের কাউকে অথবা নির্ভরযোগ্য কাউকে মোবাইলফোনে কল করে একটু উচ্চশব্দে (গাড়ির ভেতরে থাকা অন্যান্য যাত্রীদের শুনিয়ে শুনিয়ে) আপনার গাড়ির নাম, বর্তমান অবস্থান এবং গন্তব্যস্থল সম্পর্কে জানিয়ে রাখুন। এমনকি সে মুহূর্তে গাড়িতে কতজন যাত্রী অবস্থান করছে তার সংখ্যা এবং গাড়ির স্টাফসহ যাত্রীদের সংক্ষিপ্ত বিবরণও জানিয়ে রাখতে পারেন। এতে গাড়ির ভেতরে থাকা কারও মনে কোনো অসৎচিন্তা ও পরিকল্পনা থাকলে তারা ভয় পাবে।

৬. কোনো স্টপেজে যাত্রীসংখ্যা আরও কমে পাঁচের নিচে চলে আসার উপক্রম হলে সেটি আপনার গন্তব্যস্থল না হলেও অন্যান্য যাত্রীদের সাথে সেই স্টপেজেই নেমে পড়ুন এবং আপনার পরিবারের কাউকে মোবাইলে কল করে সেখানে এসে আপনাকে নিয়ে যেতে বলুন।
৭. আপনাকে নিতে আসা ব্যক্তিটি ওই স্থানে না আসা পর্যন্ত আপনার সাথে থাকার জন্য যাত্রীদের মধ্য থেকে আপনার দৃষ্টিতে নির্ভরযোগ্য কাউকে অনুরোধ করতে পারেন।
৮. কেউ যদি আপনাকে সাহায্য করতে না চায় কিংবা যদি অনিরাপদ বোধ করেন তাহলে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশের সাহায্য নিন।

৯. এছাড়াও গাড়িতে যাত্রীর সংখ্যা পাঁচের কাছাকাছি থাকা অবস্থায় যদি গাড়ির ভেতরে থাকা কারও মধ্যে অস্বাভাবিক কোনো চঞ্চলতা লক্ষ্য করেন এবং প্রয়োজন ছাড়াই গাড়ির দরজা এবং জানালা বন্ধ করে দিতে দেখেন, তাহলে দেরি না করে সাথে সাথে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশের সাহায্য নিন।

নড়াইলে পৌঁছেই মাশরাফীকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন ওবায়দুল কাদের !

জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে নড়াইলে পৌঁছেই মাশরাফীকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্য রাখার জন্য মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে নড়াইল বীরশ্রেষ্ঠ নূরমোহাম্মদ স্টেডিয়ামে হেলিকপ্টারযোগে এসে পৌঁছান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

হেলিকপ্টার থেকে নেমেই ওবায়দুল কাদের বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মর্তুজাকে খুঁজতে থাকেন। এ সময় মাশরাফী মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালে তিনি তাকে বুকে জড়িয়ে ধরে কোলাকুলি করেন। পরে সম্মেলনস্থল সুলতান মঞ্চে পৌঁছান অতিথিবৃন্দ।সম্মেলনে ওবায়দুল কাদেরসহ উপস্থিত আছেন সম্মেলনের উদ্বোধক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য পিযুষ কান্তি ভট্টাচার্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-

সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ এমপি, যুগ্ম-সম্পাদক আব্দুর রহমান, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ত সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, সদস্য এস এম কামাল হোসেন, পরভীন জামান কল্পনা প্রমুখ।

সম্মেলনে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও হুইপ জাতীয় সংসদ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি। বিশেষ বক্তব্য রাখেন নড়াইল-১ আসসের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তি, নড়াইল-২ আসনের

সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফী বিন মর্তুজা, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়।

গাজীপুরে ৮ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিল পরিবেশ অধিদপ্তর !

গাজীপুরে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র না থাকায় ৮টি ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রতিটি ভাটায় পাঁচ লাখ টাকা করে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত মহানগরীর কোনাবাড়ি, রাজাবাড়ি, বাঘিয়া ও বাইমাল নদীরপার এলাকায় অভিযান চালায় পরিবেশ অধিদপ্তর।

পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাকছুদুল ইসলাম জানান, হাইকোর্ট ও পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী বায়ু দূষণ প্রতিরোধে অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করা হয়েছে।

এ সময় যেসব মালিকরা উপস্থিত ছিলেন তাদের থেকে নগদ জরিমানা আদায় করা হয়।

বিদেশ থেকে ৩৮ টাকায় আমদানি করা পেঁয়াজ, বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকায় !

রাজধানীসহ সারাদেশে পিয়াজের বাজারের অস্থিরতা কাটছেই না। রাজধানীর নিত্যপণ্যের বাজারে আগের মতো পাওয়া যাচ্ছে না দেশি পেঁয়াজ। যৎসামান্য যা পাওয়া যায় বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। গতকাল সোমবার প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ কারওয়ান বাজারে বিক্রি হয়েছে ২২০ থেকে ২৪০ টাকায়। অন্যদিকে, বিদেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২২০ টাকায়। একদিন আগেও দেশি ১৮০ টাকায় আর বিদেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয় ১৬০ টাকা কেজি দরে।

এদিকে পাকিস্তান, তুরস্ক, মিয়ানমার, চীনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ এখনও

বিক্রি হচ্ছে বাজারভেদে ২০০ থেকে ২২০ টাকায়। অথচ এই পেঁয়াজই বিদেশ থেকে আমদানি হয়েছে গড়ে মাত্র ৩৮ টাকায়!এদিকে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের তথ্যমতে, গত আগস্ট থেকে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত সাড়ে তিন মাসের বেশি সময়ে ১ হাজার টনের বেশি পেঁয়াজ আমদানি করেছে ৪৭ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। তারা প্রায় ৪০০ কোটি টাকা খরচে ১ লাখ ৪ হাজার ৫৫৮ টন, অর্থাৎ ১০ কোটি ৪৫ লাখ ৫৮ হাজার কেজি পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। অর্থাৎ প্রতি কেজি পেঁয়াজ আমদানিতে তাদের খরচ হয়েছে গড়ে ৩৮ টাকা ২৬ পয়সা।

এদিকে পেঁয়াজের মূল্য কারসাজির সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করতে ৪৭ আমদানিকারককে তলব করেছে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর।
তাদের ১৩ জন গতকাল কাকরাইলের শুল্ক গোয়েন্দা অফিসে হাজির হন। রবিবার রাত থেকে বেড়ে গেছে সব ধরনের পিয়াজের দাম। ফলে নাগালের বাইরে এ পেঁয়াজ।
এদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, মিসর থেকে জাহাজে আমদানি করা পেঁয়াজ আগামী ৭ থেকে ৮ দিনের মধ্যে দেশের বিভিন্ন বাজারে আসবে।

এ পেঁয়াজ খুচরা বাজারে সর্বোচ্চ ৬০ টাকায় বিক্রি হবে। এছাড়া ডিসেম্বরের প্রথমেই বাজারে দেশি নতুন পেঁয়াজ আসতে শুরু করবে। সব মিলিয়ে আগামী ৮ থেকে ১০ দিনের মধ্যে পিয়াজের বাজার স্বাভাবিক হবে।