আজ সন্ধ্যার পর পরই বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে ঝড়ে নিহত ৯ আহত বহু সংখ্যক !

হঠাৎ ঝড়-বৃষ্টিতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ৯ জনের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রাজধানীতে সন্ধ্যার তীব্র কালবৈশাখী ঝড়ে বায়তুল মোকারম মসজিদ প্রাঙ্গণের দক্ষিণ অংশে স্থাপিত অস্থায়ী তাঁবু ভেঙে পড়ে একজন নিহত এবং অন্তত ২০ থেকে ২২ জন আহত হয়েছেন।

পাশাপাশি রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় পার্কিংয়ের দেয়াল ধসে তিনজন নিহতের সংবাদ পাওয়া গেছে। এছাড়া রাজধানীর মোহাম্মদপুরে গাছচাপায় ২ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে।অপরদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ জেলায় ঝড়-বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের শ্রীরামপুর এলাকায় বজ্রপাতে দুইজন হলেন, সদর উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের মৃত হজরত আলীর ছেলে রেজাউল হোসেন (৪০) ও মোতালেব হোসেনের ছেলে মো. মুসা (৩৫)।
অপরদিকে নওগাঁর পোরশা উপজেলায় বজ্রপাতে নিহত দুইজন হলেন, উপজেলার নিতপুর ইউনিয়নের গানুইর গ্রামের আজাদ হোসেনের ছেলে শফিনুর রহমান বিষু (৩২) এবং জেলার শিবগঞ্জ থানার পিঠাইল গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে হাসান আলী (৩০)।

এসময় এ সময় আহত হয়েছেন হজরত আলী (৬০) নামের আরেকজন। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।এছাড়া রাজশাহীর বানেশ্বরে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুস সোবহান সরকার ঝড়ের কবলে পড়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝড়ের সময় তিনি বানেশ্বর বাজারের একটি মুড়ির মিলে ছিলেন। পরে ঝড় শুরু হলে একটি ইট এসে তার মাথার ওপর পড়ে।
এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে পুঠিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

ইতালি যাওয়ার পথে নৌকা ডুবিতে শিবচরের জাকিরসহ মাদারীপুরের নিহত ৬, নিখোঁজদের বাড়িতে শোকের মাতম

লিবিয়া হয়ে ইতালি যাওয়ার পথে তিউনিসিয়ায় সাগরে নৌকাডুবির ঘটনায় নিহত সজিবের গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরে চলছে মাতম। এছাড়া নিখোঁজ মাদারীপুর, শিবচর ও রাজৈরের আরো ৫ যুবকের পরিবারেও চলছে কান্নার রোল।

স্বজনরা জানায়, বছর খানেক আগে অবৈধপথে লিবিয়া যায় মাদারীপুরের কয়েক যুবক। এরপর অবৈধভাবে সমুদ্র পথে লিবিয়া হয়ে ইতালি যাওয়ার সময় সোমবার রাতে তিউনিসিয়ায় সাগরে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এতে অনেক বাংলাদেশি নিহত ও নিখোঁজ হয়। এর মধ্যে মাদারীপুর সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউনিয়নের উত্তর শিরখাড়া এলাকায় আজিজ শিকদারের ছেলে সজিব হোসেন (২০) মারা যান।

নিখোঁজ থাকেন সদরের বল্লভদী এলাকার আদেল উদ্দিন মাতুব্বরের ছেলে মনির হোসেন মাতুব্বর (২১) ও শ্রীনদী এলাকার জোবায়ের মাতুব্বরের ছেলে নাদিম মাতুব্বর (১৬)। ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে তারা নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়াও একই ঘটনায় সদর উপজেলার মঠেরবাজার এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে সাইফুর ইসলাম (২৩) নিখোঁজ রয়েছেনে। নিখোজ রয়েছে মাদারীপুরের শিবচওে দত্তপাড়া ইউনিয়নের ৮নং চর গ্রামের সেকান্দার হাওলাদারের ছেলে জাকির হোসেন (২৮) । অপরজন আলম দস্তার গ্রামের জাফর সিকদারের ছেলে নাইম সিকদার(১৯)।

তাদের পরিবারে চলছে কান্নার রোল। দ্রুত নিহতের লাশ দেশে আনার পাশাপাশি নিখোঁজদের ফিরে পেতে সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন স্বজনরা। এছাড়া দালালদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।
সজিবের বোন মিম আক্তার বলেন, ‘আমারে আফা কইয়া আর কে বোলাবো। আমার ভাইরে এক বছর রাইখা কেন বৃহস্পতিবার পাঠাইলি। আমি এহন কেমনে ভাইরে ভুইলা থাকমুরে। কোথায় গেলি সজিবরে।

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি মাদারীপুর শাখার যুব প্রধান শিশির হোসেন জানান, ‘‘তিউনিসিয়ার উপকূলের কাছে নৌকা ডুবির ঘটনায় এই পর্যন্ত মাদারীপুরের কয়েকজনের নাম জানা গেছে। সজিব নামে একজনের নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। আমরা নিহত ও নিখোঁজদের বাড়িতে গিয়ে তথ্য নিয়েছি।

আজ সকালে গাড়ি উল্টে ঝরে গেলো তাজা ৭ টি প্রাণ।

রাজশাহী, বাগেরহাট ও লক্ষ্মীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরো অন্তত ২০ জন।
পুলিশ জানায়, রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মীরগঞ্জ বাজারে শ্যালো ইঞ্চিন চালিত ট্রলির ধাক্কায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস উল্টে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ১২ জন আহত হন। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বাসের হেলপার আবু হানিফ (২৮), বাসের যাত্রী উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের মীরগঞ্জ বান্ডাবটতলা গ্রামের মনসুর রহমানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৪২) ও একই ইউনিয়নের হরিরামপুর দ্বারপাড়া গ্রামের পিয়ার উদ্দিনের স্ত্রী বাদল বেওয়া (৬৫)।

বাগেরহাট: জেলার রামপাল উপজেলার মানিডাঙ্গা এলাকায় ট্রাক ও মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষে ৩ জন নিহত ও ৬ জন আহত হয়েছেন। হতাহতরা সবাই মাহেন্দ্রর যাত্রী বলে জানিয়েছেন রামপাল হাইওয়ে থানার এসআই মলয় রায়।বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে খুলনা-মোংলা মহাসড়কের রামপালের চেয়ারম্যানের মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে দু’জনের নাম জানা গেছে। এরা হলেন- মোংলা উপজেলার চিলা ইউনিয়নের সোহাগ শেখ (৩৫) ও একই উপজেলার মাকোরডন গ্রামের সঞ্জিত রায় (৪৭)অন্যদিকে লক্ষ্মীপুরে ট্রাকচাপায় দুখু মিয়া নামে এক সিএনজি চালিত আটোরিকশার চালক নিহত হয়েছেন। ঘটনার সময় তিনি ঘুমন্ত অবস্থায় ছিলেন বলে জানা গেছে। এ সময় আরো দুই অটোরিকশা চালক আহত হন।

ভোরে শহরের উত্তর তেমুহনী স্টেশন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ৪টি অটোরিকশা দুমড়ে মুচড়ে গেছে। নিহত দুখু মিয়া রামগঞ্জ উপজেলার পদ্মাবাজার গ্রামের বাসিন্দা।

আজ রাত ১:৪৫ মিনিটে শক্তিশালী ভূমিকম্পে আঘাত করলো ভারতসহ প্রতিবেশী দেশ

শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ভারত সহ প্রতিবেশী তিন দেশ৷ বুধবার রাত ১টা ৪৫মিনিটে অরুণাচল প্রদেশের ওয়েস্ট সিয়াং এ শক্তিশালী কম্পন অনুভূত হয়৷ কম্পনের প্রভাব পড়েছে তিব্বতে৷ তিব্বতের বিস্তীর্ণ অংশে কম্পন অনুভূত হয়েছে৷

বুধবার রাতেই কেঁপে ওঠে চিন ও মায়ানমারের কিছু অংশ৷ চিনা মিডিয়া জিং হুয়া এই খবর জানিয়েছে৷ এই কম্পনের রেশ কাটতে না কাটতে বুধবার সকালে নেপালে জোড়া ভূমিকম্পের খবর মেলে৷ বুধবার রাতে মাটি দুলে ওঠে উত্তর-পূর্বের দুই রাজ্য অরুণাচল প্রদেশ ও অসমের৷

ওই সময় কম্পন অনুভূত হয় চিন ও মায়ানমারে৷ বুধবার সকালে নেপালের মাটিও কেঁপে ওঠে বলে জানায় সংবাদসংস্থা এএনআই৷ সেখানে জোড়া ভূমিকম্প হয়েছে৷ এ খবর দিয়েছে পার্সটুডে।মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভে প্রথম জানায়, বুধবার রাতে তিনটি দেশে কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.৯৷ উৎসস্থল অসমের ডিব্রুগড়৷ ভূমি থেকে ৯ কিমি গভীরে৷ অপরদিকে আইএমডি জানিয়েছে,

একটি হয় সকাল ৬টা বেজে ২৯ মিনিটে৷ দ্বিতীয় কম্পনটি হয় ৬টা বেজে ৪০ মিনিটে৷ যদিও কম্পনের মাত্রা সেখানে ছিল তুলনামূলক কম৷ রিখটার স্কেলে ৫.২ ও ৪.৩ মাত্রার কম্পন ধরা পড়েছে৷এখনও অবধি কোথা থেকেও কোনও ক্ষতক্ষতির খবর মেলেনি৷ তবে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷

এবার গির্জায় ভয়াবহ আগুন, সেই নটর ডেম ক্যাথেড্রাল পুড়ল আগুনে

প্যারিস ভ্রমণের সময় যে স্থাপনার দিকে বিশেষ নজর রাখেন, সেই নটর ডেম ক্যাথেড্রাল পুড়ল আগুনে। ফ্রান্সের রাজধানীর কেন্দ্রস্থলের এই ‘আইকনিক’ স্থাপনায় গতকাল ১৫ এপ্রিল সোমবার বিকালে আকস্মিকভাবে অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

ইতিমধ্যে ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাড়ে আটশ বছর পুরনো এই গির্জা ভবনে আগুন এবং ধোঁয়া ওড়ার ছবি ও ভিডিও সঙ্গে সঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে।এ ব্যাপারে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, সোমবার বিকেলে ক্যাথেড্রালের ওপরের অংশ থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

তবে ঠিক কি কারণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে, সে ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করে কিছু জানানো যায়নি। ফ্রান্স টু টেলিভিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনাটিকে প্রাথমিকভাবে দুর্ঘটনা হিসেবে দেখছে ফ্রান্সের পুলিশ।

এদিকে আগুন লাগার পর প্যারিসের মেয়র অ্যানে হিডালগো টুইট করেন, ‘নটর ডেম ক্যাথেড্রালে ভয়াবহ আগুন।’ ধোঁয়া দেখা যাওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাবে ক্যাথেড্রালের আশপাশের জায়গা ফাঁকা করে ফেলা হয়।এদিকে প্রাচীন এই ক্যাথেড্রালটিতে সংস্কার কাজ চলছিল। গত সপ্তাহেই সংস্কারের জন্য ক্যাথেড্রাল থেকে ব্রোঞ্জ মূর্তি সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল।

তাছাড়া দ্বাদশ শতাব্দীতে নির্মিত এই ক্যাথেড্রালটির কথা ভিক্টর হুগোর বিখ্যাত উপন্যাস ‘দ্য হাঞ্চব্যাক অব নটর ডেম’ এ উল্লেখ আছে। টেলিগ্রাফের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এটি ফ্রান্সের সবচেয়ে পর্যটকপ্রিয় স্থাপত্য। প্রতিদিন ৩০ হাজারেরও বেশি পর্যটক এই স্থাপত্য দেখতে আসেন ।

টাঙ্গাইলে নববর্ষে ঘুরতে বেরিয়ে ট্রাকের চাপায় ২ জনের মৃত্যু

টাঙ্গাইল-ভূঞাপুর সড়কের উপজেলার আদাবাড়ি এলাকাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন কালিহাতীর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন। এই দুর্ঘটনায় ২ কলেজ ছাত্র নিহত হয়েছেন।

দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন কালিহাতীর আনালিয়াবাড়ি এলাকার বাসিন্দা সাত্তার (১৭) এবং সেলিম (১৮)। সাত্তার একাদশ শ্রেণির ছাত্র এবং সেলিম এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, এলেঙ্গা থেকে মোটরসাইকেলযোগে ভূঞাপুরের দিকে যাচ্ছিলো তারা। যাওয়ার পথে যদুরপাড়ায় মোড় এলাকায় পৌঁছালে ইট ভর্তি একটি ট্রাক তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলের ২ আরোহীর মৃত্যু হয়।

এইমাত্র পাওয়াঃ নেপালে আবারও ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা, বহু হতাহতের আশঙ্কা

নেপালের তেনজিং হিলারি লুকলা বিমানবন্দরে এক ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ৩ জনের প্রাণহানি এবং ৫ জন আহত হবার খবর পাওয়া গিয়েছে। মৃত্যের সংখ্যা বাড়তে পারে।
জানা গিয়েছে, একটি হেলিকপ্টারে সঙ্গে ধাক্কা লেগে এমন দুর্ঘটনার শিকার হয় বিমানটি। বিমানে যাত্রীর সংখ্যা বেশি ছিলনা। তাই হতাহতের সম্ভাবনা বেশি নেই।

ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রতাপবাহু তিওয়ারি সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে বিমানের কো-পাইলট এস ধুঙ্গানা অ্যাসিস্ট্য়ান্ট সাব ইনস্পেক্টর রাম বাহাদুর খাড়কার। খাড়কা ওই কপ্টারটির নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন।

দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হন সাব ইনস্পেক্টর রুদ্রবাহাদুর শেষ্ঠ। তাঁকে কপ্টারে নিয়ে যাওয়া হয় কাঠমান্ডুতে। সেখানে চিকিত্সা চলাকালীন তাঁর মৃত্যু হয়।
দুর্ঘটনাগ্রস্থ বিমানটি পাইলট হিসেবে ছিলেন ক্যাপ্টেন বি আর রোকায়া। অন্যদিকে দাঁড়িয়ে থাকা কপ্টাটির পাইলট ছিলেন চেত গুরুঙ্গ। দুজনই মারাত্মক জখম হয়েছেন।

জানা গিয়েছে খারাপ আবহাওয়ার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটে গিয়েছে। এদিকে, নেপালের লুকলা বিমানবন্দরে কোনও রাডার ছিলনা। দুটি দিক মিলিয়ে ঘটে যায় এই দুর্ঘটনা । যা নিয়ে রীতিমত শোকের ছায়া পড়েছে নেপালে।

নেপালে আবারও ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা, বহু হতাহতের আশঙ্কা !

নেপালের তেনজিং হিলারি লুকলা বিমানবন্দরে এক ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ৩ জনের প্রাণহানি এবং ৫ জন আহত হবার খবর পাওয়া গিয়েছে। মৃত্যের সংখ্যা বাড়তে পারে।

জানা গিয়েছে, একটি হেলিকপ্টারে সঙ্গে ধাক্কা লেগে এমন দুর্ঘটনার শিকার হয় বিমানটি। বিমানে যাত্রীর সংখ্যা বেশি ছিলনা। তাই হতাহতের সম্ভাবনা বেশি নেই।ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রতাপবাহু তিওয়ারি সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে বিমানের কো-পাইলট এস ধুঙ্গানা অ্যাসিস্ট্য়ান্ট সাব ইনস্পেক্টর রাম বাহাদুর খাড়কার। খাড়কা ওই কপ্টারটির নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন।

দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হন সাব ইনস্পেক্টর রুদ্রবাহাদুর শেষ্ঠ। তাঁকে কপ্টারে নিয়ে যাওয়া হয় কাঠমান্ডুতে। সেখানে চিকিত্সা চলাকালীন তাঁর মৃত্যু হয়।দুর্ঘটনাগ্রস্থ বিমানটি পাইলট হিসেবে ছিলেন ক্যাপ্টেন বি আর রোকায়া। অন্যদিকে দাঁড়িয়ে থাকা কপ্টাটির পাইলট ছিলেন চেত গুরুঙ্গ। দুজনই মারাত্মক জখম হয়েছেন।

জানা গিয়েছে খারাপ আবহাওয়ার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটে গিয়েছে। এদিকে, নেপালের লুকলা বিমানবন্দরে কোনও রাডার ছিলনা। দুটি দিক মিলিয়ে ঘটে যায় এই দুর্ঘটনা । যা নিয়ে রীতিমত শোকের ছায়া পড়েছে নেপালে।

সব পুড়ে ছাই, গাজীপুরে ১৬টি ঝুট ও সুতার গুদামে ভয়বহ আগুন,

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ির দেওলিয়া বাড়ি এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে ১৫টি ঝুট গুদাম পুড়ে গেছে। অপরদিকে জরুন এলাকায় কেয়া স্পিনিং মিলের সুতার গুদামেও আগুন লেগেছে।

কেয়া স্পিনিং মিলের গুদামে শনিবার রাত ১১টার দিকে লাগে। এ আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।
গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আক্তারুজ্জামান জানান, জয়দেবপুর, কালিয়াকৈর, সাভার ইপিজেডসহ বিভিন্ন ফায়ার স্টেশনের সাতটি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করছে। তাৎক্ষণিকভাবে আগুনে হতাহতের কোনো তথ্য ও আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।

অপরদিকে কালিয়াকৈর ফায়ার স্টেশনের স্টেশন অফিসার মো. কবিরুল আলম জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ির দেওলিয়া বাড়ি এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে ১৫টি ঝুট গুদাম পুড়ে গেছে।

শনিবার রাত ৯টার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এ আগুনে স্থানীয় রমিজ উদ্দিন, সান্টু, আলমগীর, খোকন, মামুন, সাইফুল, আবুল কালাম ও আয়নালসহ ১০জন মালিকের ১৫টি গুদাম ও গুদামে থাকা সব ঝুট ও মালামাল পুড়ে গেছে। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। কালিয়াকৈর, ডিবিএল,জয়দেবপুর এবং সাভারের ইপিজেড ফায়ার স্টেশনের ছয়টি ইউনিটের কর্মীরা একযোগে কাজ করে রাত সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা জয়পুরহাটে, ঘটনাস্থলেই নিহত ৮

জয়পুরহাট সদর উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় আটজন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিন শিশু ও পাঁচ নারী রয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ২০ জন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জয়পুরহাট সদর থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম।স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার বানিয়াপাড়া এলাকার জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক থেকে খাদে পড়ে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।

ওসি সিরাজ জানান, জয়পুরহাট থেকে বগুড়া যাওয়ার পথে যাত্রীবাহী বাসটি নিয়ন্ত্রণ হরিয়ে রাস্তার পাশে একটি খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই আটজনের মৃত্যু হয়।স্থানীয়রা জানান, এমপি পরিবহনের বাসটি বগুড়া যাওয়ার পথে জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কের বানিয়াপাড়া এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই পাঁচ নারী ও তিন শিশু নিহত হয়।

স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করায়। আহতদের মধ্যে আটজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় উদ্ধার অভিযান চলছিল। নিহতদের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম ও পরিচয় জানা যায়নি। এ ঘটনার চালক ও চালকের সহকারীর খোঁজ পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাসটি উল্টে পড়ে আছে। সেখানে অনেক মানুষ জড়ো হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। লাশ সব উদ্ধার করে সারিবদ্ধভাবে রাখা হয়েছে।