কাসেম সোলাইমানিকে সর্বোচ্চ পদক দিলো সিরিয়া !

ইরাকের বাগদাদ বিমানবন্দরে মার্কিন গু’প্ত হাম’লায় নিহ’ত ইরানের রেভল্যু’শনারি গা’র্ডের অভিজাত কুদস্ ফো’র্সের কমা’ন্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে সর্বোচ্চ পদকে ভূষিত করেছে সিরিয়া।সোমবার তেহরান সফররত সিরিয়ার প্রতির’ক্ষামন্ত্রী আলী আব্দুল্লাহ আইয়ুব ইরানের প্রতির’ক্ষামন্ত্রী আমির হাতামির কাছে এ পদক হস্তা’ন্ত’র করেন। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের পাঠানো সর্বোচ্চ পদকটি সোলাইমানির পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার খবরে বলা হয়েছে।

এদিকে ইরানের ইসলামি বিপ্ল’বী গা’র্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র প্রধান মেজর জেনারেল হোসেন সালামি তেহরানে সিরিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইমাদ খামিসের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।এসময় ইরান সব সময় সিরিয়ার সরকার ও জনগণের পাশে থাকবে বলে অঙ্গী’কার করেন তিনি।

জেনারেল হোসেন সালামি বলেন, ইরান সিরিয়ার ভৌগোলিক অখ’ণ্ডতাকে নিজের ভৌগোলিক অখ’ণ্ডতা বলে মনে করে এবং এর প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান দেখায়। তিনি বলেন, সিরিয়া থেকে সব শ’ত্রু উৎ’খাত না হওয়া পর্যন্ত ইরান সহযোগিতা অব্যাহ’ত রাখবে।

এ সময় সিরিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইমাদ খামিস বলেন, কাসেম সোলাইমানি হচ্ছেন গোটা মুসলিম বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব এবং যু’দ্ধের ময়দানে যুক্তরাষ্ট্র, ইহুদিবা’দী ইসরাইল ও তাদের মিত্রদের পরা’জয়ের স্থ’পতি। শহীদ সোলাইমানি মুসলিম বিশ্বের শ’ত্রু’দের বিরু’দ্ধে প্রতিরো’ধ সং’গ্রামে স্থায়ী প্রভা’ব রেখে গেছেন।

আরব আমিরাত সফর শেষে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী !

আবুধাবি সফর শেষে দেশের পথে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) আবুধাবি বিমানবন্দর থেকে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৫ মিনিটের দিকে (বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৫ মিনিট) বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইট বিজি ১১০২ যোগে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করেন শেখ হাসিনা।

বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানান আবুধাবিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ইমরান।

বিমানটি বাংলাদেশের স্থানীয় সময় আজ রাত ১১টা ৫৯ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) ‘আবুধাবি সাসটেইনেবল উইক’, ‘জায়েদ সাসটেইনেবল অ্যাওয়ার্ড সেরিমনি’ ও অন্যান্য কর্মসূচিতে অংশ নিতে তিন দিনের সরকারি সফরে গত ১২ জানুয়ারি (রোববার) রাত ৮টা ৩০ মিনিটে আবুধাবি পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিন বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আবুধাবির উদ্দেশে রওনা দেয়।

সোমবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে আবুধাবি ন্যাশনাল এক্সিবিশন সেন্টারের (এডিএনইসি) আইসিসি হলে ‘আবুধাবি সাসটেইনেবল উইক’ এবং ‘জায়েদ সাসটেইনেবল অ্যাওয়ার্ডস সেরিমনি’তে যোগ দেন শেখ হাসিনা। পরে সন্ধ্যায় তার হোটেলে আয়োজিত এনভয়ে’স কনফারেন্সে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) ইউএই প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম, আবুধাবির যুবরাজ শেখ মোহম্মদ বিন জায়েদ বিন সুলতান আল-নাহিয়ান ও ইউএই’র প্রতিষ্ঠাতা ও প্রথম প্রেসিডেন্টের পত্নী শেখ ফাতিমা বিনতে মুবারক আল কেতবি’র সঙ্গে দেখা করেন।

বিকেলে প্রধানমন্ত্রী এডিএনইসি’র হল-১১-তে আয়োজিত ‘দ্য ক্রিটিক্যাল রোল অব উইমেন ইন ডেলিভারিং ক্লাইমেট অ্যাকশন’ সংক্রান্ত সাক্ষাৎকার অধিবেশনে যোগ দেন।

দিনাজপুরে ৫ বছরের শিশু ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার !

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে পাঁচ বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামে নির্মাণাধীন একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শিশুর বাবা বাদী হয়ে চিরিরবন্দর থানায় একটি এজাহার দাখিল করেছেন। পরে অভিযান চালিয়ে মোরসালিন (২১) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। মোরসালিন একই গ্রামের নুর হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, দুপুরে শিশুটি বাড়ির সামনে অন্য শিশুদের সঙ্গে খেলছিল। মোরসালিন তাকে কৌশলে নির্মাণাধীন একটি বাড়ির ভেতর নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে এলে মোরসালিন পালিয়ে যায়।

পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে চিরিরবন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে বিকেলে তাকে দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। আসামিকে বুধবার সকালে আদালতে তোলা হবে।

আজ ১৫/০১/২০২০ তারিখ আরব আমিরাতসহ বিভিন্ন দেশের স্বর্ণের রেট জেনে নিন !

এই মুহূর্তে দেশে প্রবাসে যে যেখানে আছেন আমার বাংলাদেশ এ স্বাগতম ! ধনী থেকে গরিব সবাই চায় এটি কাছে রাখতে । কিন্তু অনেক দাম হওয়ার কারনে শুধু ধনী বাক্তিরাই সেটি সংরক্ষন করতে পারে। তবে যারা দেশের বাইরে থাকেন তারাও মাঝে মাঝে ভাল স্বর্ণ কম মূল্যে কিনতে পারে। তার প্রবাসী ভাইদের জন্য এটি বেশ।

ভরি =১১.৬৫৪ গ্রাম

বাংলাদেশ: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) = 4250.62 টাকা এবং (22 ক্যারাট) = 3905.22 দুবাই: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 187.00 দেরহাম, ; (22 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 176.80 দেরহাম সৌদি আরব: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 188.90 সৌদি রিয়্যাল, (22 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 177.86 সৌদি রিয়্যাল ।

কাতার: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 175.70 কাতারি রিয়্যাল ।

সিঙ্গাপুর: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 66.74 ডলার ।

মালয়েশিয়া: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 201.54 রিংগিত ।

ইংল্যান্ড: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 38.35 ব্রিটেন পাউন্ড ।

বাহরাইন: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 18.40 দিনার ।

ওমান: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 17.70 রিয়াল ।

অস্ট্রেলিয়া: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 58.98 অস্ট্রেলিয়ান ডলার ।

কুয়েত: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 15.43 দিনার ।

কানাডা : প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 61.88 কানাডিয়ান ডলার ।

আমেরিকা: প্রতি গ্রাম স্বর্ণের দাম (24 ক্যারাট) – 1 গ্রাম = 47.75 আমেরিকান ডলার ।

যেকোনো সময় স্বর্ণের রেট উঠানামা করতে পারে। যে যেখানে আছেন নিরাপদে থাকুন, আনন্দময় হোক আপনার সারাদিন।নতুন নতুন খবর পেতে সবসময় আমার বাংলাদেশের এর সঙ্গে থাকুন। ধন্যবাদ ।

জোড়া সেঞ্চুরিতে ভারতকে উড়িয়ে দিলো অস্ট্রেলিয়া !

ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ড এবং পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল তারা টেস্টে। কিন্তু ভারতের মাটিতে এসে ওয়ানডেতেও এতটা বিধ্বংসী হয়ে উঠবে অসিরা, সেটা কে ভাবতে পেরেছিল? মুম্বাইর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে প্রথম ওয়ানডেতে বিরাট কোহলিদের ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করেছে অস্ট্রেলিয়া।

জোড়া সেঞ্চুরি অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনারের ব্যাটে। ডেভিড ওয়ার্নার এবং অ্যারোন ফিঞ্চ। জয়ের জন্য ২৫৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে কোনো উইকেটই হারায়নি অসিরা। বিনা উইকেটেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ওয়ার্নার-ফিঞ্চরা। তাও মাত্র ৩৭.৪ ওভারে (৭৪ বল হাতে রেখে)।

১১২ বলে ১২৮ রানে অপরাজিত থাকেন ডেভিড ওয়ার্নার। ১৭টি বাউন্ডারির সঙ্গে ৩টি ছক্কার মার মারেন তিনি। এটা আবার তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ১৮তম সেঞ্চুরি। দুর্দান্ত এই ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরার পুরস্কারও জিতে নেন তিনি। অসি অধিনায়ক অ্যারোন ফিঞ্চ অপরাজিত থাকেন ১১৪ বলে ১১০ রান করে। তার ইনিংসে ১৩টি বাউন্ডারির সঙ্গে ছিল ২টি ছক্কার মার।

এর আগে টস জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠায় অস্ট্রেলিয়া। অসি পেসারদের আগুনে বোলিংয়ের সামনে এক শিখর ধাওয়ান ছাড়া দাঁড়াতে পারেনি আর কেউ। ফলে, মুম্বাইর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ৪৯.১ ওভারে ২৫৫ রানে অলআউট হয়ে যায় বিরাট কোহলির দল।

দীর্ঘদিন পর মাঠে ফিরে শিখর ধাওয়ানই কেবল মাথা তুলে দাঁড়াতে পারলেন অসি বোলারদের সামনে। ৯১ বলে ৭৪ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন শিখর। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন লোকেশ রাহুল।

অস্ট্রেলিয়ান পেসাররা এমনিতেই ছিলেন ফর্মে। এবার ভারতের মাটিতে এসেও ফর্মের তুঙ্গে থাকার ইঙ্গিত দিলেন তারা। প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক কিংবা কেন রিচার্ডসন- এই তিনজন মিলেই নেন ৭ উইকেট। স্টার্ক নেন ৩ উইকেট। কামিন্স এবং রিচার্ডসন মিলে নেন ২টি করে উইকেট। অ্যাডাম জাম্পা এবং অ্যাস্টন অ্যাগার নেন ১টি করে উইকেট।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই মিচেল স্টার্কের তোপের মুখে পড়ে ভারত। ১০ রান করে স্টার্কের বলে ওয়ার্নারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান রোহিত শর্মা। এরপর ধাওয়ান এবং লোকেশ রাহুল মিলে ১২১ রানের জুটি গড়ে তোলেন। ১৩৪ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৪৭ রানে আউট হয়ে যান লোকেশ রাহুল।

এরপরের ব্যাটসম্যানরা খুব একটা দাঁড়াতে পারেননি। বিরাট কোহলি ১৬, স্রেয়াশ আয়ার ৪, রিশাভ পান্ত ২৮, রবীন্দ্র জাদেজা ২৫, শার্দুল ঠাকুর ১৩, মোহাম্মদ শামি ১০ এবং কুলদ্বিপ যাদব আউট হন ১৭ রান করে। বুমরাহ অপরাজিত থেকে যান কোনো রান না করেই।

বন্দর ও জাহাজ নির্মাণে আরব আমিরাতের বিনিয়োগ কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী !

বাংলাদেশের বন্দর, জাহাজ নির্মাণ এবং আইসিটি খাতে বিনিয়োগ করতে দুবাই ভিত্তিক

কোম্পানি ডিপি ওয়ার্ল্ডের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ডিপি ওয়ার্ল্ডসহ

ইউএই’র কোম্পানিগুলোর একটি প্রতিনিধিদল শাংগ্রি-লা হোটেলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলে তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতের পাশাপাশি বন্দর, জাহাজ নির্মাণ ও আইসিটি খাতে আমরা আপনাদের ব্যাপক বিনিয়োগ প্রত্যাশা করছি।’

সাক্ষাৎ শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, ডিপি ওয়ার্ল্ডের পৃথক প্রতিনিধিদল যার নেতৃত্বে ছিলেন চেয়ারম্যান সুলতান আহমেদ

বিন সুলায়েম, আমিরাত জাতীয় তেল কোম্পানির (ইএনওসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফ

হুমাইদ আল ফালাসি এবং দুবাই শাসক পরিবারের সদস্য শেখ আহমেদ ডালমুখ আল মকতুম এমএকে পৃথকভাবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

একই সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিশিষ্ট ব্যবসায়ীদের একটি দলও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন বলে প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান।

বৈঠকে ডিপি ওয়ার্ল্ড- বিশ্বের নেতৃস্থানীয় সাপ্লাই চেন সলিউশন, কার্গো লজিস্টিক, বন্দর পরিচালনা, সমুদ্র যাত্রা সংশ্লিষ্ট সংস্থা- প্রধানমন্ত্রীকে সোনাগাজীতে ১৩শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

কেন্দ্র স্থাপনের অগ্রগতির বিষয়ে অবহিত করেন। বাংলাদেশ সরকার এ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য জমি বরাদ্দ দেয়।

প্রধানমন্ত্রী সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীদের বিশেষ করে ডিপি ওয়ার্ল্ডকে বাংলাদেশে

একটি হাইটেক পার্ক স্থাপনের আহ্বান জানান। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ

বাংলাদেশের আইসিটি খাতের অগ্রগতির প্রশংসা করেন। তারা বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ‘আউটসোর্সিং’ সরবরাহকারী দেশ।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে আমিরাতের জাতীয় তেল কোম্পানি (ইএনওসি) এবং

বাংলাদেশের বিদ্যুৎ, জ্বালানি এবং খনিজ সম্পদ বিভাগের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

হয়। বিদ্যুৎ, জ্বালানি এবং খনিজ সম্পদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বাংলাদেশের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, প্রবাসী কল্যাণ এবং

বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমেদ, বিদ্যুৎ, জ্বালানি এবং খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন,

পিএমও সচিব মোহাম্মদ তোফাজ্জ্বল হোসেন মিয়া এবং প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব কে এম সাখাওয়াত মুন উপস্থিত ছিলেন। -বাসস

জাতীয় পার্টির সাবেক মন্ত্রী কায়সারের ফাঁ,সি কার্যকর হবে যেভাবে !

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আপিল বিভাগেও মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকায় জাতীয় পার্টির

সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের ভাগ্য চূড়ান্ত পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

ফাঁসি কার্যকরে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায়ের জন্য অপেক্ষা করতে

হবে। তবে আপিল বিভাগের রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ করতে পারবেন সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার।

রায় প্রকাশের পর থেকে রিভিউ করার জন্য ১৫ দিন সময় পাবেন তিনি। রিভিউ নিষ্পত্তি হওয়ার পর রায় কার্যকর করতে পারবে সরকার।

এরপর সাবেক এ প্রতিমন্ত্রী শেষ সুযোগ হিসেবে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার সময় পাবেন।

রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার সুযোগ নাকচ হয়ে গেলে সরকার যেকোন দিন দণ্ড কার্যকর করতে পারবে।

সাধারণত, রিভিউতে সাজা কমার নজির নেই।

এ বিষয়ে অ্যার্টনি জেনারেল মাহবুবে আলম আগে বলেছিলেন, ‘রিভিউ শুনানির পর কারো ফাঁসি বা মৃত্যুদণ্ড কমেছে, আমার জানা নেই। ইতিহাসে এমন নজির আছে বলেও আমার জানা নেই।’

উল্লেখ্য, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলা চূড়ান্ত নিষ্পত্তির পর এ পর্যন্ত প্রভাবশালী ৬ জনের

ফাসির রায় কার্যকর করা হয়েছে। এরা হলেন, জামায়তের আমির মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী, জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ

কামারুজ্জামান, আব্দুল কাদের মোল্লা ও জামায়াতের নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলী।

জামায়াতের নায়েবে আমির দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর আপিল নিষ্পত্তি হয়েছে। তবে মানবতা বিরোধী অপরাধের মামলায় তিনি আমৃত্যু কারাদণ্ড ভোগ করছেন।

জামায়াতের আরেক নেতা এ টি এম আজহারুল ইসলামেরও মৃত্যদণ্ড বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। সেই রায় প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে।

গণধর্ষণের শিকার ১৩ বছরের কিশোরী, বান্ধবীসহ ৪ ধর্ষক আটক !ভিডিও সহ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনার রেশ না কাটতেই রাজধানীর কামরাঙ্গীচরে গণধর্ষণের শিকার হলো ১৩ বছরের কিশোরী। ট্রিপল নাইনে ফোন করায় নির্যাতিতাকে দ্রুত উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

এরই মধ্যে চার অভিযুক্ত ও সহযোগিতার অভিযোগে নির্যাতিতার বান্ধবীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে অপরাধীদের সর্বোচ্চ সাজা দাবি করেছে এলাকাবাসী।

সারা দেশ যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল, এমন সময়ে আবারো ঘটলো ধর্ষণের ঘটনা। এবার ৫ নরপশুর লালসার বলি হলো ১৩ বছরের এক কিশোরী।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নিজ বাসা থেকে মামার বাসায় যাওয়ার পথে, ওই কিশোরীকে এলাকার ৫ বখাটে যুবক পাশের একটি নির্মাণাধীন ভবনের ছাদে নিয়ে ধর্ষণ করে। অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে গেলে এলাকাবাসী জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন দিলে পুলিশ কিশোরীটিকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে ভর্তি করে।

ঘটনার পর কিশোরীর মা মেয়েটির বান্ধবী ও এলাকার ৫ বখাটের বিরুদ্ধে কামরাঙ্গীচর থানায় মামলা করেন।

শুক্রবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ৬ আসামির মধ্যে ৪ ধর্ষক ও সহযোগীকে গ্রেফতার করে। পুলিশ জানায়, জঘন্য এই অপরাধে সক্রিয়ভাবে ধর্ষকদের সহযোগিতা করে কথিত বান্ধবী।

কামরাঙ্গীচর থানার ওসি সিকদার মহিতুল আলম জানান, ধর্ষকদের সাথে পরিচয় করিয়েছে মেয়েটির আরেকটি বান্ধবী। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রত্যেক ধর্ষকই স্বীকার করেছে।

এ ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়ে অপরাধীদের সর্বোচ্চ সাজা দাবি করে দ্রুত বিচারকাজ শেষ করার দাবি এলাকাবাসীর।

গণধর্ষণের শিকার কিশোরীর শারীরিক অবস্থার বিষয়ে শনিবার গণমাধ্যমকে জানাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বিয়ের দাবিতে অনশনে প্রেমিকা, পালালেন প্রেমিক

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করেছেন এক কলেজছাত্রী। বুধবার (৮ জানুয়ারি) সকাল থেকে উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নের ফরাদপুর এলাকার প্রেমিক খাইরুল ইসলামের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন তিনি।প্রেমিক খাইরুল ইসলাম ওই গ্রামের মৃত এমদাদুল হকের ছেলে।

ভুক্তভোগী ওই কলেজছাত্রী উপজেলার কৃষ্ণবাটি কালিদিঘি গ্রামের বাসিন্দা।তারা দুইজনই রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী। ঘটনার পর প্রেমিক খাইরুল ইসলাম বাড়ি থেকে পালিয়েছেন।ওই কলেজছাত্রী জানান, চার বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের ফাঁ’’দে ফেলে প্রেমিক খাইরুল তাকে এ’কা’ধিক’বার ধ’’র্ষণ করেছে।সম্প্রতি বিষয়টি পরিবার জেনে যায়। এরপর থেকেই খাইরুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিলেন
তিনি। কিন্তু তাতে রাজি হননি প্রেমিক। বছর দেড়েক আগে তিনি খাইরুলের বাড়িতে গিয়ে তার মা দেলখোস বেগম এবং মামা আব্দুল কাদিরকে বিষয়টি

জানান।ওই সময় তারা বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাড়ি থেকে পাঠিয়ে দেন। এখন সেই সম্পর্ক অস্বীকার করছে প্রেমিক। তার পরিবারও এই সম্পর্ক মানতে নারাজ। এই পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়েই প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে তিনি অনশন শুরু করেছেন। প্রেমিক বিয়ে না করলে আত্মঘাতি হবেন বলেও জানান ওই কলেজছাত্রী।পলাতক থাকায় এ নিয়ে প্রেমিক খাইরুল ইসলামের মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে তার মা দেলখোস বেগম বলেন, তার ছেলের সঙ্গে ওই মেয়ের

প্রেমের সম্পর্ক নেই। তবে একই সঙ্গে পড়ালেখার সুবাদে তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব রয়েছে।উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নে পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আজম তৌহিদ জানান, বিষয়টি নিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে আলোচনা চলছে। দুই পক্ষই মীমাংসায় রাজি হয়েছে।এ বিষয়ে গোদাগাড়ীর প্রেমতলি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আবদুল বারী জানান, এ নিয়ে ওই কলেজছাত্রী এখনো থানায় কোনো অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলন করে যা বললেন ট্রাম্প !

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ইরানের ভালো ভবিষ্যত আশা করে যুক্তরাষ্ট্র। তাই তাদের সঙ্গে যুদ্ধ নয়, এক হয়ে পথ চলার আহ্বান জানাচ্ছি। বুধবার (৮ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় সকালে হোয়াইট হাউজে দেয়া এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ইরানের ছোড়া মিসাইলের কথা উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, ইরানি মিসাইল হামলায় কোনো ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানি হয়নি। কারণ পূর্বেই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। এ জন্য চৌকস ও দক্ষ সেনাদের ধন্যবাদ।

ইরানকে সন্ত্রা**** সবাদের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমেরিকানদের জীবন হু মকির মধ্যে ফেলেছিল, এমন একজনকে আমরা গত সপ্তাহে হ** ত্যা করেছি। সে হিজবুল্লাহসহ স *** ন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দিত। রাস্তার পাশে বোমা পুঁতে রেখে অনেক সৈন্যকে হ*** ত্যা করেছে।

ট্রাম্প বলেন, সোলাইমানির নির্দেশে বাগদাদে মার্কিন অ্যাম্বাসিতে হামলা হয়। সে আরো বড় হামলার পরিকল্পনা করেছিল কিন্তু আমরা তাকে প্রতিহত করে দিয়েছি।ট্রাম্প আরো বলেন, ইরানকে বুঝতে হবে তাদের স **ন্ত্রাসের রাজত্ব আর মেনে নেয়া হবে না। ন্যাটোকে আমি আহ্বান জানাব, মধ্যপ্রাচ্যে তাদের আরো সম্পৃক্ত হতে হবে।

ট্রাম্প উল্লেখ করেন তার শাসনামলে মার্কিন সমরসজ্জা আরো শক্তিশালী হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের মিসাইলগুলো বড় ও শক্তিশালী। তবে আমরা তা ব্যবহার করতে চাই না।

ট্রাম্প জানান, আইএসের ধ্বংস যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের জন্য মঙ্গলজনক ছিল। ইরানিরা ভালো ভবিষ্যতের যোগ্য। তাদের শাসকরা তা বুঝতে পারলে একসঙ্গে পথ চলতে আপত্তি নেই তার।