ঠিকমত জাকাত দিলে কোনো বিশ্বে দরিদ্র থাকতো না : এরদোগান !

ঠিকমত জাকাত দিলে কোনো মুসলিম দেশে দরিদ্র থাকতো না বলে মনে করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। তিনি বলেন, দরিদ্রতমদের চেয়ে ধনী দেশগুলো ২০০ গুণ বেশি সমৃদ্ধ; কিন্তু মুসলিমরা যদি ধর্মীয় রীতি অনুসারে গরিবদের তাদের জাকাত দিত, তাহলে কোনো মুসলিম দেশ দরিদ্রতায় ভুগত না।রোববার ইস্তান্বুলে অনুষ্ঠিত ওআইসির উচ্চ পর্যায়ের পাবলিক ও ব্যক্তিগত বিনিয়োগ সংক্রান্ত এক বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

লাখ লাখ দারিদ্র পীড়িত মুসলমানদের সাহায্যের জন্য মুসলিম দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে এরদোগান বলেন, ওআইসিভুক্ত দেশগুলোতে ২১ শতাংশ জনসংখ্যা রয়েছে; এর অর্থ

৩৫০ মিলিয়ন ভাইবোন রয়েছেন যারা তাদের জীবন দারিদ্রসীমার ধরে রাখার চেষ্টা করছেন।

ওআইসি সদস্যভুক্ত দেশগুলোকে গত মাসে আলবেনিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্পে ক্ষ’তিগ্রস্থতের

সাহায্যের অনুরোধ জানিয়ে এরদোগান বলেন, আমি আপনাকে অনুরোধ করছি সবকিছু একত্রিত করে আলবেনিয়ার ভাইদের সাহায্য করুন।

গত ২৬ নভেম্বর আলবেনিয়ায় ৬ দশমিক চার মাত্রার ভূমিকম্প হয়। এতে ৫১ জন মা’রা যান এবং ৯ শতাধিক মানুষ আ’হত হয়েছেন।

থুতু ছিটিয়ে ভাইরাস ছড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে !

চীনের উহান শহরে থুতু ছিটিয়ে করোনাভাইরাস ছড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।
চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে বাস করা দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিক জেসিকা বেইলিং নামের এক নারী এই অভিযোগ করেছেন।আর এই কারণে বাইরে বের হতেও ভয় পাচ্ছেন ২৩ বছর বয়সী দক্ষিণ আফ্রিকার ওই নাগরিক।তিনি বলেন, আমি একটি ভিডিওতে দেখেছি একজন ব্যক্তি লিফটের সব বোতামে থুতু দিচ্ছে। এজন্য আমি বাইরে যেতে খুব ভয় পাই। এছাড়াও আমি এমন কাহিনি শুনেছি যেখানে রোগীরা তাদের মাস্ক খুলে ডাক্তারদের মুখে থুতু ছিটিয়েছে যাতে করোনাভাইরাস ছড়ায়।

করোনাভাইরাসে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দু’শ ৫৯ জনে দাঁড়িয়েছে। চীনে এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১১,৭৯১ জন। এ পর্যন্ত যুক্তরাজ্য, স্পেনসহ বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশে ছড়িয়েছে চীনের এই করোনাভাইরাস।গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে করোনাভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মতো সমস্যা দেখা দেয়।

কাসেম সোলাইমানিকে সর্বোচ্চ পদক দিলো সিরিয়া !

ইরাকের বাগদাদ বিমানবন্দরে মার্কিন গু’প্ত হাম’লায় নিহ’ত ইরানের রেভল্যু’শনারি গা’র্ডের অভিজাত কুদস্ ফো’র্সের কমা’ন্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে সর্বোচ্চ পদকে ভূষিত করেছে সিরিয়া।সোমবার তেহরান সফররত সিরিয়ার প্রতির’ক্ষামন্ত্রী আলী আব্দুল্লাহ আইয়ুব ইরানের প্রতির’ক্ষামন্ত্রী আমির হাতামির কাছে এ পদক হস্তা’ন্ত’র করেন। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের পাঠানো সর্বোচ্চ পদকটি সোলাইমানির পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার খবরে বলা হয়েছে।

এদিকে ইরানের ইসলামি বিপ্ল’বী গা’র্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র প্রধান মেজর জেনারেল হোসেন সালামি তেহরানে সিরিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইমাদ খামিসের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।এসময় ইরান সব সময় সিরিয়ার সরকার ও জনগণের পাশে থাকবে বলে অঙ্গী’কার করেন তিনি।

জেনারেল হোসেন সালামি বলেন, ইরান সিরিয়ার ভৌগোলিক অখ’ণ্ডতাকে নিজের ভৌগোলিক অখ’ণ্ডতা বলে মনে করে এবং এর প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান দেখায়। তিনি বলেন, সিরিয়া থেকে সব শ’ত্রু উৎ’খাত না হওয়া পর্যন্ত ইরান সহযোগিতা অব্যাহ’ত রাখবে।

এ সময় সিরিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইমাদ খামিস বলেন, কাসেম সোলাইমানি হচ্ছেন গোটা মুসলিম বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব এবং যু’দ্ধের ময়দানে যুক্তরাষ্ট্র, ইহুদিবা’দী ইসরাইল ও তাদের মিত্রদের পরা’জয়ের স্থ’পতি। শহীদ সোলাইমানি মুসলিম বিশ্বের শ’ত্রু’দের বিরু’দ্ধে প্রতিরো’ধ সং’গ্রামে স্থায়ী প্রভা’ব রেখে গেছেন।

প্রতি’শো*ধ নিতে এলেই যুক্তরাষ্ট্রের ১০০টি মা’র্কিন স্থাপনা মাটিতে মি*শে যাবে: ই’রান

জেনারেল কা*সেম সো’লাইমনি হ’ত্যা’র পর মঙ্গলবার মধ্যরাতে ই’রাকে মা’র্কিন সে’না ও যৌথ বা’হিনী ব্যবহৃত দু’টি সামরিক ঘাঁটিতে হা’ম’লা করে ই’রান, যার মধ্যে একটি হল আল আসাদে এবং অপরটি হল ইরবিলে।এর আগে জেনারেল কা*সেম সো’লাইমনি হ’ত্যা’র পর প্র*কাশ্যে ই’রানকে হুঁশি’য়ারি

দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।জে*নারেল সো’লাইমানি হ’ত্যা’র ব*দলা হিসাবে কোনো মা’র্কিন না*গরিক বা প্রতিষ্ঠানের উপর হা’ম’লা হলে, আমেরিকা ই’রানের আরও ৫২ জায়গা আ*ক্রমণ করার জন্য চি*হ্নিত করে রেখেছে বলে দা*বি করেছিলেন ট্রাম্প।তবে বুধবার মা’র্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে পা*ল্টা

হুঁশি’য়ারি দিয়েছে ই’রান। ই’রানের সেনা’বাহি’নীর বিশেষ সূ*ত্রকে উদ্ধৃত করে ওই টিভি চ্যানেলে বলা হয়,ই’রাকে আরো ১০০টি জায়গা চিহ্নিত করে রাখা হয়েছে। মা’র্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশোধ নিতে এলেই চি*হ্নিত ওই ১০০টি জায়গায় পাল্টা আ*ঘাত হা*নবে ই’রান।

ইরানের পরবর্তী টার্গেট দুবাই ও ইসরায়েল

ইরা’নি কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেমানির গু’প্তহ’”ত্যার বদলা নিতে ইরাকে মার্কিন সে’নাদের ওপর ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’ম”লা চালিয়েছে ইরান। সার্বিক পরিস্থিতিতে তেহরান-ওয়াশিংটনের মধ্যে চরম উ”ত্তে’জনা বিরাজ করছে।মার্কিন সে’নাদের ওপর চালানো এ হা’মলার জেরে ইরানে পাল্টা

হা’মলা হলে মার্কিন মিত্র সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই ও ইসরায়েলের হাইফা শহর ধ্বংসে হা’মলা চালানো হবে বলে হু’ম”কি দিয়েছে ইরানের বি’প্লবী প্রতির’ক্ষা বাহি’নী (আইআরজিসি)।বুধবার (৮ জানুয়ারি) ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’মলার পর নিজেদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে এ হুঁ”শিয়ারি জানিয়েছে আইআরজিসি। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়।ওই বার্তায় আইআরজিসি জানায়, ইরানের ভূখণ্ডে কোনো ধরনের হা’মলা হলে

দুবাই ও হাইফায় ব্যাপক হা’মলা চালানো হবে।শুধু তাই নয়, ইরানে কোনো রকম হা’মলা চালাতে যে দেশ মার্কিনিদের জায়গা দেবে, তাদের ওপরেও হামলা চালানো হবে বলে হুঁ”শিয়ারি দেয় বি’প্লবী প্রতির’ক্ষা বাহি’নী।আইআরজিসির বরাত দিয়ে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানায়, ইরাকে মার্কিন সে’নাদের ওপর হা’মলা ছিল সোলেমানি হ’ত্যা”র বদলায় কেবলই প্রথম ধাপ। মার্কিন সে’নাদের ছাড়া হবে না। মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন সে’না প্রত্যাহার করা না হলে

তারা আরও হা’মলার শিকার হবে বলে হু’মকি দেয় তারা।এদিকে এদিন এক টুইট বার্তায় ইরা’নি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির অন্যতম উপদেষ্টা হেসামউদ্দিন আশেনা জানান, (ইরানের ক্ষে’পণা’স্ত্র হাম’লার প্রতিক্রিয়ায়) যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো সামরিক পদক্ষেপকে পুরো মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে সর্বাত্মক যুদ্ধ দিয়ে মোকাবেলা করা হবে।’

ইরাক থেকে জার্মানি ও ক্রোয়েশিয়ার সেনা প্র*ত্যাহার, বড় ধা*ক্কা খেল ট্রাম্প!

ইরাক থেকে জার্মানি ও ক্রোয়েশিয়ার সেনা প্র*ত্যাহার, বড় ধা*ক্কা খেল ট্রাম্প! মার্কিন হা’মলায় ইরানি জেনারেল কাসেম সোলেইমানি নিহ’তের ঘ*টনায় ইরাক থেকে সে*না প্র’ত্যা’হার করলো ক্রোয়েশিয়া, জার্মানিও সেনা সরিয়ে নেয়ার সি*দ্ধান্ত নিয়েছে। আলজাজিরা জানা যায়, ক্রোয়েশিয়ার প্রতির*ক্ষা মন্ত্রণালয়

দেশটির ১৪ সেনাসদস্যকে কুয়েতে সরিয়ে নিয়েছে। একইভাবে বাগদাদে মোতায়েন জার্মান সেনার এক-চতুর্থাংশ সরিয়ে নেয়া হবে প্রথম দ’ফায়। ইরাক থেকে তাদের কুয়েত ও জর্ডানে নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী। জ’ঙ্গিগো’ষ্ঠী আইএস নি’ধনে যুক্তরাষ্ট্রসহ ন্যাটোভুক্ত পশ্চিমা দেশগুলো ইরাকে এসব সেনা পাঠিয়েছিলো।সোলেইমানি হ’ত্যার ঘটনায় মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে মার্কিন সেনা প্র’ত্যাহা’রের দাবি ওঠে। এ বিষয়ে একটি প্রস্তাবও

পাস হয় ইরাকি পার্লামেন্ট। এরপরই ক্রোয়েশিয়া ও জার্মানি ইরাক থেকে সেনা প্র’ত্যাহা’রের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস বলেন, ইরাক সরকার ও দেশটির পার্লামেন্ট চেয়েছিল বলেই সেখানে আমরা সেনা পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু সেই প্রয়োজন যদি ইরাক সরকারের আর না থাকে তাহলে সেখানে আমাদের সেনা অবস্থানের আর কোনও আ’ইনি ভি’ত্তি থাকে না।আ’ইএস’বিরো’ধী অ’ভিযানে ইরাকে ৪১৫ জন সেনা পাঠিয়েছিলো জার্মানি।

বার্লিনে জার্মানিরপররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, বাগদাদ থেকে প্রথম দ’ফায় ৩০ জন সেনাকে দেশে ফিরিয়ে নেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে বাকিদেরও প্র’ত্যাহার করা হবে।

ই’রানে ফের হা’ম’লা হলে যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধু দুবাই-ইসরায়েলকে উ*ড়িয়ে দেব: ই’রান

ই’রানি কু*দস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কা*সেম সো’লেমানির গুপ্ত’হ’ত্যা’র ব*দলা নিতে ই’রাকে মার্কিন সে’নাদের ওপর ক্ষে’প’ণা’স্ত্র হা’ম’লা চা*লিয়েছে ই’রান।সার্বিক প*রিস্থিতিতে তেহরান-ওয়াশিংটনের মধ্যে চ*রম উ’ত্তেজনা বি*রাজ করছে। মা’র্কিন সে’নাদের ওপর চা*লানো এ হা’ম’লার জেরে ই’রানে পা*ল্টা

হা’ম’লা হলে মা’র্কিন মিত্র সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই ও ইসরায়েলের হাইফা শহর ধ্বং’সে হা’ম’লা চা*লানো হ*বে বলে হু’মকি দিয়েছে ই’রানের বিপ্ল*বী প্রতির*ক্ষা বা’হিনী (আ*ইআ*রজি*সি)।বুধবার (৮ জানুয়ারি) ই*রাকের মার্কিন ঘাঁ*টিতে ক্ষে*পণা*স্ত্র হা’ম’লার পর নিজেদের টে*লিগ্রাম চ্যানেলে এ হুঁ*শিয়ারি জানিয়েছে আ*ইআ*রজি*সি। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়।ওই বার্তায় আইআরজিসি জানায়, ই’রানের ভূখ*ণ্ডে কোনো ধ*রনের হা’ম’লা

হলে দুবাই ও হা*ইফায় ব্যা*পক হা’ম’লা চালানো হবে। শুধু তাই নয়, ই’রানে কোনো র*কম হা’ম’লা চা*লাতে যে দেশ মা’র্কিনিদের জায়*গা দেবে, তাদের ওপরেও হা’ম’লা চা*লানো হবে বলে হুঁ*শিয়ারি দেয় বিপ্ল*বী প্রতির*ক্ষা বা’হিনী।

ইরানে ১৮০ আরোহী নিয়ে বি’ধ্বস্ত বিমানের কেউ বেঁচে নেই

ই’রানে বুধবার ১৮০ আরোহী নিয়ে বি’ধ্ব’স্ত বিমানটির কোনও আরোহী বেঁ’চে নেই। ই’রানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে আল জাজিরা।বুধবার (৮ জানুয়ারি) সকালে ই’রানের রাজধানী তেহরানের ইমাম খোমেনি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের সময় ১৮০ জন আরোহী

নিয়ে ইউক্রেন এয়ারলাইন্সের একটি প্লেন বি’ধ্বস্ত হয়েছে।ই’রানের রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, কাউকে জীবিত খুঁজে পাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেই বলে এ দু’র্ঘ’’টনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। তবে ওয়াশিংটনের সঙ্গে তেহরানের বিদ্যমান উত্তেজনার মধ্যে এ দু’র্ঘটনা নতুন মাত্রা যোগ করেছে।ই’রানের বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার মুখপাত্র রেজা জাফরজাদে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ইতোমধ্যেই ঘটনাস্থলে

বেসামরিক বিমান চলাচল দফতরের তদন্ত টিম পাঠানো হয়েছে। পরে এ ব্যাপারে আমরা আরও বিস্তারিত জানাবো।বোয়িং-এর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুর্ঘটনার ব্যাপারে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের ব্যাপারে তারা সজাগ রয়েছে। এ বিষয়ে আরও তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করছে বোয়িং। সূত্র: আল জাজিরা।

ইরানের ক্ষে’প’ণা’স্ত্র হা’ম’লায় ৮০ মার্কিন সেনা নি’হ’ত!

ইরাকের দুটি মার্কিন বিমানঘাঁ’টিতে ইরানি ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’ম’লা’য় অন্তত ৮০ মার্কিন সেনা নি’হ’ত হয়েছেন বলে দাবি করেছে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন।
বুধবার (৮ জানুয়ারি) এক খবরে এ দা’বি জানানো হয়। খবরে বলা হয়, ইরাকে মার্কিনিদের আ’রবিল ও আল-আ’সাদ বি’মানঘাঁ’টিতে ১৫টি ক্ষে’পণা’স্ত্র

হা’মলা’য় অন্ত’ত ৮০ ‘মার্কিন স’ন্ত্রা’সী’ নিহ’ত হয়েছেন। হা’মলাকা’লে কোনো ক্ষে’পণা’স্ত্রই বা’ধার সম্মু’খীন হয়নি। খবরে আরও বলা হয়, ওই ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’মলা’য় ব্যা’পকভাবে মার্কিন হেলিকপ্টার ও সা’মরিক স’রঞ্জা’ম ক্ষ’তিগ্র’স্ত হয়েছে।ইরানী বিপ্লবী প্রতিরক্ষা বাহিনীর বরাত দিয়ে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন আরও জানায়, ইরানের ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’মলা’র প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র যদি পা’ল্টা হা’মলা চা’লায়, তবে তার জ’বাবে মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে মার্কিনিদের

আরও ১০০টি লক্ষ্য’ব’স্তু চি’হ্নিত করা হয়েছে।এদিন এক টুইট বার্তায় হাসান রুহানির উপদেষ্টা হেসামউদ্দিন আশেনা যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁ’শিয়ারি দিয়ে জানান, (ইরানের ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’মলা’র প্রতিক্রিয়ায়) যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো সামরিক পদক্ষেপে পুরো মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে স’র্বা’ত্মক যু’দ্ধ দিয়ে মো’কাবে’লা করা হবে।’আরেক টুইট বার্তায় ইরাকের মার্কিন ঘাঁ’টিতে ক্ষে’পণা’স্ত্র হা’মলাকে জেনারেল কাসেম সোলেমানি হ’ত্যার যথাযথ ব’দলা হিসেবে উল্লেখ করেছেন

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ইরান এর জবাবে মার্কিন কোন হা’মলা প্র’ত্যাশা করে না। ইরান যু’দ্ধ চায় না বলে জানান তিনি।কিন্তু কোনো আ’গ্রাসন চা’লানো হলে তেহরান প্র’তিরো’ধ করবে বলেও হুঁ’শিয়া’রি দেন জাভেদ জারিফ।

১৮০ আরোহী নিয়ে ই’রানে বিমান বি’ধ্বস্ত

ই’রানের রাজধানী তেহরানের ইমাম খোমেনি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের সময় ১৮০ জন আরোহী নিয়ে ইউক্রেন এয়ারলাইন্সের একটি প্লেন বি’ধ্বস্ত হয়েছে।বুধবার (৮ জানুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, বুধবার সকালে তেহরানের

বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নকালে যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে ইউক্রেন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের বোয়িং-৭৩৭ মডেলের একটি প্লেন বি’ধ্বস্ত হয়েছে। প্লেনটিতে যাত্রী-ক্রু মিলে মোট ১৮০ জন আরোহী ছিল।প্লেনটি ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উদ্দেশে উড্ডয়ন করেছিল। উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরেই সেটি বি’ধ্বস্ত হয়।এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়েছে কিনা, সেই ব্যাপারে এখনও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।